1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

গাজা-ইসরায়েল প্রসঙ্গে রিহানা, সেলেনার ভাবনা

গাজায় ইসরায়েলের হামলার বিরোধিতা এবং ফিলিস্তিনিদের প্রতি সমর্থন ব্যক্ত করতে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে সরব হয়ে উঠেছেন অনেক বিশ্বনন্দিত তারকা৷ তাঁদের বিরুদ্ধপক্ষও বসে নেই৷ ফলে দু-পক্ষের কথার লড়াইয়েও এখন যুদ্ধের আমেজ৷

শুরু করেছিলেন পপস্টার রিহানা৷ কয়েকদিন আগে গাজার সমর্থনে টুইট করেছিলেন তিনি৷ অনেকে রিটুইটও করছিলেন৷ কিন্তু ইসরায়েলের হামলাকে যাঁরা যুক্তিসঙ্গত মনে করেন তাঁদের বিরোধিতার মু্খে নিজের বক্তব্য প্রত্যাহার করে নিতেও দেরি করেননি রিহানা

কিন্তু পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ ব্যান্ড শিল্পী জায়েন মালিক তা করেননি৷ ‘ওয়ান ডিরেকশন' ব্যান্ডের এই জনপ্রিয় শিল্পী রোববার টুইটারে ‘আইফ্রিপ্যালেস্টাইন' লিখে গাজায় ইসরায়েলের হামলার বিরুদ্ধে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করে দেন৷ তুমুল সাড়া পেয়েছেন তাতে৷ দু-দিনে ২ লক্ষ ২০ হাজার রিটুইট আর মোট অনুসারীর সংখ্যা ১ কোটি ৩০ লাখ- এত প্রাপ্তির আশা ২১ বছর বয়সি জায়েন নিজেও করেছিলেন কিনা সন্দেহ৷

Schauspielerin Sängerin Selena Gomez

টিএমজেড ডটকম প্রশ্ন রেখেছিল, ‘‘সেলেনা গোমেজ কি হামাসপন্থি?''

প্রবল বিরোধিতার মুখোমুখিও হয়েছেন চার বছর আগে ‘দ্য এক্স ফ্যাক্টর' অনুষ্ঠানের মাধ্যমে প্রথমে সাড়া জাগানো জায়েন মালিক৷ ইসরায়েলপন্থি তাঁর অনেক ভক্ত হতাশা আর ক্ষোভ প্রকাশ করছেন বেশ আক্রমণাত্মক ভাষায়৷ শাকেদ এরেজ নামের এক তরুণী লিখেছেন, ‘‘যাঁরা ইসরায়েলে থাকেন না তাঁদের এ বিষয়ে জোর গলায় কথা বলার কোনো অধিকার নেই৷ আইফ্রিইসরায়েল৷'' আরেক ভক্ত স্টাভ বেন সুসান জানিয়েছেন, জায়েন ফিলিস্তিনিদের সমর্থন জানানোর নামে ‘হামাসের পাশে দাঁড়ানোয়' তাঁর হৃদয় ভেঙে গেছে৷ প্রিয় তারকাকে গাজার সমর্থনে করা টুইট মুছে ফেলার অনুরোধও জানিয়েছেন তিনি৷ জায়েন মালিক এখনো তা করেননি৷

প্রবল বিরোধিতার মুখে সেলেনা গোমেজও নিজের অবস্থান থেকে সরেননি৷ ফিলিস্তিনিদের প্রতি সমর্থন জানাতে ইন্সটাগ্রাম অ্যাকাউন্টে যুক্তরাষ্ট্রের এই গায়িকা লিখেছেন, ‘‘এটা মানবতার প্রশ্ন- দয়া করে গাজার জন্য প্রার্থনা করুন৷'' এ পর্যন্ত ৬ লাখ ৫৪ হাজার মানুষ ‘লাইক' দিয়ে তাঁর এ আহ্বানে সাড়া দিয়েছেন৷ ক্ষিপ্তও হয়েছেন অনেকে৷ গসিপ ওয়েবসাইট টিএমজেড ডটকম প্রশ্ন রেখেছিল, ‘‘সেলেনা গোমেজ কি হামাসপন্থি?'' জবাবে একজন লিখেছেন, হামাস যে ইসরায়েলকে ধ্বংস করার জন্য রকেট হামলা চালাচ্ছে তা না জেনেই হয়তো সেলেনা গাজার পক্ষাবলম্বন করছেন৷ সেলেনা এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন, ইন্সটাগ্রামে আবার তিনি লিখেছেন, ‘‘আমি কারো পক্ষ অবলম্বন করছি না৷ আমি সবার জন্য শান্তি কামনা করছি৷''

তারপরও রোষানল এড়াতে পারছেন না সেলেনা৷ টিএমজেড ডটকম তাঁর বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানতে চেয়েছিল অভিনেত্রী জোয়ান রিভার্সের কাছে৷ রিভার্স রেগেমেগে বলে ওঠেন, ‘‘নিউ জার্সি যদি নিউ ইয়র্কের দিকে রকেট ছুড়তো, আমরা তো ওদের (নিউ জার্সি) পিষে ফেলতাম৷ ও যে (সেলেনা) ফিলিস্তিনিদের পক্ষে কথা বলছে, জানতে চাইলে ফিলিস্তিন শব্দটা বানান করতে পারবে?''

অর্থাৎ শুধু ভক্তকুল নয়, তারকারাও গাজা আর ইসরায়েল প্রশ্নে দ্বিধাবিভক্ত৷ দু পক্ষই নিজেদের অবস্থানে অনড়৷ ইসরায়েলের সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, গত বছর নাকি ইসরায়েলি সেনা সদস্যদের জন্য ১ লক্ষ ৫০ হাজার ডলার অনুদান দিয়েছেন টেলিভিশন অনুষ্ঠান প্রযোজক সাইমন কাওয়েল৷ জায়েন মালিক যেবার ‘দ্য এক্স ফ্যাক্টর' মাতালেন সেবার সে অনুষ্ঠানের বিচারক ছিলেন কাওয়েল৷ একই অনুষ্ঠানের বিজয়ী এখন গাজার পক্ষে আর বিচারক মদদ দিচ্ছেন ইসরায়েলি হামলায়!

এসিবি/জেডএইচ (এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়