1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

গাজা-ইসরায়েল সংঘর্ষে শিশুদের প্রাণহানি নিয়ে উদ্বেগ

জাতিসংঘের মানব কল্যাণ বিষয়ক আন্ডারসেক্রেটারি ভ্যালেরি আমোস গাজায় সহিংসতা বন্ধের আহ্বান জানিয়েছেন৷ গাজায় নিহত সাতশো’র বেশি ফিলিস্তিনির মধ্যে অনেক শিশু রয়েছে বলে জানান তিনি৷

Gaza Offensive Demos 23.07.2014 Kabul

গাজায় ইসরায়েলের হামলার বিরুদ্ধে কাবুলে সাধারণ মানুষের প্রতিবাদ

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন এবং জাতিসংঘের শীর্ষ কূটনীতিকরা ইসরায়েল এবং হামাস জঙ্গিদের মধ্যে যুদ্ধবিরতি কার্যকর করতে তৎপরতা অব্যাহত রেখেছে৷ তবে এই উদ্যোগের মধ্যেই গত রাতে গাজায় ইসরায়েলি বিমান এবং গোলা হামলায় প্রাণ হারিয়েছে আরো ২১ ব্যক্তি৷

এদিকে কাতারে নির্বাসিত হামাস নেতা খালেদ মেশাল গাজার উপর আট বছর ধরে চলা ইসরায়েলি অবরোধ পুরোপুরি প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন৷ আর এই দাবি পূরণ ছাড়া কোনো যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হবে না হামাস, জানান তিনি৷

Gaza Offensive 24.07.2014

১৭ দিন ধরে চলা রক্তপাতে নিহতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৭১৮

ফিলিস্তিনের চিকিৎসকদের বরাতে ফরাসি বার্তাসংস্থা এএফির খবর বলা হয়েছে, গাজায় নিহত ২১ জনের মধ্যে একই পরিবারের ছয় সদস্য রয়েছেন৷ সেখানে ১৭ দিন ধরে চলা রক্তপাতে নিহতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৭১৮৷ অন্যদিকে ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর দেয়া তথ্য অনুযায়ী, বুধবার গাজায় প্রাণ হারিয়েছে সে দেশের তিনি সেনা৷ ফলে সব মিলিয়ে ইসরায়েলি সেনা নিহতের সংখ্যা এখন ৩২৷

এছাড়া গাজা থেকে ছোড়া রকেটে দক্ষিণ ইসরায়েলের একটি গ্রিনহাউসের এক থাই শ্রমিক প্রাণ হারিয়েছে৷

‘ভয়াবহ পরিস্থিতি,' বললেন আমোস

জাতিসংঘের মানব কল্যাণ এবং জরুরী ত্রাণ বিষয়ক আন্ডারসেক্রেটারি ভ্যালেরি আমোস টোকিওতে এক বৈঠকে গাজার পরিস্থিতিকে ‘ভয়ানক, ভয়াবহ' হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন৷ তিনি বলেন, ‘‘গত কয়েকদিনের সংঘাতে বেশি কিছু শিশু প্রাণ হারিয়েছে৷''

জাতিসংঘের প্রকাশিত হিসেবে অনুযায়ী, গাজায় নিহতদের মধ্যে ৭৪ শতাংশই বেসামরিক নাগরিক৷ এদের মধ্যে শিশুর সংখ্যা ১২০ এর বেশি৷

যুদ্ধবিরতির চেষ্টা

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু অবশ্য বেসামরিক প্রাণহানির জন্য হামাসের কৌশলকে দায়ী করেছেন৷ মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি তাঁর সঙ্গে দু'ঘণ্টা বৈঠক করেছেন৷ তবে বৈঠকের পর যুদ্ধবিরতির বিষয়ে কোনো পক্ষ থেকেই তেমন কোন ইঙ্গিত আসেনি৷

জেরুসালেমে কেরি জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি-মুনের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেছেন৷ তারা দু'জনই জানিয়েছেন, হামাস এবং ইসরায়েলের মধ্যে যুদ্ধবিরতির চেষ্টা চলছে৷ মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্যালেস্টাইনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের সঙ্গেও বৈঠকে অংশ নেন৷ অন্যদিকে, বান সম্ভবত সৌদি বাদশাহ আব্দুল্লাহ-র সঙ্গে কথা বলেছেন৷

এদিকে, গাজায় সুড়ঙ্গের একটি নেটওয়ার্ক উন্মুক্ত এবং ধ্বংসের পর ইসরায়েলি সেনারা এখন পরবর্তী অভিযানের প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানিয়েছেন সে দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রী মোশে ইয়ালন৷

তবে তেল আভিভ অভিমুখে বিমান চলাচলের উপর যে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল মার্কিন এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ এফএএ, তা বৃহস্পতিবার প্রত্যাহার করা হয়েছে৷ গাজা থেকে রকেট হামলার আশঙ্কায় বিমান চলাচলের উপর এই সাময়িক নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল মার্কিন কর্তৃপক্ষ৷ অবশ্য তারা নিষেধাজ্ঞা সরিয়ে নিলেও অন্যান্য অনেক আন্তর্জাতিক বিমান সংস্থা এখনও ইসরায়েলকে এড়িয়ে চলছে৷

এআই / এসবি (এএফপি, রয়টার্স, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়