1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

গরুকে খাওয়াচ্ছে, দুধ দোয়াচ্ছে রোবট

প্রযুক্তি এখন আর শুধু মানুষের জন্য নয়, পশুপাখির জন্যও ব্যবহার হচ্ছে৷ জার্মানরা এখন গোয়াল ঘরে ব্যবহার করছেন রোবট৷ গরুকে খাওয়ানো থেকে শুরু করে দুধ দোয়া, এমনকি গোসল সবই করে দিচ্ছে মেশিন৷

গোয়াল ঘরে রোবট ব্যবহারের কথা ভেবেছেন কখনো? হয়ত না, তবে ইউনো নামের এক রোবট জার্মানির এক গোয়াল ঘরে দিব্যি কাজ করছে৷ গরুদের খাবার দেয় সে৷ আল্ট্রাসাউন্ডের ভিত্তিতে নিজের রাস্তা খুঁজে নেয় ইউনো৷ তবে কোথায়, কতবার সে যাবে তা আগেই প্রোগ্রাম করা থাকে৷

জার্মানির এক দুগ্ধ খামারের ম্যানেজার লিসা রুসিশ এই বিষয়ে বলেন, ‘‘আমাদের ইউনো বেশ করিৎকর্মা৷ সে দিনে ১২ বার গরুর জন্য খাবার নিয়ে আসে৷ আগে থেকে করা প্রোগ্রাম অনুযায়ী কাজ করে সে৷

‘‘গরুরা তাকে অনেক ভালোবাসে৷ এভাবে গরুকে প্রয়োজনমত, নিয়ম মেনে খাবার সরবরাহ সম্ভব হয়৷ যা দুধের উৎপাদন বাড়াতে সহায়ক৷''

গরুর দুধ দোয়াতেও ব্যবহার করা হয় রোবট৷ এটি শুরুতে দুধের বোঁটা পরিষ্কার করে৷ এরপর স্বয়ংক্রিয়ভাবে দুধ দোয়ানোর কাজ শুরু হয়৷

এভাবে প্রতিটি গরু থেকে প্রতিদিন ৬০ লিটার দুধ বের করে নেয় রোবট৷ আর গরুর ঘাড়ে একটি ট্রান্সপন্ডার লাগানো আছে৷ ফলে রোবট সেটিকে চিনতে পারে৷

বছর খানেক ধরে এই গোয়াল ঘরটি চালু আছে৷ এটি তৈরিতে স্থানীয় কৃষি উন্নয়ন সংঘের পাঁচ মিলিয়ন ইউরোর মতো খরচ হয়েছে৷ পাঁচশো গরুর জন্য এই বিনিয়োগ সার্থক বটে৷ গোয়ালটির অপারেশনন্স ম্যানেজার ডাগমার পোভলস্কি এবং তাঁর সহকর্মী লিসা রুসিশ প্রতিটি গরুর দিকেই নজর রাখেন৷ এই অটোমেশন গরুর জন্য নেতিবাচক কিছু নয়৷

এমনকি গরুর গোবরও নিয়মিত সরিয়ে নেয় একটি মেশিন৷ পোভলস্কি মনে করেন, গোয়ালঘরে কম মানুষ কাজ করলে ভালো৷ গরুরা তাহলে কম বিরক্ত হয়৷

এখানেই শেষ নয়৷ ছোট্ট একটি রোবট আবার প্রয়োজনমত তাজা বালু ছিটিয়ে দেয়৷ এমনকি গরুর পছন্দের গোসলের ব্যবস্থাও করে এটি৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক