1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

কৌশলগত আলোচনায় বসছেন পাক-মার্কিন প্রতিনিধিরা

আজ শুরু হচ্ছে পাক-মার্কিন কৌশলগত আলোচনা৷ এজন্য ওয়াশিংটনে পাকিস্তানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি৷ শুক্রবার মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিন্টন ও কুরেশির বৈঠকের মধ্য দিয়ে শেষ হবে তিনদিনের আলোচনা৷

Hillary, Rodham, Clinton, Pakistan, Foreign, Minister, Shah, Mehmood, Qureshi, US,

ফাইল ছবি

পাক-মার্কিন সম্পর্কের ঘাটতি কমিয়ে আনতেই যুক্তরাষ্ট্র কৌশলগত আলোচনার উদ্যোগ শুরু করে চলতি বছরের গোড়াতে৷ কারণ পাকিস্তান ও আফগানিস্তানে জঙ্গি দমন তৎপরতায় সাফল্যের জন্য পাকিস্তানের ভূমিকাকে গুরুত্বের সাথেই বিবেচনা করে অ্যামেরিকা৷ অথচ সম্পর্ক উন্নয়ন প্রক্রিয়ার মাঝপথে কিছু ঘটনা যেন বাধ সাধে এমন উদ্যোগে৷ বিশেষ করে ঘন ঘন মার্কিন ড্রোন হামলা নিয়ে পাকিস্তানে অসন্তোষ৷ তদুপরি গত মাসে ন্যাটো হেলিকপ্টার থেকে গুলি বর্ষণে দুই পাকিস্তানির মৃত্যু৷ এমনকি এই ঘটনার কারণে আফগানিস্তানে সমরাস্ত্র সরবরাহের জন্য ব্যবহৃত খাইবার পাস বন্ধ করেও দিয়েছিল পাকিস্তান৷ অবশ্য অ্যামেরিকা এই ঘটনার জন্য ক্ষমা চাইলে ১১ দিন পর আবারো পথটি খুলে দেওয়া হয়৷ তবে পাকিস্তানের ভয়াবহ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য বিপুল পরিমাণ ত্রাণ সহায়তা পাঠিয়ে সম্পর্ক কিছুটা ঝালিয়ে নিতে কার্পণ্য করেনি ওয়াশিংটন৷ বন্যার্তদের জন্য মার্কিন সহায়তার প্রশংসা করলেও হেলিকপ্টার হামলা এবং ড্রোন হামলার সমালোচনা করতে ছাড়েননি কুরেশি৷

হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে এক ভাষণে অ্যামেরিকার উদ্দেশ্যে কুরেশি বলেন, ‘‘আমরা স্যাটেলাইট তথা লেজুড় নই, বরং আমরা সহযোগী৷ আমাদেরকে নিজেদের সীমানা রক্ষা করতে হবে এবং আমাদের সার্বভৌমত্বের প্রতি আপনাদের শ্রদ্ধা থাকা চাই৷'' অবশ্য একইসাথে কুরেশি সন্ত্রাস নির্মূলে অ্যামেরিকার সাথে একযোগে কাজ করার ক্ষেত্রে তাঁর দেশের প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেন৷ তিনি বলেন, সকল সভ্যতার জন্য হুমকি স্বরূপ সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়তে অ্যামেরিকার সাথে কাজ করবে পাকিস্তান৷

এদিকে, পাকিস্তানের জন্য প্রতিরক্ষা সহায়তার বিষয়টিও গুরুত্বের সাথে স্থান পাবে কৌশলগত আলোচনায়, বললেন পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের জন্য নিয়োজিত মার্কিন বিশেষ উপ-প্রতিনিধি ফ্রাঙ্ক রাজিরো৷ তিনি বলেন, ‘‘পাকিস্তানকে সামরিক রসদ এবং এই ধরণের আর কী কী সহায়তা করা যায় তা নির্ধারণে গত গ্রীষ্মে আমরা কাজ করেছি৷'' আসন্ন আলোচনার টেবিলে সেটিও গুরুত্বের সাথে স্থান পাবে৷ আর সেকারণেই এসময় পেন্টাগনের সাথে বৈঠকে পাকিস্তানের সেনা প্রধান জেনারেল আশফাক কায়ানিও উপস্থিত থাকছেন বলে খবর৷ অবশ্য পাক-মার্কিন সামরিক সহযোগিতা ভারত-মার্কিন সম্পর্কের উপর প্রভাব ফেলতে পারে, এমন আশঙ্কা বিশ্লেষকদের৷ এই প্রসঙ্গে রাজিরো বলেন, ‘‘মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র পাকিস্তান সরকারের সাথে কৌশলগত আলোচনা এবং কৌশলগত সম্পর্কের ব্যাপারে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ৷ একইসাথে আমরা ভারত সরকারের সাথেও কৌশলগত আলোচনায় বসবো৷''

প্রতিবেদন: হোসাইন আব্দুল হাই

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

নির্বাচিত প্রতিবেদন