1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

গাজার জন্য ত্রাণবাহী জাহাজ ইসরায়েলিদের নিয়ন্ত্রণে

অবরুদ্ধ গাজাবাসীর জন্য ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে যাত্রা করা আইরিশ জাহাজ ব়্যাচেল কোরির নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী৷ শনিবার দীর্ঘ সময় অবরোধ করে রাখার পর জাহাজটির নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় ইসরায়েল৷

default

জাহাজ ব়্যাচেল কোরি (ফাইল ফটো)

উদ্যোগ নিয়েছিলেন মাহাথির মোহাম্মদ

মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদের নেতৃত্বে গঠিত মালয়েশিয়ার একটি সাহায্যসংস্থা ১২০০ টন ধারণ ক্ষমতার ব়্যাচেল কোরি জাহাজে গাজায় ত্রাণ পাঠানোর উদ্যোগ নেন বেশ কয়েকদিন আগে৷ আর এরই অংশ হিসাবে জাহাজটি চলতে শুরু করে গাজার দিকে৷ গাজাবাসীর জন্য ত্রাণবাহী এই জাহাজটিতে আয়ারল্যান্ড ও মালয়েশিয়ার ১১ জন ত্রাণকর্মী এবং ৮ জন ক্রু ছাড়াও রয়েছেন নোবেল শান্তি বিজয়ী মারিড কোরিগান এবং জাতিসংঘের সাবেক সহকারী মহাসচিব ডেনিস হালিডে৷

আজ সকালে যা ঘটেছিল

শনিবার সকালে গাজা সমুদ্রসীমার কাছে আসার সঙ্গে সঙ্গে সঙ্গে ইসরায়েলি নৌবাহিনী ত্রাণবাহী জাহাজটি ঘিরে ফেলে৷ প্রাথমিকভাবে ইসরায়েলিদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল এই জাহাজে রয়েছে সিমেন্ট৷ আর নির্মানকাজে ব্যবহার করা যায় এমন কোন কিছুই তারা নিয়ে যেতে দেবে না৷ আইরিশ ত্রাণজাহাজটিকে আটকে দেবার পর ইসরায়েলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আভিগডর লিবারমান বলেছেন, ইসরায়েলের সার্বভৌমত্বের জন্য ক্ষতিকর হতে পারে এমন কোন জাহাজকেই তারা তাদের সীমান্তে পৌঁছানোর অনুমতি দেবে না৷

তারপর?

যেমনটা বলছেন তেমনটাই হয়েছে৷ চারদিক থেকে প্রথমে জাহাজটিকে ঘিরে ফেলার পরও যখন সেটিকে থামানো যাচ্ছিলো না, তখনই কমান্ডো বাহিনী উঠে পড়ে জাহাজে৷ সরাসরি সারেঙ এর কাছ থেকে হুইলটি নিয়ে, ইঞ্জিন রুমে ঢুকে, জাহাজের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় তারা৷ তারপর নির্দেশ: চলো ইসরায়েলি বন্দর অ্যাশডড-এ৷ সেখানে নোঙ্গর করার পর, যা সিদ্ধান্ত নেয়ার তা নেয়া হবে৷

NO FLASH Boote im Meer von Gaza

গাজা সমুদ্রসীমায় গাজাবাসীর প্রতিবাদ (ফাইল ফটো)

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী কি বলছেন?

আর বিনা রক্তপাতে জাহাজ দখল এবং তাকে নিয়ে নিজ বন্দরের দিকে ছুটে চলার পর প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, শান্তিপূর্ণভাবেই ইসরায়েলি সেনারা তাদের কাজটি করেছে৷ এর ফলে আগে তুরস্কের জাহাজটির উপর গোলাগুলির যে ঘটনা ঘটেছিল, সেই ঘটনা এবার ঘটেনি৷ কারণ হিসাবে নেতানিয়াহুর কথা হচ্ছে, তুরস্কের ঐ জাহাজে সন্ত্রাসীরা ছিল৷ তারা তাদের কাজে বাধা দিয়েছিল, করেছিল আক্রমণ৷ তিনি সেনাদেরকে অভিবাদনও জানিয়েছেন৷

জাহাজের যাত্রী এবং ত্রাণসামগ্রীর কি হবে?

উভয় বিষয়েই ইসরায়েলি সরকারী কর্মকর্তাদের স্পষ্ট বক্তব্য, ইসরায়েলি আইন অনুয়ায়ী যে সিদ্ধান্ত, তাই হবে৷ গত সোমবার ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে গাজার দিকে যাত্রা করা তুরস্কের একটি জাহাজবহরে হামলা চালিয়ে ইসরায়েলি সেনারা ৯ ত্রাণকর্মীকে হত্যা করার পর আজকের আইরিশ জাহাজ আটকের খবরটি আসার পর তা নিশ্চিতভাবেই সকলের মনে অজানা আশঙ্কার সৃষ্টি করেছে৷

সংশ্লিষ্ট বিষয়