1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

গুপ্তচর থেকে যুবনেত্রী অ্যানা চ্যাপম্যান

রাশিয়ার সাবেক গুপ্তচর অ্যানা চ্যাপম্যান এবার নেমেছেন রাজনীতির মাঠে৷ যোগ দিলেন প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুটিনের দলের যুব শাখায়৷ নতুন বছরের নির্বাচনে তরুণ গোষ্ঠীকে হাতে রাখতে চ্যাপম্যানকে ঠিক সময়েই মাঠে নামালেন পুটিন৷

Russian, social, networking, website, woman, Anna, Chapman, New York, federal court, U.S. attorney, general Russia, Moscow, গুপ্তচর, যুবনেত্রী অ্যানা, চাপম্যান

অ্যানা চ্যাপম্যান

রাশিয়ার গুপ্তচর হিসেবে দীর্ঘদিন ধরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কাজ করছিলেন চ্যাপম্যান এবং আরো নয় গোয়েন্দা৷ একজন খাঁটি অ্যামেরিকান সেজে মার্কিন নীতি নির্ধারক মহলে করছিলেন রাশিয়ার স্বার্থ সিদ্ধি৷ তবে শেষ পর্যন্ত মার্কিন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার নজর এড়াতে পারেননি তাঁরা৷ প্রথমে ধরা পড়েন, এরপর গত জুলাই মাসে বন্দি বিনিময়ের মাধ্যমে রাশিয়ায় ফিরে আসেন ১০ রুশ গোয়েন্দা৷

অন্যান্য সঙ্গীরা লোকচক্ষুর আড়ালে চলে গেলেও সুন্দরী চ্যাপম্যান ঠিকই রয়ে গেছেন তারকা হয়ে৷ গত আগস্টেই এক ম্যাগাজিনে ধরা দিয়েছেন বিশেষ ভঙ্গিমায়৷ মহাকাশে রকেট উৎক্ষেপণেও অংশ নিয়েছেন৷ আবার বিজ্ঞান পার্কে হাজির হয়ে গণমাধ্যমের নজর কেড়েছেন চ্যাপম্যান৷ সাথে একটি রুশ ব্যাংকেও চাকরিতে ঢুকে গেছেন টুপ করে৷ এরপর চলে আসলেন একেবারে রাজপথে৷

রুশ প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুটিনের ইউনাইটেড রাশিয়া পার্টির যুবদল ইয়ং গার্ডে যোগ দিলেন তিনি৷ ২৮ বছর বয়সি রুশ গোয়েন্দা চ্যাপম্যান এসে মিশলেন সাবেক কেজিবি গুপ্তচর পুটিনের কাতারেই৷ তবে তরুণ দলের উপদেষ্টার দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন তিনি৷ ইয়ং গার্ডের সাধারণ পরিষদে জ্বালাময়ী বক্তৃতা দিলেন চ্যাপম্যান৷ বললেন, ‘‘চলুন আমরা আমাদের নিজেদের থেকেই শুরু করি গোটা দেশের পরিবর্তনের কাজ৷ আমরা যদি নতুন দিনে নিজেদেরকে সুখী ও আনন্দিত করতে পারি তবেই আমরা নতুন এবং জরুরি পদক্ষেপের দিকে এগিয়ে যেতে পারবো৷''

২০১১ সালে আসন্ন সংসদ নির্বাচনের প্রাক্কালে বিজয় সুনিশ্চিত করতেই চ্যাপম্যানকে তরুণ দলে নামিয়েছেন পুটিন, বলে বিশ্লেষকরা মনে করছেন৷ শেষ পর্যন্ত কি রাজনীতিকেই পেশা হিসেবে বেছে নিলেন - এমন প্রশ্নের জবাবে চ্যাপম্যান বলেন, ‘‘আমি নিজেকে কিছুটা উন্নত করার চেষ্টা করছি মাত্র, আর সেটা আমার জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণও বটে৷''

প্রতিবেদন: হোসাইন আব্দুল হাই

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

সংশ্লিষ্ট বিষয়