1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

খরগোশের হাত ধরে চীনা নতুন বছর শুরু

চীনে শুরু হল নতুন বছর৷ প্রতি বছর বিশেষ একটি প্রাণীকে গুরুত্ব দেওয়া হয়৷ এ বছর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সেই প্রাণীটি হল খরগোশ৷ ২০১১ সালকে বলা হচ্ছে খরগোশের বছর৷ তার মানে কি এই বছর কেউ জন্মালে সে সবসময় খরগোশের মত ভীতু হবে?

default

চীনে ২০১১ সাল খরগোশের বছর

চীনা ঐতিহ্য অনুযায়ী প্রতি বছর ১২টি প্রাণীর কোনো একটিকে বেছে নেওয়া হয়৷ খরগোশ হচ্ছে এর মধ্যে চতুর্থ প্রাণী৷ তবে এই খরগোশের রয়েছে বেশ কিছু বিশেষত্ব৷ যেমন আজ ৩রা ফেব্রুয়ারি থেকে ২২ জানুয়ারি ২০১২ সালের মধ্যে কেউ যদি জন্মায়, তার রাশি শুধু খরগোশ হবে না, হবে ধাতব খরগোশ অর্থাৎ মেটাল ব়্যাবিট৷

China Neujahrsfest Flash-Galerie

চীনে এই বছর নববর্ষ উদযাপন

বেইজিং-এ আনন্দ উৎসব এবং বিভিন্ন ধরণের আতশবাজির মধ্যে দিয়ে স্বগত জানানো হয় ২০১১ সালকে, স্বাগত জানানো হয় ‘দ্য ইয়ার অফ দ্য ব়্যাবিটকে'৷ এই উৎসবে শুধু বাজির জন্যই খরচ করা হয়েছে প্রায় কুড়ি হাজার ইউয়ান৷

এবার নজর দেয়া যাক খরগোশের দিকে৷ চীনা ক্যালেন্ডারে খরগোশের সঙ্গে পাঁচটি মৌলিক বস্তু জড়িয়ে রয়েছে – পানি, কাঠ, আগুন, মাটি এবং ধাতু৷

রাশি অনুযায়ী বলা হচ্ছে, খুব শান্তভাবে কাটবে এই ২০১১ সালটি৷ কারণ গত বছরটা ছিল টান টান উত্তেজনায় ভরা৷ তাই এ বছর খুব শান্ত থাকতে হবে, অতীতের ভুলগুলোকে শুধরে নিতে হবে৷ বলা প্রয়োজন, গত বছরের নোবেল শান্তি পুরস্কার পেয়েছিলেন চীনের লিউ জিয়াবাও৷ তিনি পুরস্কার গ্রহণ করতে আসতে পারেননি অসলোয়৷ সমালোচনার মুখে পড়েছিল চীনা সরকার৷ এরপরই এসেছিল দুই কোরিয়ার মধ্যে উত্তেজনা৷ চীন নিঃশব্দে সমর্থন করেছিল উত্তর কোরিয়াকে৷

China Neujahrsfest Flash-Galerie

বিভিন্ন সাজে নববর্ষ উদযাপন

তাই এ বছরও কূটনীতি, আন্তর্জাতিক সম্পর্ককে প্রাধান্য দেওয়া হবে৷ তবে খরগোশ যেহেতু খুব আরামপ্রিয় প্রাণী তাই অনেকেই ঝুঁকে পড়বেন আলসেমির দিকে৷ আর্থিক দিক থেকে সবাই স্বাচ্ছন্দ্যে থাকবে৷ বিলাসিতায় সময় কাটানো যাবে৷ খুব সহজেই অন্যের মুখে হাসি ফোটানো যাবে৷

যে বা যারা এই বছরে জন্মাবে বলা হচ্ছে, তারা দীর্ঘায়ু লাভ করবে৷ চন্দ্রের খুব তীব্র প্রভাব থাকবে তাদের উপর এবং তা অবশ্যই শুভ লক্ষণ৷ আর কী? খরগোশ কীসের প্রতীক? উদারতা, শান্ত-প্রকৃতি, সদ্ব্যবহার, বিচক্ষণতা, সংবেদশীলতা এবং সৌন্দর্য্যের৷ ‘‘আমি খরগোশ পছন্দ করি না'' – এই কথা এখন পর্যন্ত কেউ বলেছে কী?

ঘুরে ফিরে এই খরগোশ গুরুত্ব পাবে আবারো ২০২৩ , ২০৩৫ এবং ২০৪৭ সালে৷

প্রতিবেদন: মারিনা জোয়ারদার

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়