1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

গৃহযুদ্ধের সিরিয়ায় আসাদ পুনর্নির্বাচিত

গৃহযুদ্ধকবলিত সিরিয়ায় নির্বাচনে জয়ী হয়ে টানা তৃতীয়বারের মতো প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন বাশার আল-আসাদ, যে নির্বাচনকে ‘প্রহসন’ আখ্যায়িত করে প্রত্যাখ্যান করেছে বিদ্রোহীরা৷

মঙ্গলবারের এ ভোটাভুটিতে কোনো শক্তিশালী বিরোধী পক্ষ না থাকায় আসাদের জয়ের বিষয়টি ছিল একপ্রকার নিশ্চিত৷ মূলত আসাদ নিয়ন্ত্রিত এলাকাগুলোতে অনুষ্ঠিত এ নির্বাচনে ভোট পড়েছে ৭৩.৪২ শতাংশ৷ এর মধ্যে আসাদ একাই ৮৮.৭ শতাংশ পেয়েছেন বলে স্পিকার মোহাম্মদ আল-লাহাম বুধবার পার্লামেন্টে জানান৷

সিরিয়ার গত ৫০ বছরের ইতিহাসে এবারই প্রথম প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে একাধিক প্রার্থী অংশ নেন৷ অবশ্য বাকি দুই প্রার্থীর কেউই আসাদের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আসতে পারেননি৷ এর মধ্যে হাসান আল-নুরি পেয়েছেন ৪ দশমিক ৩ শতাংশ ভোট৷ আর মাহের হাজার পেয়েছেন মাত্র ৩ দশমিক ২ শতাংশ৷

ভোটের ফল প্রকাশের পর স্পিকার আল-লাহাম সিরিয়ার জনগণকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, দেশের মানুষ তাঁদের নেতা, তাঁদের ক্যাপ্টেনকে বেছে নিয়েছেন, যিঁনি সিরিয়াকে পৌঁছে দেবেন নিরাপদ বন্দরে৷

তাঁর এই ঘোষণার পর দামেস্কর রাস্তায় আসাদ সমর্থকদের ফাঁকা গুলি ছুড়ে সিরিয়ার পতাকা হাতে আনন্দ প্রকাশ করতে দেখা যায়৷ এ সময় স্লোগান শোনা যায় – আসাদ তুমি দীর্ঘজীবী হও৷

অন্যদিকে পূর্বাঞ্চলীয় দেইর ইজোর এলাকায় বিদ্রোহীদের মুখপাত্র ওমর আবু লেইলা বলেছেন, ‘‘সিরিয়ার জনগণ তাঁদের সিদ্ধান্ত আগেই জানিয়েছে এবং বিপ্লব চালিয়ে যাচ্ছে৷ তিন বছর পর এখন আর ফেরার পথ নেই৷ আমরা মুক্তি চাই, সুবিচার চাই, সেজন্য যত মূল্যই দিতে হোক না কেন৷''

৪৮ বছর বয়সি আসাদ ২০০০ সালে তাঁর বাবা হাফেজের কাছ থেকে সিরিয়ার ক্ষমতা নেন৷ তৃতীয় দফা নির্বাচনে জিতে আরো সাত বছরের জন্য ক্ষমতায় থাকার সাংবিধানিক অনুমোদন পেলেন তিনি৷

অবশ্য গৃহযুদ্ধের কারণে সিরিয়ার মোট আয়তনের মাত্র ৪০ শতাংশ এলাকায় এই ভোটাভুটির আয়োজন করতে পেরেছে দামেস্ক সরকার৷ মঙ্গলবার সকাল ৭টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত ভোট চলার কথা থাকলেও পরে ভোটগ্রহণের সময় পাঁচ ঘণ্টা বাড়িয়ে দেয়া হয়৷ মধ্যরাতে বলা হয়, প্রায় তিন চতুর্থাংশ ভোটার তাঁদের অধিকার প্রয়োগ করেছেন৷

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি সিরিয়ার এ নির্বাচনকে আখ্যায়িত করেছেন ‘অশ্বডিম্ব' হিসাবে৷ একই সঙ্গে আসাদের মিত্র ইরান, রাশিয়া ও লেবাননের হিজবুল্লাহ গেরিলাদের এ যুদ্ধ বন্ধ করার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি৷

আসাদকে উৎখাতের জন্য গত তিন বছর ধরে চলা গৃহযুদ্ধে এ পর্যন্ত এক লাখেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন৷ উদ্বাস্তু হয়েছেন ১০ লাখেরও বেশি মানুষ৷

জেকে/ডিজি (এএফপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়