1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

গানুশির সরকার ফেলতে নারীমুখ্য ক্যারাভান টিউনিশিয়ায়

টিউনিশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মুহাম্মদ গানুশি’র বিরুদ্ধে বিক্ষোভ ক্রমশ বেড়েই চলেছে৷ ‘ক্যারাভান অফ লিবারেশন’ নামের নতুন এই আন্দোলন রাজধানী থেকে ছড়িয়ে পড়েছে গ্রামেগঞ্জে৷ যোগ দিয়েছে শ্রমিক ইউনিয়নও৷

গ্রামগঞ্জ, ধূমায়িত, সরকার, বিরোধী, বিক্ষোভ, টিউনিশিয়া, ক্যারাভান, নারী, নারীবাহিনী, বিদ্রোহ, বিপ্লব, নির্বাচন, প্রধানমন্ত্রী, রাজনীতি

শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে আসছে জোয়ার

একদিকে গ্রামগঞ্জ থেকে ধূমায়িত হওয়া সরকার বিরোধী বিক্ষোভ আর অন্যদিকে শহরের শ্রমিক ইউনিয়নগুলিরও তাতে যোগদান৷ টিউনিশিয়ায় দেখা যাচ্ছে আধুনিক বিশ্বের এক নতুন ধাঁচের বিপ্লবের উত্থান৷ যে বিপ্লব এখনও পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ, দারুণ ভাবে সংগঠিত এবং অত্যন্ত রাজনৈতিক৷

রাজনৈতিক অস্থিরতার শুরু হয়েছিল পলাতক প্রেসিডেন্ট বেন আলি-র শাসনকালেই৷ ত্রিশের দশকে যেভাবে ফরাসি দেশে শাসকবিরোধী বিপ্লব কেন্দ্রীভূত হয়েছিল, যাতে সমাজের সব শ্রেণী থেকে যোগ দিয়েছিলেন মানুষ, অনেকটা সেই ধাঁচেই বুদ্ধিজীবি থেকে শ্রমিক সকলেই পা মেলাচ্ছেন সরকার বিরোধী বিক্ষোভের মিছিলে৷

রাজধানী তিউনিসেই শুধু নয়, বিপ্লবের উজ্জ্বল শিখা দেখা গেছে সুদূর গ্রামেগঞ্জে৷ সেখানেই গড়ে উঠেছে ‘ক্যারাভান অফ লিবারেশন'৷ দেশকে অপশাসন থকে মুক্ত করে নতুন প্রভাতের সূচনার উদ্যোগ৷ তাতে যোগ দিয়েছে শ্রমিক সংগঠন জেনারেল টিউনিশিয়ান ওয়ার্কার্স ইউনিয়ন বা ইউজিটিটি৷ যে মিছিল বা যে বিক্ষোভের চেহারা দেখছে রাজধানী থেকে দেশ, সর্বত্র, তাতে কোথাও নেই কোনরকম অশান্তির লক্ষণ৷ আইনভঙ্গ করার উদ্যোগ বা ভাঙচুরের তৎপরতাও নেই৷ পক্ষান্তরে নিজেদের দাবিটিকে সোচ্চার করার এক নম্র প্রকাশ৷ মিছিলে পা মেলানো ২৯ বছরের শিক্ষিকা রাবিয়া সিমানের কন্ঠে তাই আত্মবিশ্বাসের জোরালো সুর৷ তিনি সংবাদসংস্থা এএফপি-কে বলেন, ‘এই যে ক্যারাভান দেখছেন, সরকারের পতন না ঘটিয়ে তার যাত্রা থামবে না৷'

Proteste in Tunesien Karawane der Freiheit NO FLASH

সমাজের সব শ্রেণীর মানুষ এই বিদ্রোহে সামিল

ক্যারাভানের আন্দোলনে দেখা যাচ্ছে নারীদের সংখ্যাই বেশি৷ এমিল জোলা বলতেন, ‘যে সমাজে নারীর উত্থান হয় সেই সমাজ সর্বাংশে শুদ্ধ হয়ে ওঠে৷ গড়ে ওঠে সঠিকভাবে৷' একনায়কতন্ত্র, মানবাধিকার লঙ্ঘনের ক্লিন্ন পথ পেরিয়ে টিউনিশিয়ায় নতুন সূর্যোদয়ের চেষ্টায় তাই নারীর উত্থান অবশ্যই লক্ষ্য রাখার বিষয়৷

গানুশি আর তাঁর মন্ত্রিসভার পতন দেখতে চায় ক্যারাভান৷ ছয়মাসের মধ্যে নির্বাচনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন গানুশি৷ নির্বাচনের পরেই রাজনীতি থেকে অবসর গ্রহণের ঘোষণা করেছেন৷ নির্বাচনের দিনক্ষণ অবশ্য শোনা যায়নি৷ তবে বিক্ষোভ বাড়ছে৷ বাড়ছে তার কলেবর৷ গানুশি কতদিন টিঁকতে পারেন সেটাও ভাববার মত বিষয়৷

প্রতিবেদন: সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম