ক্রসোঁ কিনতে গুণতে হলো চার লাখ মার্কিন ডলার | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 05.01.2011
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

ক্রসোঁ কিনতে গুণতে হলো চার লাখ মার্কিন ডলার

ফরাসি সুস্বাদু মচমচে একটা ক্রসোঁ খেতে গিয়ে গুণতে হলো চার লাখ মার্কিন ডলার৷ যা প্রায় এক কোটি বিশ লাখ তাইওয়ানি ডলারের সমান৷ অথচ সেই ক্রসোঁ রুটি খাওয়া আর ভাগ্যে জোটেনি এক বিশাল প্রতিষ্ঠানের নির্বাহী এই ব্যক্তির৷

Croissant, Berlin, তাইওয়ান, ক্রসোঁ, ডলার, ফরাসি, অ্যাপল ডেইলি, পত্রিকা, খাবার, সুস্বাদু, সমাজ, চিউ, Chiu, Taiwan, French, Food, Tasty, Lecker, Social, Scam, Dollar, US

না খেলে টের পাওয়া যায় না কতোটা মজার হয় ক্রসোঁ

তাইওয়ানের ট্যাবলয়েড পত্রিকা ‘অ্যাপল ডেইলি' তাই বেশ মজা করেই শিরোনাম করেছে ‘‘ফরাসি এই প্রায় অর্ধ চন্দ্রাকার রুটি এতোটাই সুস্বাদু যে মানুষকে কাঁদিয়ে ছাড়ে৷’’ এতে প্রতারণার শিকার ব্যক্তির শেষ নাম বলা হয়েছে চিউ৷ এতে বলা হচ্ছে, সুস্বাদু এই ক্রসোঁর জন্য ক্যাশ মেশিন থেকে বেকারি প্রতিষ্ঠানকে ৯৯ তাইওয়ানি ডলার পাঠান চিউ৷ যা প্রায় তিন মার্কিন ডলারের সমান৷ কিন্তু চিউকে ফোন করে বলা হয় যে, তিনি কোন ভুল করেছেন তাই তাঁকে আবারো ক্রসোঁর দাম পরিশোধ করতে হবে৷ তিনি আবারও ক্রসোঁর দাম দেন৷

কিন্তু এরপরও ফোন আসে৷ নিজেকে একটি ব্যাংকের ব্যবস্থাপক পরিচয় দিয়ে ফোনের অপর প্রান্ত থেকে তাঁকে আবারও টাকা পাঠাতে বলে কেউ৷ এরপরের ফোনে দাবি করা হয় যে, মনিটরি সুপারভিশন কমিশন থেকে ফোন করা হয়েছে৷

Deutschland Anuga 2009 Köln Messe Nahrungsmittelmesse

এতো ডলার দিয়েও চিউ-এর ভাগ্যে জোটেনি এই সুস্বাদু মচমচে ক্রসোঁ

এবারও তাঁকে বলা হয়, কোন ভুল করেছেন তিনি৷ যেকারণে তাঁকে আবার টাকা পাঠাতে হবে৷ নতুবা অর্থ পাচারের অভিযোগ উত্থাপন করা হবে তাঁর বিরুদ্ধে৷ এভাবে সাত দফা টাকা পাঠান চিউ৷ তা শেষমেষ হিসাব করে দেখা গেছে, তিনি পাঠিয়েছেন মোট এক কোটি বিশ লাখ তাইওয়ানি ডলার৷

এরপর তিনি বুঝতে পেরেছেন যে, তিনি আসলে প্রতারণার শিকার৷ তবে বড্ড দেরিতে৷ তাইওয়ানে প্রতি বছর হাজার হাজার মানুষ টেলিফোনে এমন প্রতারণার শিকার হন৷ যদিও সেখানকার মানুষকে এমন ভয়াবহ পরিস্থিতির হাত থেকে বাঁচাতে প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে যাচ্ছেন দেশটির পুলিশ বিভাগ৷ জাতীয় পুলিশ প্রশাসনের তথ্য মতে, ২০০৪ সাল থেকে প্রতারণা ঠেকাতে চালু করা হটলাইনে অভিযোগ এসেছে ৩৭ লাখ৷ এগুলোর মধ্যে ৪৮ হাজার মামলা আমলে নিয়ে সেগুলোর একটা বিহিত করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ বাহিনী৷

প্রতিবেদন: হোসাইন আব্দুল হাই

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

ইন্টারনেট লিংক