1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

গুগলের নতুন সেবা ‘প্লাস ওয়ান’

গুগল ব্যবহারকারীদের জন্য নতুন খবর নিয়ে আসলো বিশ্ববিখ্যাত এই কোম্পানিটি৷ এই কোম্পানি ছোট্ট পরিসরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের গুগল ব্যবহারকারীদের জন্য বুধবার থেকে চালু করেছে নতুন সেবার বাটন ‘প্লাস ওয়ান’৷

default

এখন থেকে যুক্তরাষ্ট্রের গুগল ব্যবহারকারীরা ‘প্লাস ওয়ান'এ সাইন আপ করতে পারবেন৷ এর মাধ্যমে গুগল ব্যবহারকারীরা অনুসন্ধানে প্রাপ্ত তথ্যের ওয়েব লিংকগুলো বন্ধু কিংবা পরিচিতদের জন্য সুপারিশ আকারে পাঠাতে পারবে৷ যার ফলে গুগলও ফেসবুকের মতো সামাজিক যোগাযোগ রক্ষার গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যমগুলোর সাথে একটি প্রতিদ্বন্দ্বিতায় দাঁড়াতে পারবে৷ তবে এখনই যে কেউ এতে সরাসরি প্রবেশ করতে পারবেন না৷ ধীরে ধীরে অন্যান্য সকল ব্যবহারকারীদের জন্য খুলে দেওয়া হবে এই নতুন সেবার দ্বার৷

ব্যবহারকারীদের এতে অংশগ্রহণ কেমন তা দেখার জন্য এবং গুগলের এই সেবায় মানুষকে আগ্রহী করে তুলতে এখন সীমিত পরিসরে এটি নিয়ে কাজ শুরু করা হয়েছে৷ আর বিশ্বখ্যাত এই কোম্পানিটির এখন এই দিকে বিশেষ নজর দেওয়ার কারণ সম্পর্কে বলা হচ্ছে, ফেসবুক, টুইটার এবং অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর জনপ্রিয়তা৷ তবে কোম্পানিটি জানে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোর সাথে প্রতিযোগিতায় টিকতে হলে গুগলকে যুদ্ধ করেই এগুতে হবে৷

ইন্টারনেটে কোনো তথ্য খোঁজার সবচেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যম গুগল৷ গুগল গত বছর ২৯ বিলিয়ন মার্কিন ডলার আয় করেছে প্রাথমিকভাবে কেবল বিজ্ঞাপন থেকেই৷ তবে ইন্টারনেটে তথ্য খোঁজা এবং বিজ্ঞাপনের দিক থেকে গুগল বেশ এগিয়ে থাকলেও বিজ্ঞাপনের একটি মোটা অঙ্ক চলে যাচ্ছে ফেসবুকের ঘরে৷ গুগল বলছে, এসব কারণেই তারা পরিকল্পনা নিয়েছে তৃতীয় পক্ষ বা থার্ড পার্টির কাছে সহজলভ্য করতে ‘প্লাস ওয়ান' এর এই নতুন সেবা৷ গুগলের প্রধান প্রকৌশলী ম্যাট কাট বলেছেন, প্লাস ওয়ান বোতামটি মূলত ফেসবুকের লাইক বাটনের প্রেক্ষিতে প্রত্যক্ষ জবাব এর চেয়ে বরং গুগলের নিজস্ব সামাজিক সার্চ এর একটি অংশ৷

২০০৯ সালে গুগল সোশ্যাল সার্চ এর সঙ্গে যুক্ত হয়৷ তবে নতুন এই কর্মসূচিতে গুগল ব্যবহারকারীদের গুগলে একটি প্রফাইল পাতা খুলতে হবে৷ এবং প্লাস ওয়ান বোতাম চাপলে গুগলের জিমেইল ইমেইল এবং তাৎক্ষিক বার্তার মতো ব্যবহারকারী তাঁর যোগাযোগ তালিকায় থাকা গুগলের অন্য ব্যবহারকারীদেরও দেখতে পাবেন৷

প্রতিবেদন: জান্নাতুল ফেরদৌস

সম্পাদনা: হোসাইন আব্দুল হাই

সংশ্লিষ্ট বিষয়