1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

গণভোটে নতুন দেশ গড়ার পক্ষে সাড়া বেশি

দক্ষিণ সুদানে ঐতিহাসিক গণভোট শেষ হয়েছে শনিবার৷ গণভোটের শান্তিপূর্ণ সমাপ্তিকে স্বাগত জানিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন৷ এদিকে ভোট গননার শুরুর দিকেই যা খবর, তাতে নতুন দেশ গড়ার পক্ষেই অবস্থান দক্ষিণ সুদানিদের৷

default

ভোটকেন্দ্রে দক্ষিণ সুদানের নারীরা (ফাইল ফটো)

নতুন দেশের দিকেই মত

দক্ষিণ সুদানিরা একটি নতুন দেশ গড়ার পক্ষেই ভোট দিয়েছে বেশি৷ গণভোটের প্রাথমিক যে ফলাফল পাওয়া গেছে, তাতে স্বাধীনতার এই চিত্রই ফুটে উঠেছে৷ রাজধানী জুবার ভোটকেন্দ্রগুলোতে ইতিমধ্যেই ফলাফল ঝোলানো শুরু হয়েছে৷ তবে, আনুষ্ঠানিকভাবে গণভোটের ফলাফল পেতে আগামী মাস পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হতে পারে৷ এদিকে, দক্ষিণ সুদানের প্রেসিডেন্ট সালভা কির রবিবার উত্তরের বাসিন্দাদের ক্ষমা করে দিতে দক্ষিণীদের প্রতি আহ্বান জানান৷ তিনি বলেন , সংগ্রামে প্রাণ দেওয়া আমাদের মৃত ভাই ও বোনেদের প্রতি সৃষ্টিকর্তা চিরশান্তি বর্ষণ করুক৷

Unabhängigkeitsreferendum Südsudan Flash-Galerie

আলাদা হয়ে নতুন দেশ গড়ার পক্ষেই অবস্থান দক্ষিণ সুদানিদের

আন্তর্জাতিক প্রতিক্রিয়া

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জিমি কার্টার বর্তমানে সুদানে আছেন ভোট পর্যবেক্ষক হিসেবে৷ রবিবার তিনি বলেন, আমার মনে হয় গণভোটে ৯০ শতাংশ দক্ষিণ সুদানি অংশ নিয়েছে৷ এবং সংখ্যাগরিষ্ঠ ভোটারই দেশভাগের পক্ষে৷ ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক প্রধান ক্যাথরিন অ্যাশটন গণভোটের সফল সমাপ্তিকে স্বাগত জানিয়েছেন৷ তিনি সুদানে দীর্ঘমেয়াদী শান্তি বজায় রাখতে ব্রাসেলসের সহায়তার প্রতিশ্রুতি পুর্নব্যক্ত করেন৷ জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি-মুনও গণভোটকে স্বাগত জানিয়ে বলেছেন, ভোটাররা ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছে৷ এছাড়া উত্তর সুদান মানে খার্তুম সরকারও গণভোটের যেকোন ফলাফলকে মেনে নেওয়ার অঙ্গীকার করেছে৷

দ্বন্দ্বের অবসান হবে কি?

মুসলিম অধ্যুষিত উত্তর সুদানের সঙ্গে খ্রিষ্টান এবং অন্যান্য ধর্ম অধ্যুষিত দক্ষিণের দ্বন্দ্ব দীর্ঘদিনের৷ ১৯৮৩ থেকে ২০০৫ সাল পর্যন্ত চলা দু'পক্ষের গৃহযুদ্ধে প্রাণ হারিয়েছে কয়েকলাখ সুদানি৷ এই দুই অংশের মধ্যে শান্তি চুক্তি স্বাক্ষর হয় ২০০৫ সালে৷ সেই চুক্তির আওতায় গণভোট অনুষ্ঠিত হল৷ পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন, সুদানের দুই অংশ আলাদা হয়ে গেলে সংশ্লিষ্ট অঞ্চলে শান্তি ফিরে আসবে৷ কেউ কেউ অবশ্য এই মতের বিরোধী৷ তাদের কথায়, সুদানের সঙ্কট ভবিষ্যতে দুটি দেশের মধ্যে যুদ্ধে রূপ নিতে পারে৷

প্রতিবেদন: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: সুপ্রিয় বন্দোপাধ্যায়

নির্বাচিত প্রতিবেদন