1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

ক্রিকেট বোর্ডের নতুন সিদ্ধান্তে পন্টিংএর দ্বিমত

ওয়ানডে ক্রিকেটের দীর্ঘদিনের ফরম্যাট ভাঙতে যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া৷ তবে বিশ্বকাপের আগে এই মুহূর্তে ক্রিকেট বোর্ডের নতুন সিদ্ধান্ত নিয়ে নিজের দ্বিমত জানিয়েছেন অসি দলের অধিনায়ক রিকি পন্টিং৷

Australia's Ricky Ponting

রিকি পন্টিং

গত শতাব্দীর সত্তরের দশক থেকে যখন আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ক্রিকেট যুগের সূচনা হয় তখন ম্যাচ ছিল ৬০ ওভার করে৷ পরবর্তীতে সেটি নেমে আসে ৫০ ওভারের ম্যাচে, এবং এখন পর্যন্ত তাই চলে আসছে৷ তবে টোয়েন্টি টোয়েন্টি ক্রিকেটের জোয়ারের কারণে সম্প্রতি ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া সিদ্ধান্ত নিয়েছে ঘরোয়া ক্রিকেটে ওয়ানডে ম্যাচ ৪৫ ওভারে নামিয়ে আনার৷ তবে সেটিও হবে দুই ইনিংসের৷ অর্থাৎ প্রথমে ২০ ওভার এবং পরে ২৫ ওভারের ইনিংস দিয়ে খেলা হবে ওয়ানডে ম্যাচ৷ টোয়েন্টি টোয়েন্টি ক্রিকেটের আমেজ এভাবে ওয়ানডেতেও নিয়ে আসতে নতুন এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট বোর্ড৷

তবে ক্রিকেট বোর্ডের এই সিদ্ধান্ত কতটা সময়োপযোগী তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে অসি দলের অধিনায়ক রিকি পন্টিংএর৷ এবং সেটা তিনি খোলাখুলিভাবে জানিয়েও দিয়েছেন৷ এক প্রতিক্রিয়ায় পন্টিং জানান যে বিশ্বকাপ শুরু হতে আর বেশিদিন বাকি নেই৷ তাই এই মুহূর্তে যত বেশি সম্ভব ৫০ ওভারের ম্যাচ খেলা দরকার৷ নতুন এই সিদ্ধান্তের কারণে হয়তো জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের খুব একটা সমস্যা হবে না, কারণ তাঁরা আগামী কয়েক মাসের মধ্যে আরও অন্তত এক ডজন আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ম্যাচ খেলবেন৷ তবে ঘরোয়া ক্রিকেটে নতুন ওয়ানডে ফরম্যাট চালু হলে যেসব তরুণ ক্রিকেটার জাতীয় দলের আসার অপেক্ষায় রয়েছে তাঁদের সমস্যা হবে৷

পন্টিং বলেন, এসব তরুণ ক্রিকেটার নতুন ফরম্যাটের কারণে বিশ্বকাপের আগ পর্যন্ত আর ৫০ ওভারের ওয়ানডে খেলার সুযোগ পাবে না৷ বিশেষ করে তরুণ স্পিনারদের জন্য এবারের গ্রীষ্মের মৌসুমটা বেশ কঠিন হবে৷ উল্লেখ্য, আগামী ফেব্রুয়ারি মাসেই শুরু হতে যাচ্ছে বিশ্বকাপ৷ এবারের আয়োজক বাংলাদেশ, ভারত ও শ্রীলংকা৷

ক্রিকেট বোর্ডের নতুন ফরম্যাটের বিরোধীতা করছেন না পন্টিং, কারণ ক্রিকেটাররা এতে মানিয়ে নিতে পারবে বলে তাঁর আশা৷ তবে এই ধরণের সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে ক্রিকেটারদের মতামতও তুলে ধরা উচিত বলে মনে করেন ওয়ানডে ও টেস্ট ক্রিকেটের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান রিকি পন্টিং৷

প্রতিবেদন: রিয়াজুল ইসলাম

সম্পাদনা: জাহিদুল হক

নির্বাচিত প্রতিবেদন