1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ইউরোপ

ক্যালের ‘জঙ্গল' থেকে উদ্বাস্তু সরানো শুরু

পুলিশের সঙ্গে উদ্বাস্তুদের বিক্ষিপ্ত দাঙ্গার পর উত্তর ফ্রান্সের ক্যালে বন্দরের কাছে ‘জঙ্গল শিবির' ভেঙে দেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে৷ উদ্বাস্তুদের বাসে করে ফ্রান্সের অন্যত্র পাঠানো হচ্ছে৷

Frankreich Räumung Dschungel von Calais (Reuters/P. Woyazer)

উদ্বাস্তুদের ফ্রান্সের অন্যত্র পাঠানো হচ্ছে

সোমবার সকাল থেকেই উদ্বাস্তুদের জিজ্ঞাসাবাদ ও নাম লেখানোর কাজ চলছে৷ প্রথম বাসটি ৫০ জন সুদানি উদ্বাস্তুকে নিয়ে মধ্য ফ্রান্সের বার্গান্ডি এলাকার দিকে যাত্রা শুরু করেছে বলে খবর দিয়েছে সংবাদ সংস্থা এএফপি৷

রবিবার রাত্রে কয়েক দল উদ্বাস্তু পুলিশের দিকে পাথর ছোঁড়ে ও শৌচালয়গুলিতে আগুন ধরিয়ে দেয়৷ পুলিশও পাল্টা কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়ে৷

সকালে কিন্তু শত শত উদ্বাস্তুকে তাদের ব্যাগ-সুটকেসসহ ক্যালের বাইরে একটি হ্যাঙ্গারের সামনে সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়৷

উদ্বাস্তুদের নাম লিখিয়ে, তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করার পর চারটি গোষ্ঠীতে ভাগ করা হচ্ছে: পরিবার, একক পুরুষ, একক অপ্রাপ্তবয়স্ক এবং অন্যান্য অসহায় ব্যক্তি৷ তারপর তাদের বাসে করে ফ্রান্স জুড়ে প্রায় ৩০০টি শরণার্থী আবাসে নিয়ে যাওয়া হবে৷ সেখানে তারা রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদনপত্র দাখিল করতে পারবে৷

যেসব অপ্রাপ্তবয়স্ক একা ক্যালের ‘জঙ্গলে' ছিল, তাদের আপাতত সেখানে থাকতে দেওয়া হবে: সেজন্য বসবাসের উপযোগী কনটেইনার স্থাপন করা হয়েছে৷ গত সপ্তাহে যেমন প্রায় ২০০ শিশু উদ্বাস্তুকে ব্রিটেনে যাওয়ার বিশেষ অনুমতি দেওয়া হয়, এদের ক্ষেত্রেও তা ঘটবে কিনা, তা জানা যায়নি৷

ক্যালের ‘জঙ্গলের' প্রায় ৬,৫০০ বাসিন্দাকে স্থানান্তরণ ও অননুমোদিত শিবিরটিকে মাটির সাথে মিশিয়ে দেওয়ার অভিযানে ১,২০০-র বেশি পুলিশ নিয়োগ করা হয়েছে৷

ক্যালের ‘জঙ্গলের' ইতিহাস চলে আসছে নব্বইয়ের দশক থেকে৷ সে আমলে  যেসব উদ্বাস্তু ব্রিটেনে যাবার আশায় খোলা আকাশের নীচে রাত কাটাচ্ছিলেন, তাদের জন্য রেড ক্রস একটি ক্যাম্প খোলে৷ ২০০২ সালে সেই ক্যাম্প বন্ধ করে দেওয়া হয় ব্রিটেনের চাপে৷ এরপর শত শত মূলত আফগান উদ্বাস্তু মিলে একটি অস্থায়ী ক্যাম্প সৃষ্টি করে যে পথ ধরে ব্রিটেনমুখী লরিগুলি ক্যালে বন্দরের দিকে চলেছে, ঠিক সেই রাস্তার পাশে৷ ২০০৯ সালে তৎকালীন ফরাসি প্রেসিডেন্ট নিকোলা সারকোজির নির্দেশে তা একবার ভেঙেও দেওয়া হয়৷ কিন্তু ২০১৫ সালে আবার সেই ‘জঙ্গল’ গজিয়ে ওঠে৷

এসি/এসিবি (এএফপি, রয়াটার্স, এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়