1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ক্রিকেট থেকে আট বছরের জন্য নিষিদ্ধ আশরাফুল

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ক্রিকেট লীগের (বিপিএল) দ্বিতীয় আসরে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক মোহাম্মদ আশরাফুলকে আট বছরের জন্য সব ধরনের ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে৷

নিষেধাজ্ঞার পাশাপাশি আশরাফুলকে ১০ লাখ টাকা জরিমানাও করা হয়েছে৷ বিচারপতি খাদেমুল ইসলামের নেতৃত্বে গঠিত তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনাল বুধবার শাস্তি ঘোষণা করে৷ অবশ্য আশরাফুল ছাড়াও আরো তিনজনকে শাস্তি দিয়েছে ট্রাইব্যুনাল৷ তাঁরা হলের ঢাকা গ্লাডিয়েটরস-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক শিহাব চৌধুরী, নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটার লু ভিনসেন্ট ও শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটার কৌশল্যা লোকুয়ারাচ্চি৷ এঁদের মধ্যে শিহাব চৌধুরীকে ১০ বছরের নিষেধাজ্ঞা এবং ২০ লাখ টাকা জরিমানা আর লু ভিনসেন্টকে ৩ বছর ও কৌশল্যা লোকুয়ারাচ্চিকে ১৮ মাসের নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে৷

Cricket Bangladesh gegen Indien

এক বছর ধরে সাময়িকভাবে নিষিদ্ধ ছিলেন তিনি

এর আগে চলতি বছরের ২৬শে ফেব্রুয়ারি সংক্ষিপ্ত রায় ঘোষণা করেছিল ট্রাইব্যুনাল৷ সংক্ষিপ্ত রায়ে অভিযোগ ওঠা নয়জনের মধ্যে ছয়জনকে নির্দোষ ঘোষণা করা হয় তখন৷ ঐ সময় বাংলাদেশি ক্রিকেটার মোহাম্মদ আশরাফুল, শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটার কৌশল্যা এবং ঢাকা গ্লাডিয়েটরসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শিহাব চৌধুরীকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়৷ আর নয়জনের মধ্যে না থাকলেও তদন্তে দোষী সাব্যস্ত হন নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটার লু ভিনসেন্ট৷ আশরাফুলকে বিসিবির আইনের ২.১.১ ধারা ভঙ্গের দায়ে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে৷ শিহাব চৌধুরীর বিরুদ্ধেও একই ধারা ভঙ্গের অভিযোগ৷ গত ৮ই জুন বিপিএল-এ ম্যাচ পাতানোর তদন্তের বিস্তারিত রায় দেয় ট্রাইব্যুনাল৷ আর এবার শাস্তি ঘোষণা করা হলো৷

চলতি বছরের ১৯শে জানুয়ারি থেকে বিপিএল-এর দ্বিতীয় আসরে ম্যাচ ফিক্সিংয়ে অভিযুক্তদের দ্বিতীয় দফায় শুনানি শুরু হয়৷ বিচারপতি খাদেমুল ইসলামের নেতৃত্বে পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ বিচারিক কার্যক্রমে অংশ নেয়৷ অভিযুক্তদের মধ্যে মোহাম্মদ আশরাফুলই একমাত্র ম্যাচ পাতানোর স্বীকারোক্তি দিয়েছিলেন৷

ট্রাইব্যুনালের ঘোষিত শাস্তির বিরুদ্ধে ২১ দিনের মধ্যে বিসিবি-র দশ সদস্যের ডিসিপ্লিনারি কমিটিতে আপিল করতে পারবেন বাদি-বিবাদি উভয় পক্ষ৷

Bangladesch Mohammad Ashraful Cricket

‘‘এই শাস্তি বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য ইতিবাচক৷''

রায় ঘোষণার সময় ট্রাইব্যুনালে উপস্থিত ছিলেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) আইন বিভাগের প্রধান ইয়ান হিগিন্স, প্রধান আইন কর্মকর্তা শেলি ক্লার্কসহ আইসিসি-র অন্যান্য কর্মকর্তারা৷ রায় ঘেষণা করে বিচারপতি খাদেমুল ইসলাম জানান, ‘‘অনেক আলোচনা এবং সমালোচনা করে আইসিসি ও বিসিবি-র কোড অনুযায়ী রায় দেয়া হয়েছে, যদিও দুটিরই কোড প্রায় একই রকম৷''

এদিকে শাস্তি ঘোষণার পর বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক রাকিবুল হাসান ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘এই শাস্তি বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য ইতিবাচক৷ এর ফলে ভবিষ্যতে কেউ আর ম্যাচ ফিক্সিং বা পাতানো খেলার সাহস পাবেন না৷ এতে বাংলাদেশের ক্রিকেটে পেশাদারিত্ব আরো বাড়বে৷''

তিনি বলেন, ‘‘শুরুতেই এই ঘটনা ধরা পড়া এবং শাস্তি হওয়ায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বিপর্যয়ের হাত থেকে রক্ষা পেল৷'' রাকিবুল হাসানের কথায়, ‘‘বিশ্বের অনেক দেশের ক্রিকেট খেরোয়াড়রাই এই ম্যাচ ফিক্সিংয়ের সঙ্গে জড়িত৷ বিপিএল-এ শুধু আশরাফুল নয়, দু'জন বিদেশি ক্রিকেটারসহ মোট তিনজন শাস্তি পেয়েছেন৷ অনেক দেশ ঘটনা ধামা চাপা দেয়৷ কিন্তু বাংলাদেশ স্বচ্ছতার সঙ্গে বিচার করে শাস্তি দিয়েছে৷'' তিনিও মনে করেন,‘‘এতে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি আরো উজ্জ্বল হবে৷''

সবচেয়ে কম বয়সে সেঞ্চুরির বিশ্বরেকর্ড গড়া আশরাফুলের বিরুদ্ধে প্রাথমিকভাবে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ার পর, গত এক বছর ধরে সাময়িকভাবে নিষিদ্ধ ছিলেন তিনি৷ তাঁর শাস্তির মেয়াদে ঐ এক বছরও ধরা হবে৷ ফলে আরও সাত বছর ক্রিকেট থেকে নির্বাসিত থাকতে হবে বাংলাদেশ ক্রিকট দলের সাবেক এই অধিনায়ককে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন