1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ক্ষমতায় মুবারক, শুক্রবার তুমুল গণবিক্ষোভ

পদত্যাগ নয়, সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকতে চান মিশরের প্রেসিডেন্ট হোসনি মুবারক৷ বৃহস্পতিবার গভীর রাতে জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণে নিজের এই অবস্থান জানিয়েছেন তিনি৷ অথচ নানা মহলে শোনা যাচ্ছিল, তিনি সম্ভবত পদত্যাগ করবেন৷

default

বিক্ষোভকারীদের দাবি এটাই

মুবারকের ভাষণ

মিশরের প্রেসিডেন্ট হোসনি মুবারক নির্বাচনের আগে ক্ষমতা ছাড়ার সব সম্ভাবনা নাকচ করে দিয়েছেন৷ টেলিভিশন ভাষণে মুবারক জানান, সেপ্টেম্বরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পর নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্টের কাছে তিনি ক্ষমতা হস্তান্তর করবেন৷ তার আগে পর্যন্ত প্রেসিডেন্ট হিসেবেই দায়িত্ব পালন করবেন প্রায় ৩০ বছর ধরে ক্ষমতায় থাকা এই বর্ষীয়ান নেতা৷ অবশ্য, মুবারক তাঁর কিছু ক্ষমতা ভাইস-প্রেসিডেন্ট ওমর সুলাইমানকে হস্তান্তরের কথা বলেছেন৷ কিন্তু এই বিষয়ে বিস্তারিত কিছু তিনি জানাননি৷ এছাড়া সরকার বিরোধী আন্দোলনের সময় সংঘর্ষে নিহতদের পরিবারের প্রতি দুঃখ প্রকাশ করেন মুবারক৷ তিনি জানান, এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের শাস্তি দেওয়া হবে৷

মুবারক দৃঢ়ভাবে জানান, বিদেশিদের চাপিয়ে দেওয়া কোন শর্ত মানবেন না তিনি৷ জরুরি আইন প্রত্যাহারে মার্কিন আহ্বান প্রসঙ্গে তিনি বলেন, নিয়মনীতি অনুযায়ী উপযুক্ত সময়ে জরুরী আইন তুলে নেওয়া হবে৷

ওমর সুলাইমানের ভাষণ

মুবারকের ভাষণের পরই টেলিভিশনে হাজির হন ওমর সুলাইমান৷ তিনি বলেন, প্রেসিডেন্ট মুবারক আমাকে দেশের নিরাপত্তাও স্থিতিশীলতা বজায় রাখার এবং সবক্ষেত্রে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে আনার দায়িত্ব দিয়েছেন৷ সরকারবিরোধী বিক্ষোভরতদের উদ্দেশ্যে সুলাইমান বলেন, মিশরের যুবারা ঘরে ফেরে যাও, কাজে ফিরে যাও, জাতির উন্নয়নে এবং গঠনে তোমাদের প্রয়োজন৷

Hosni Mubarak Ägypten Flash-Galerie

সেপ্টেম্বরের আগে ক্ষমতা ছাড়ছেন না মুবারক (ফাইল ফটো)

শুক্রবার গণবিক্ষোভ

মুবারক পদত্যাগ করছেন না শুনে আবারো উত্তেজিত হয়ে উঠেছে বিক্ষোভকারীরা৷ সরকারবিরোধী আন্দোলনে অংশে নেওয়া মোস্তফা নাগর বিবিসিকে বলেন, রাস্তায় অবস্থানরতরা মুবারকের উপর যারপরনাই বিরক্ত৷ দেশত্যাগের মাধ্যমে মুবারক এই সংকট নিরসনে সহায়তা করতে পারেন৷ কিন্তু তিনি ক্ষমতা থাকার অর্থ হচ্ছে মিশরীয়দের আরো বিশৃঙ্খলায় ফেলা৷ শুক্রবার তুমুল গণবিক্ষোভের প্রস্তুতি নিচ্ছে আন্দোলনকারীরা৷ সেদেশের বিরোধী নেতা মোহাম্মদ এলবারাদেই শঙ্কা প্রকাশ করে বলেছেন, মিশরে বিস্ফোরণ ঘটবে, দেশরক্ষায় এখনই সেনাবাহিনীর হস্তক্ষেপ প্রয়োজন৷

মুবারকের ভাষণের প্রতিক্রিয়া

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেছেন, মিশরের সরকার এখনো বিশ্বাসযোগ্যভাবে গণতন্ত্রের পথে অগ্রসর হচ্ছে না৷ ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রধান কূটনীতিক ক্যাথরিন অ্যাশটন বলেছেন, এখনই পরিবর্তনের সময়৷ প্রেসিডেন্ট মুবারক এখনো দ্রুত এবং গভীর সংস্কারের পথ খুলে দেননি৷ মার্কিন সেনেটর জন ম্যাকেইন জানিয়েছেন, মুবারক অত্যন্ত শোচনীয় এবং অস্বস্তিকর অবস্থার মাঝেই ক্ষমতায় থাকছেন৷ জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী গিডো ভেস্টারভেলে বলেছেন, যা আশা করা হয়েছিল সেদিকে অগ্রসর হননি মুবারক৷

প্রতিবেদন: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়