1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

গণ্ডার বাঁচাতে কৃত্রিম গণ্ডারের শিং তৈরি হচ্ছে!

ক্রুগার ন্যাশনাল পার্কে বন্দুক হাতে বেরোন রেঞ্জাররা৷ ওদিকে সান ফ্রানসিস্কোয় তরুণ গবেষকরা কৃত্রিম গণ্ডারের শিং তৈরিতে ব্যস্ত৷ সকলেরই উদ্দেশ্য চোরাশিকারিদের হাত থেকে গণ্ডারদের বাঁচানো৷

ভিডিও দেখুন 05:21

গণ্ডারের কৃত্রিম শিং দিয়ে গণ্ডার রক্ষা!

দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রুগার ন্যাশনাল পার্ক – বিশ্বের কোথাও আর এতো বেশি গণ্ডার নেই; তাছাড়া বিশ্বের কোথাও আর এতো বেশি গণ্ডার চোরাশিকারিদের হাতে মারা পড়ে না৷ পার্কের তদন্ত গোষ্ঠী একটি ‘হত্যাকাণ্ডের’ অকুস্থলের দিকে চলেছে৷

একটি হেলিকপ্টার আকাশ থেকে একটি গণ্ডারের লাশ দেখতে পেয়েছে ও তার জিপিএস তথ্য পাঠিয়েছে৷ ঊর্ধ্বতন পরিবেশ তদন্তকারী ফ্রিক রসুভ বললেন, ‘‘আমি ক্রুগারে ২৮ বছর ধরে রয়েছি৷ ২০০৫-২০০৬ সাল থেকে এটা বাড়তে থাকে৷ অনেক কিছু গা সওয়া হয়ে যায়, কিন্তু এই জীবগুলোর এমন হত্যার ঘটনায় অভ্যস্ত হওয়া যায় না৷’’

হাতে বন্দুক নিয়ে, পায়ে হেঁটে তারা রওনা হন৷ এদিকে অনেক হিংস্র বন্য জন্তু থাকতে পারে৷ তারপর হঠাৎই তারা দেখলেন, ঘাসের মধ্যে সুবিশাল প্রাণীটা পড়ে আছে৷ ফ্রিক এবং তাঁর সহকর্মীরা – যারা নিরাপত্তার কারণে অজ্ঞাতই থাকতে চান – সকলে মিলে স্থানটি খুঁটিয়ে পরীক্ষা করে দেখলেন, গণ্ডারটিকে ঠিক কীভাবে মারা হয়েছে, তা জানার জন্য৷ এ থেকে চোরাশিকারিদের ধরা সহজ হতে পারে৷

চোরাশিকারের বিরুদ্ধে সংগ্রাম

রসুভ বললেন, ‘‘অপরাধীর সম্পর্কে জানা যায়, এমন সব কিছু খুঁজছি আমরা – তার পায়ের ছাপ থেকে শুরু করে তার ডিএনএ, তার আঙুলের ছাপ, তার বন্দুকের গুলি অথবা তার ফাঁকা কেস – অপরাধীর সঙ্গে যার কোনো সংযোগ থাকতে পারে৷’’

ক্রুগার ন্যাশনাল পার্কে চোরাশিকারিদের বিরুদ্ধে সংগ্রাম প্রায় একটা যুদ্ধের মতো৷ কম্যান্ড সেন্টার থেকে চোরাশিকার প্রতিরোধী সব পদক্ষেপের সমন্বয় করা হয়৷ একটি বিশেষ সফটওয়্যারের মাধ্যমে প্রতিটি ঘটনা কোথায় ঘটেছে, তা ক্রুগারের মানচিত্রে নির্দিষ্ট করা হয়৷

২০১৫ সালে চোরাশিকারিরা দক্ষিণ আফ্রিকায় মোট ১,২০০ গণ্ডার মেরেছে৷ গণ্ডারের শিং নিয়ে বেআইনি ব্যবসায় কোটি কোটি টাকার লেনদেন হয়৷

ড্রিমব়্যাঞ্চ

ক্রুগার থেকে কয়েকশ’ কিলোমিটার দূরে, জোহানেসবার্গের পশ্চিমে বাফেলো ড্রিম ব়্যাঞ্চ৷ এখানেও গণ্ডারের শিং নিয়ে বেআইনি ব্যবসার বিরুদ্ধে সংগ্রাম চলেছে৷

পশুচিকিৎসক মিশেল অটো সাতসকালে উঠেছেন শিকারে যাবেন বলে – তবে শুধু ট্র্যানকুইলাইজার বা ঘুম পাড়ানোর ওষুধের বন্দুক হাতে নিয়ে৷ কেননা এই খামারের গণ্ডারদের এখানেই জন্ম; তাদের শিং নিয়মিতভাবে ছেঁটে দেওয়া হয়৷ পরিকল্পনা হল. গণ্ডারের শিং নিয়ে ব্যবসাকে বৈধ করে গণ্ডারের চোরাশিকার থেকে মুনাফা কমিয়ে দেওয়া৷

মিশেল অটো বলেন, ‘‘শিং-এর যে অংশটা আমরা ছেঁটে ফেলছি, সেটা অনেকটা হাতের নখের মতো৷ এটাও কেরাটিন থেকে তৈরি, যেমন ঘোড়ার খুর৷ গণ্ডারের শিং ছাঁটা আসলে আমাদের চুল কাটার মতো৷ আমরা যে অংশটা কাটছি, সেখানে কোনো রক্ত বইছে না অথবা কোনো স্নায়ু অবশিষ্ট নেই৷ কাজেই এটা সেলুনে যাওয়ার মতো৷’’

এখানে ১,৩০০ জীবের বাস: বিশ্বের বৃহত্তম গণ্ডারের খামার৷ গণ্ডারের শিং নখের মতোই আবার গজায়, কাজেই তা বেশ কয়েকবার কাটা যায়৷ প্রতিটি শিং ওজন করে, তার খুঁটিনাটি লিখে নিয়ে তারপর তালাবন্ধ করা হয় – কেননা কেরাটিন সোনা কিংবা কোকেনের চেয়েও বেশি মূল্যবান৷ এশিয়ায় গণ্ডারের শিং-কে আশ্চর্য ঔষধি বলে গণ্য করা হয়৷

কৃত্রিম শিং

বিশ্বের অপর প্রান্তে সান ফ্রানসিস্কোতে গণ্ডারদের দুই পরম বান্ধব আছেন৷ জর্জ বোনাচি হলেন রসায়নবিদ৷ তাঁর নতুন কোম্পানিতে তিনি পরীক্ষাগারে গণ্ডারের শিং তৈরি করেন৷

কৃত্রিম গণ্ডারের শিং একদিন এইরকম দেখতে হবে - কোম্পানির অন্য মালিক ম্যাথিউ মার্কাস সগর্বে প্রথম প্রোটোটাইপগুলোকে দেখালেন৷ জিন গবেষক ও পেমবিয়েন্টের সিইও ম্যাথিউ মার্কাস বললেন, ‘‘কালোবাজারে গণ্ডারের শিংয়ের দাম আপাতত কিলো প্রতি ত্রিশ হাজার থেকে এক লক্ষ ডলার৷ আমরা চাই কিলো প্রতি সাত হাজার ডলার দাম রাখতে৷ এই দামের ফলে চোরাশিকারি আর তাদের সিন্ডিকেটগুলোর উপর চাপ বাড়বে, কেননা তাদের মুনাফা কমে যাবে, সরকারি কর্মকর্তাদের ঘুসের টাকা যোগাড় করা শক্ত হবে৷’’

গণ্ডারের শিং প্রধানত প্রকৃতিদত্ত কেরাটিন দিয়ে তৈরি৷ জর্জ বোনাচি তা অন্যান্য পদার্থের সঙ্গে মেশান – ফর্মুলাটা তাঁর নিজের সিক্রেট৷

তরল মিক্সচারটি পরে চুল্লিতে শুকিয়ে শেষমেষ গুঁড়ো গণ্ডারের শিং তৈরি করা হয় – বায়োটেক স্টার্ট-আপটি যা বিক্রি করতে চায়৷ ক্রেতারা প্রধানত চীন আর ভিয়েতনাম থেকে আসবেন বলে ধরে নেওয়া হচ্ছে, কেননা সেখানে আজও গণ্ডারের শিংয়ের চাহিদা অসীম৷

শুধু গণ্ডারের শিং নয়

রসায়নবিদ ও ‘পেমবিয়েন্ট’-এর যুগ্ম-প্রতিষ্ঠাতা জর্জ বোনাচি বলেন, ‘‘শার্ক ফিন বা হাঙরের পাখনা, যা চীনে খুবই জনপ্রিয়; প্যাঙ্গোলিনের আঁশ, যা কিনা কেরাটিন দিয়ে তৈরি; বাঘের হাড়, যা কিনা চীনে ওষুধ হিসেবে ব্যবহার করা হয়; হাতির দাঁত, যার পশ্চিমে বহুযুগ ধরে চল – আমরা এ সব কিছুই বিবেচনা করব৷ প্রথাগতভাবে যেখানেই জীবজন্তু থেকে কোনো পণ্য উৎপাদন করা হয়, আমরা সেই পণ্য সৃষ্টির প্রক্রিয়া থেকে জীবজন্তুদের বাদ দেওয়া চেষ্টা করব৷’’

গণ্ডারদের চোরাশিকার রোধের নানা পন্থা নিয়োগ করা হচ্ছে৷ ক্রুগার ন্যাশনাল পার্কের অনেক গণ্ডারের তাতে কোনো লাভ হবে না৷ ফ্রিক রুসোভ আর তাঁর দলকে এ ধরনের নানা হত্যাকাণ্ডের অকুস্থলে যেতে হবে৷ এক্ষেত্রে ব্যাপারটা আরো মর্মান্তিক কেননা নিহত স্ত্রী গণ্ডারটির পেটে একটি বাচ্চা ছিল৷

ক্র্যোগার/হোফমান/এসি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও