1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

গৃহযুদ্ধের মুখে ইয়েমেন, দক্ষিণে প্রবল সংঘর্ষ

ইয়েমেন ক্রমশ গৃহযুদ্ধের দিকে এগিয়ে চলেছে৷ একদিকে প্রেসিডেন্ট আলি আব্দুল্লাহ সালেহ ও তাঁর সমর্থকরা, অন্যদিকে বিদ্রোহী জোট৷ সংঘর্ষ বন্ধ রাখতে যে বোঝাপড়া হয়েছিল, তাও ভেঙে পড়েছে৷

Yemen

ইয়েমেন ক্রমশ গৃহযুদ্ধের দিকে এগিয়ে চলেছে

গত সপ্তাহান্তে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে ইয়েমেনে কমপক্ষে ১১৫ জন নিহত হয়েছে৷ পথেঘাটে মেশিন গান, রকেট চালিত গ্রেনেড, মর্টার গোলা নিয়ে লড়াই করে চলেছে সরকার সমর্থক ও বিদ্রোহীরা৷ ইয়েমেনের সাবা সংবাদ সংস্থা মঙ্গলবার জানিয়েছে, এডেন শহরে বিদ্রোহীদের সঙ্গে সংঘর্ষে ২১ জন সৈন্য নিহত হয়েছে৷ বিমানবাহিনী শহরে বোমা ফেলেছে৷ বিদ্রোহ শুরু হওয়ার পর থেকে কমপক্ষে ৩২০ জন নিহত হয়েছে৷ সালেহর ৩৩ বছরের শাসনকালের অবসান চায় উপজাতীয় নেতা, কট্টর ইসলামপন্থী ও বামপন্থীদের এক জোট৷

Ali Abdullah Saleh

গত সপ্তাহান্তে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে ইয়েমেনে কমপক্ষে ১১৫ জন নিহত হয়েছে

সংকটের রাজনৈতিক সমাধানের লক্ষ্যে পারস্য উপসাগরীয় পরিষদ যে চুক্তি প্রস্তুত করেছে, দুই পক্ষই তাতে স্বাক্ষর করা সত্ত্বেও প্রেসিডেন্ট সালেহ নিজে নানা অজুহাত দেখিয়ে বার বার চুক্তি স্বাক্ষর করতে অস্বীকার করছেন৷ প্রবল আন্তর্জাতিক চাপ সত্ত্বেও তিনি ক্ষমতা আঁকড়ে ধরে রয়েছেন৷ তিনি ক্ষমতায় না থাকলে দেশের দক্ষিণে আল-কায়েদা সন্ত্রাসবাদীদের দমন করা যাবে না বলেও সালেহ'র দাবি৷ জিনজিবার শহরে সেনাবাহিনী ও স্থানীয় মানুষ আল-কায়েদা ও মৌলবাদীদের বিরুদ্ধে অভিযান চালাচ্ছে বলেও দাবি করা হচ্ছে৷ ফলে সৌদি আরব ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কিছুটা দোটানার মধ্যে রয়েছে৷ তাদের আশঙ্কা, বর্তমান অরাজকতার সুযোগ নিয়ে উগ্রবাদীরা আরও শক্তিশালী হয়ে উঠছে৷

Jemen Demo Soldaten

প্রবল আন্তর্জাতিক চাপ সত্ত্বেও ক্ষমতা আঁকড়ে ধরে রয়েছেন প্রেসিডেন্ট সালেহ

বিরোধী নেতারা জিনজিবার শহরের পরিস্থিতির জন্য প্রেসিডেন্ট সালেহকে সরাসরি দায়ী করেছেন৷ তাদের মতে, সালেহ ইচ্ছে করেই শহরে আল-কায়েদা সন্ত্রাসবাদীদের প্রবেশের পথ সুগম করে দিচ্ছেন৷ তিনি ক্ষমতা ছাড়লে পরিস্থিতি কোনদিকে চলে যেতে পারে, সেটাই তিনি দেখিয়ে দিতে চান৷ বিরোধীদের দাবি, দায়িত্ব পেলে তারা আরও কড়া হাতে আল-কায়েদাকে দমন করতে পারবে৷

প্রতিবেদন: সঞ্জীব বর্মন

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ