1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

কেমন হতো এই সময়ের ‘লাস্ট সাপার’?

‘লাস্ট সাপার’ চিত্রকর্মটি যদি বর্তমান খ্যাদ্যাভ্যাসে আঁকা হয় তাহলে কেমন দাঁড়াবে এর চেহারা? এতে কি সাধারণ মিতব্যয়ী আহারের চরিত্র থাকবে নাকি কসমোপলিটান এবং আজকের দিনের অভ্যাসের সঙ্গে মানানসই ভুরিভোজের ছবি ফুটে উঠবে?

default

লিওনার্দো দ্য ভিঞ্চি'র কালজয়ী চিত্রকর্ম ‘দ্য লাস্ট সাপার'

এই প্রশ্নের জবাব খুঁজেছেন দুই মার্কিন অধ্যাপক৷ চিন্তাটা তাঁদের মাথায় আসে ১০০০ খ্রিষ্টাব্দ থেকে ২০০০ খ্রিষ্টাব্দের মধ্যে আঁকা সবচেয়ে বিখ্যাত ৫২টি ‘লাস্ট সাপার' চিত্রকর্ম পরীক্ষা করার পর৷ তাঁরা লক্ষ্য করেছেন, বাইবেলে বর্ণিত যিশু এবং তাঁর শিষ্যদের বিখ্যাত শেষ ভোজকে ফুটিয়ে তুলতে হাজার বছরে আঁকা এসব চিত্রকর্মে খাবারের বহর আশ্চর্যজনক হারে বেড়েছে দিনকে দিন৷

‘লাস্ট সাপার'-কে বিষয় করে ছবি এঁকেছেন বিশ্বের বহু খ্যাতনামা শিল্পীই৷ বলাবাহুল্য, এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি পরিচিত মহান ইতালীয় চিত্রকর এবং বহুমাত্রিক প্রতিভা লিওনার্দো দ্য ভিঞ্চি'র আঁকা ‘দ্য লাস্ট সাপার' চিত্রকর্মটিই৷ ইতালির মিলান শহরের ‘সান্তা মারিয়া দেল্লে গ্রাসিয়ে' গির্জায় ফ্রেসকো মাধ্যমে এই ম্যুরালচিত্রটি আঁকেন ভিঞ্চি৷ ১৪৯৫ থেকে ১৪৯৮ সালের মধ্যে এই চিত্রকর্ম শেষ করেছিলেন ভিঞ্চি৷

বাইবেলের ‘গসপেল' অনুসারে এই ভোজসভাতেই যিশু ঘোষণা করেন যে উপস্থিত বারো শিষ্যের মধ্য থেকেই কোনো একজন যিশুকে ধরিয়ে দেবেন৷ এই খবরে একেক শিষ্যের একেক রকমের প্রতিক্রিয়া হয়৷ আর বলা হয়ে থাকে ভিঞ্চির চিত্রকর্মেই শিষ্যদের আলাদা আলাদা প্রতিক্রিয়া সবচেয়ে ভাল ফুটে উঠেছে৷

Ausstellungstipps 09.02.2007 Tintoretto Ausstellung in Prado

চিত্রকর টিনটোরেটো’র আঁকা ‘লাস্ট সাপার’

তো সে যাই হোক, ফেরা যাক শেষ ভোজের খাবার প্রসঙ্গে৷ কম্পিউটার-নির্ভর ডিজাইন প্রযুক্তি ব্যবহার করে ওই অধ্যাপক জুটি গবেষণা করেছেন লাস্ট সাপারের প্রধান ডিশ, রুটি এবং থালার আকার কি হারে বেড়েছে তা নিয়ে৷ ফলাফল বলছে, এক হাজার বছরের ব্যবধানে প্রধান ডিশের আকার বেড়েছে প্রায় ৬৯ দশমিক ২ শতাংশ, থালার আকার বেড়েছে ৬৫ দশমিক ৬ শতাংশ এবং রুটির আকার বেড়েছে ২৩ দশমিক ১ শতাংশ৷

নিউ ইয়র্কের কর্নেল ইউনিভার্সিটির বিপণন এবং ফলিত অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ব্রায়ান ওয়ানসিঙ্ক এবং তাঁর ভাই ভার্জিনিয়ার নরফোকের ওয়েসলিয়ান কলেজের ধর্ম অধ্যয়ন বিভাগের অধ্যাপক ক্রেইগ ওয়ানসিঙ্ক এই গবেষণা করেন৷

গবেষক দুই ভাইয়ের বক্তব্য, ভোজের বহর বেড়ে যাওয়ায় গত দশ শতকে বিশ্ব কৃষির সাফল্য প্রতিফলিত হয়েছে৷ অধ্যাপক ব্রায়ান ওয়ানসিঙ্ক বলেন, ‘‘গত এক হাজার বছরে খাদ্যের উৎপাদন, প্রাপ্যতা, নিরাপত্তা, পরিত্যক্ততা এবং ক্রয়ক্ষমতায় নাটকীয় উন্নতি হয়েছে৷'' তিনি বলেন, ‘‘আমরা মনে করি শিল্প জীবনকে খুব কাছে থেকে দেখে বলেই এইসব পরিবর্তন ফুটে উঠেছে ইতিহাসের সবচেয়ে বিখ্যাত ডিনারের চিত্রটিতে৷''

ব্রিটিনের ‘ইন্টারন্যাশনাল জার্নাল অফ ওবেসিটি'-তে এই গবেষণা প্রকাশিত হয়েছে৷ নিউ টেস্টামেন্ট-এ বলা হয়েছে যিশুকে ধরিয়ে দেওয়া এবং ক্রুশবিদ্ধ হয়ে তাঁর প্রয়াণের আগের আগের সন্ধ্যায় ১২ শিষ্যকে নিয়ে ওই শেষ ভোজে অংশ নিয়েছিলেন যিশু৷ তবে, যিশু এবং তাঁর শিষ্যরা কি পানাহার করেছিলেন সে বিষয়ে কিছু বলা হয়নি তাতে৷

প্রতিবেদন : মুনীর উদ্দিন আহমেদ

সম্পাদনা : আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

সংশ্লিষ্ট বিষয়