1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

পাঠক ভাবনা

গতকালের বিজয়ী হলেন...

এখন সব কিছু জুড়েই বিশ্বকাপ ফুটবলের খবর৷ ডয়চে ভেলের ওয়েবসাইট এবং ফেসবুকে বিশ্বকাপের নানা তথ্য ছাড়াও থাকছে বিশেষ আয়োজন ‘টপ গেম কুইজ'৷ গতকাল ছিল জার্মানি বনাম অ্যামেরিকার খেলা৷

গতকাল চুয়াডাঙ্গা থেকে বন্ধু আবদুল্লাহ টেলিফোনে আমাদের, ‘‘কিছুক্ষণ পরেই শুরু হবে জার্মানি বনাম অ্যামেরিকার খেলা৷ আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষা করছি, কারণ এর বিশেষ আকর্ষণ অ্যামেরিকান ফুটবল দলের জার্মান কোচ৷''

খেলা হয়েছে, সবাই জেনে গেছি ফলাফল৷ বিজয়ী জার্মানি৷ এখন ‘টপ গেম কুইজের' ফলাফল: অংশগ্রহণকারীদের মধ্য থেকে লটারির মাধ্যমে বিজয়ী নির্ধারণ করা হয়েছে৷ এবারের ভাগ্যবান বিজয়ী হলেন, আরমান চৌধুরী৷

আরমান, আপনাকে আমাদের আন্তরিক অভিনন্দন! আর যাঁরা এই বিশেষ কুইজে অংশগ্রহণ করেছেন তাঁদের সবাইকেও অনেক ধন্যবাদ৷

বিশ্বকাপ ফুটবল নিয়েই আমাদের পাঠক বন্ধু সুভাষের পাঠানো মতামত

বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্যায়ের খেলা প্রায় শেষ৷ এই পর্যায়ের খেলাগুলি নিয়ে বিস্তারিত পর্যালোচনা ডয়চে ভেলের ওয়েবসাইট থেকে প্রত্যাশা মতোই পেয়েছি৷ এবার নকআউট পর্যায়ের প্রতিটি খেলা টিভিতে দেখার পাশাপাশি ওয়েবসাইটের পাতায় বিশ্লেষণমূলক আলোচনা সহ পাবার আশায় থাকবো৷ বিশ্বকাপের মতো বড় আসরে ছোট বড় কেলেঙ্কারি থাকা খুবই স্বাভাবিক৷ সাধারণ ফুটবলপ্রেমীরা প্রতিটি ঘটনা হয়ত কিছুদিনের মধ্যে ভুলে যায়৷ ডয়চে ভেলের খেলার পাতায় ‘বিশ্বকাপে কেলেঙ্কারি: মারাদোনা থেকে সুয়ারেজ' শীর্ষক প্রতিবেদনের মধ্য দিয়ে পুরনো সেই ঘটনাগুলির কথা আমাদের মনে করিয়ে দিল৷

ওয়েবসাইটের প্রথম পাতায় ‘মাত্র কয়েক টাকার জন্য' শীর্ষক ছবিঘরটি ভালো লাগলো৷ শিশুশ্রম ভারতে এক বিরাট সমস্যা৷ সরকারি পরিসংখ্যান হিসাবে ভারতে ১২ মিলিয়নের ওপর শিশু শ্রমিক আছে৷ সংখ্যার হিসাবে মেয়ে শিশু শ্রমিকের ছেলেদের চেয়ে খুব একটা কম নয়৷ বেশির ভাগ শিশু শ্রমিক বস্ত্র বয়ন শিল্প, পথের ধারে রেস্টুরেন্ট এবং হোটেল বা ঘরোয়া কর্মী হিসেবে, যেমন বাজি বা দেশলাই কাঠি কারখানার মতো বিপজ্জনক জায়গায় কাজ করে থাকে৷ বঞ্চিত হয় তাদের সুন্দর শৈশবের আনন্দমুখর দিনগুলি থেকে৷ ২০০৬ সালে প্রবর্তিত একটি আইন অনুযায়ী, ১৪ বছরের কম কোনো শিশুর কাজ করা উচিত নয়৷ কিন্তু ভারতের অনেক আইনের মতো এক্ষেত্রেও সমস্যা আইনের সঠিক বাস্তবায়নের৷

২০০৭ সালে ভারত সরকার শিশু নির্যাতনের উপর ইউনিসেফ ও ‘সেভ দ্য চিলড্রেন' সংস্থার সাথে যৌথভাবে বিশ্বের বৃহত্তম এবং সবচেয়ে অত্যাধুনিক গবেষণার এক ফলাফল প্রকাশিত করেছিল, যার মাধ্যমে শিশু নির্যাতনের বেশ কিছু ভয়াবহ চিত্র উঠে এসেছিল৷ আজও শিশুশ্রম/শিশু নির্যাতনের অনেক ঘটনা হামেশাই দেখতে পাওয়া যায়৷ সামাজিক অবক্ষয়ের মতন এই বিষয়টির ওপর ডয়চে ভেলের দৃষ্টিপাত খুবই প্রশংসনীয়৷ সুভাষ চক্রবর্তী, নতুন দিল্লি, ভারত থেকে পাঠিয়েছেন এই লম্বা ই-মেলটি৷

সংকলন: নুরুননাহার সাত্তার

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন