1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

খালেদা জিয়ার ব্যাংক হিসাব এখনো জব্দ

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের পরও খালেদা জিয়ার ব্যাংক হিসাব থেকে এখনো বাড়িভাড়াসহ প্রয়োজনীয় খরচের টাকা তোলা যাচ্ছেনা বলে ডয়চে ভেলেকে জানিয়েছেন খালেদা জিয়ার আয়কর উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট আহমেদ আযম খান৷

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার ৮টি ব্যাংক হিসাবই গত ৭ বছর ধরে জব্দ রয়েছে৷ তবে এ সব হিসাব থেকে তিনি মাসে সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা তুলতে পারেন৷ আর গত ৩ বছর ধরে তিনি ভাড়া বাড়িতে থাকেন৷ প্রতিমাসে ভাড়া ২ লাখ টাকা৷ এ কারণে গত ৩ বছর ধরে তিনি বাড়িভাড়া দিতে পারছেন না৷ এই খবর সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ হওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকে বিষয়টি খতিয়ে দেখে সে পরিমাণ অর্থ ছাড় দেয়ার নির্দেশ দেন৷ একই সঙ্গে বিষয়টি সামনে এনে খালেদা জিয়া দেশের মানুষের সহানুভূতি নেয়ার চেষ্টা এবং রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র করছেন কি না, তাও খতিয়ে দেখতে বলা হয়৷

খালেদা জিয়ার আয়কর উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট আহমেদ আযম খান ডয়চে ভেলেকে জানান, মন্ত্রিসভার বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীর এই নির্দেশের কথা জানার পর মঙ্গলবার জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন তিনি৷ রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান দেশে নেই৷ এরপর রাজস্ব বোর্ডের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সেলের মহাপরিচালকের সঙ্গে যোগাযোগ করেন তিনি৷ আহমেদ আজম খান বলেন, মহাপরিচালক তাঁকে জানিয়েছেন যে খালেদা জিয়ার হিসাব থেকে প্রয়োজনীয় অর্থ উত্তোলনের ব্যাপারে নির্দেশনার বিষয়টি তারাও সংবাদ মাধ্যমে জানতে পেরেছেন৷ এখনো লিখিত কোনো নির্দেশ পাননি৷

এদিকে বিএনপি-র স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘‘২০০৭ সালে অবৈধ ও অসাংবিধানিক সরকার মিথ্যা মামলায় খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার করে তার ব্যাংক হিসাব জব্দ করে৷ তখন বর্তমান প্রধানমন্ত্রীকেও গ্রেফতার করে তার ব্যাংক হিসাব জব্দ করা হয়েছিল৷ ২০০৮ সালের নির্বাচনের আগেই তা খুলে দেয়া হয়৷ কিন্তু জাতীয় রাজস্ববোর্ড খালেদা জিয়ার কোনো ব্যাংক হিসাব এখনো খুলে দেয়নি৷'' তিনি অবিলম্বে খালেদা জিয়ার ব্যাংক হিসাব খুলে দেয়ার দাবি জানান৷

বেগম খালেদা জিয়া ক্যান্টনমেন্টের বাড়ি হারানোর পর ২০১০ সালের ডিসেম্বর থেকে গুলশানের ৭৯ নম্বর রোডের ১ নম্বর বাড়িটি বসবাসের প্রতি মাসে দুই লাখ টাকায় ভাড়া নেন৷ আহমেদ আজম খান জানান, ২০১০ সালের ডিসেম্বর মাস থেকে বেগম খালেদা জিয়ার বাড়িভাড়া ও সাংসারিক খরচসহ মোট ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা নিয়মিত ভিত্তিতে ব্যাংক থেকে উত্তোলন প্রয়োজন৷ কিন্তু তিনি প্রতিমাসে ব্যাংক থেকে তুলতে পারেন মাত্র ৫০ হাজার টাকা৷ তাই তার ৩ বছরের বাড়িভাড়া বাকি আছে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন