1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

গাদ্দাফি-বিরোধী পুরোধা ব্যক্তি নতুনদিল্লিতে

গাদ্দাফি বিরোধী আন্দোলনের পুরোধা ব্যক্তিদের অন্যতম ভারতে নিযুক্ত লিবিয়ার প্রাক্তন রাষ্ট্রদূত আলি অল ইসাউই৷ আর তাঁকেই বিশ্বের কাছে তাদের বক্তব্য তুলে ধরার দায়িত্ব দিয়েছে লিবিয়ার জনগণের জাতীয় কাউন্সিল৷

default

নতুন দিল্লী

বর্তমানে তিনি ভারত সরকারের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করছেন৷

লিবিয়ায় সরকার বিরোধী আন্দোলনের সমর্থনে যাঁরা প্রথমে বিদ্রোহ ঘোষণা করেছিলেন তাঁদের অন্যতম ভারতে নিযুক্ত লিবিয়ার রাষ্ট্রদূত আলি অল ইসাউই৷ গত মাসে তিনি রাষ্ট্রদূতের পদে ইস্তফা দেন৷ বেনগাজি-ভিত্তিক জনগণের মূল প্রতিনিধিত্বকারী লিবিয়ান জাতীয় কাউন্সিল ইসাইউকে সংকট মোকাবিলার জন্য গঠিত তিন সদস্যের কমিটির সদস্য করে৷ লিবিয়ার স্থানীয় কাউন্সিলের ৩১জন সদস্য নিয়ে গঠিত এই জাতীয় কাউন্সিল৷ গাদ্দাফি গদি না ছাড়লেও বিরোধী সংগঠন হিসেবে কাউন্সিলের বৈধতা বাড়ছে৷

নতুনদিল্লিতে এক অজ্ঞাতস্থান থেকে দেয়া এক বিবৃতিতে ইসাউই বলেন, কাউন্সিল লিবিয়ায় বিদেশি সৈন্য চায়না৷ চায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে পাশে পেতে৷ চায় বিদ্রোহীদের ওপর গাদ্দাফি সরকারের বিমান হামলা রোধে জাতিসংঘ যেন নো-ফ্লাই জোন বলবৎ করে৷ তাঁর অভিযোগ, জনগণের ওপর হামলা চালাতে ভাড়াটে সেনা এনেছে গাদ্দাফি সরকার৷

রক্তপাত বন্ধ করতে ইসাউই বিদেশি সরকার ও কূটনীতিকদের সঙ্গে যোগাযোগ রেখেছে৷ ভারত সরকারের সঙ্গে কথা বলতে চাইছে৷ উল্লেখ্য, ২৬শে ফেব্রুয়ারি জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে লিবিয়া সংক্রান্ত প্রস্তাবের ওপর ভোটের আগে গাদ্দাফি ভারতের সমর্থন চেয়ে প্রধানমন্ত্রী ড. মনমোহন সিং-এর সঙ্গে কথা বলেন৷ আন্দোলন দমনে সরকারের ব্যবস্থাদি সম্পর্কে তাঁকে অবহিত করেন৷ কিন্তু ভারত প্রস্তাবের পক্ষেই ভোট দেয়৷ শুধু তাই নয়, গাদ্দাফির বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক ক্রিমিন্যাল কোর্টে যাবার জাতিসংঘের প্রস্তাবেও সায় দেয় ভারত৷ ঐ প্রসঙ্গে গাদ্দাফি কাশ্মীর পরিস্থিতির সঙ্গে তাঁর দেশের পরিস্থিতির তুলনা টানেন৷

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক অধ্যাপক ইমনকল্যান লাহিড়ি লিবিয়া পরিস্থিতিতে ভারতের অবস্থানের অস্পষ্টতা থাকার যৌক্তিকতা প্রসঙ্গে ডয়চে ভেলেকে বলেন, লিবিয়ায় আটকা পড়া ভারতীয়দের সবাইকে স্বদেশে ফিরিয়ে না আনা অবধি এই অস্পষ্টতা অস্বাভাবিক নয়৷ শুধু তাই নয়, ভারতের একটা বড় বিনিয়োগ আছে লিবিয়াতে৷ সেজন্য কৌশলগত কারণে ভারতের পক্ষে স্পষ্ট করে বলার অসুবিধা আছে৷

প্রতিবেদন: অনিল চট্টোপাধ্যায়, নতুনদিল্লি

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ