1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

কোলনে বিদেশিদের ওপর হামলা

বছরের শেষ রজনী ও নতুন বছরের আগম উদযাপনের সময় নারীদের ব্যাপক যৌন নিপীড়ন, ছিনতাই ও ধর্ষণের ঘটনার রেশ এখনো কাটেনি৷ বরং সেই শহরেই বিদেশিদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে৷ কোলনের পুলিশই জানিয়েছে এ খবর৷

‘থার্টি ফার্স্ট নাইট' উদযাপনের সময় কোলন কেন্দ্রীয় রেল স্টেশনের কাছে যে ব্যাপক যৌন নিপীড়ন এবং ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছিল, যা নিয়ে এখনো উত্তপ্ত জার্মানি৷ ইতিমধ্যে কোলন পুলিশের প্রধান দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন৷ তবে তাতে পরিস্থিতির এখনো কোনো উন্নতি হয়নি৷ সপ্তাহান্তে অভিবাসনবিরোধী মিছিল হয়েছে৷ এমন মিছিল অবশ্য আগেও হয়েছে জার্মানিতে৷ তবে এবারের বিক্ষোভ মিছিলটি কোলনের ঘটনার পরেই হলো বলে সেদিকে সতর্ক নজর রাখে পুলিশ৷

রবিবার কোলন শহরে ২০ জন বিদেশির ওপর হামলা হয়৷ হামলার শিকার ২০ জনের মধ্যে ৬ জন পাকিস্তানের নাগরিক বলে জানিয়েছে পুলিশ৷ দু'জনকে হাসপাতালে নিতে হয়েছে৷ বাকিদের তেমন কোনো আঘাত লাগেনি৷ রবিবার সন্ধ্যায় কোলন কেন্দ্রীয় রেল স্টেশনের সামনেই হামলার এ ঘটনা ঘটে৷

আরেক হামলার ঘটনায় আহত হয়েছেন ৩৯ বছর বয়সি এক সিরীয়৷ পাঁচ তরুণ তাঁর ওপর চড়াও হয়৷ সিরিয়া থেকে আগত অভিবাসন প্রত্যাশীর ওপর হামলার ঘটনাটিরও তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ৷

এদিকে ৩১শে ডিসেম্বর রাতের রোমহর্ষক হামলার শিকারদের মধ্যে আরো অনেকেই এখন পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করছেন৷ প্রথমে ৯০ জন অভিয়োগ দায়ের করলেও, সারা দেশে ব্যাপক প্রতিক্রিয়ার পর ধীরে ধীরে অভিযোগের সংখ্যা বাড়তে বাড়তে এখন পাঁচশ ছাড়িয়েছে৷

এ পর্যন্ত ৫১৬টি অভিযোগ পাওয়ার কথা জানিয়েছে পুলিশ৷ ৫১৬ জনের মধ্যে কেউ কেউ ব্যাপক যৌন নিপীড়নের শিকার হয়েছেন, কারো কারো কাছ থেকে টাকা-পয়সা, মোবাইলফোন ছিনিয়ে নেয়া হয়েছে৷ এছাড়া একটি ধর্ষণের অভিযোগও পেয়েছে পুলিশ৷

এসিবি/ডিজি (এএফপি, রয়টার্স, ডিপিএ)

বন্ধুরা, কোলনে যৌন নিপীড়নের ঘটনার পর ঘটলো বিদেশিদের ওপর হামলা৷ আপনার কি মনে হয়? এমন পরিস্থিতি কি সামাল দিতে পারবে জার্মানি?

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়