1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

কেমন আছেন বাংলাদেশের মানসিক রোগীরা?

মানসিক রোগীদের জন্য বাংলাদেশের একমাত্র বিশেষায়িত হাসপাতাল রয়েছে পাবনার হেমায়েতপুরে৷ হাসপাতালটি ৫০০ শয্যাবিশিষ্ট৷ কিন্তু বর্তমানে সেখানে ডাক্তার আছেন মাত্র চারজন৷ রয়েছে অন্যান্য সমস্যাও৷

ইংরেজি দৈনিক ‘দ্য ডেইলি স্টার'-এ প্রকাশিত খবর বলছে, রোগীদের সঠিক সেবা দিতে আরও ৩০ জন চিকিৎসক প্রয়োজন৷ আর হাসপাতালে কর্মচারীদের জন্য ৪৯২টি পদ থাকলেও বর্তমানে কাজ করছেন ৩৬৬ জন৷ হাসপাতালের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, সরকার হাসপাতালে চিকিৎসক নিয়োগ দিলেও অনেকে সেখানে কাজ করতে চান না৷

জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের ২০১১ সালের প্রতিবেদন বলছে, বাংলাদেশে মানসিক সমস্যাগ্রস্ত প্রাপ্তবয়স্ক রোগীর সংখ্যা প্রায় দেড় কোটি৷ আর ১২ থেকে ১৭ বছরের শিশুদের মধ্যে প্রায় ২০ শতাংশের মানসিক রোগ রয়েছে৷

বাংলাদেশে মানসিক রোগীদের স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে বেশ কয়েকটি ছবি ছাপিয়েছে ব্রিটিশ দৈনিক দ্য গার্ডিয়ান৷ বাংলাদেশে মানসিক রোগীদের বেশ অবহেলা করা হয়৷ রোগীদের গায়ে কলঙ্ক লেপে দিয়ে তাদের অনেক সময় শিকল দিয়ে বেঁধেও রাখা হয়৷

গার্ডিয়ান প্রতিবেদনটি টুইটারে শেয়ার করলে সেখানে মন্তব্য করেন অনেকে৷ ওসমান গনি লিখেছেন, ‘‘তিক্ত সত্য৷ সামান্য সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে যাওয়া রোগীর সমস্যা আরও বেড়ে যেতে পারে৷''

ক্যাথেরিন ম্যারি রোহান গার্ডিয়ান পত্রিকাকে আগে ব্রিটেনে মানসিক রোগীদের অবস্থা দেখার আহ্বান জানান৷ তাঁর মতে, ব্রিটেনে মানসিক রোগীদের জন্য চিকিৎসা ব্যবস্থা পর্যাপ্ত নয়৷

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসেবে, সারা বিশ্বের প্রতি ১০ জন মানুষের মধ্যে একজন মানসিক অসুস্থতায় ভোগেন৷

সংকলন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

আপনার চেনা মানসিক রোগীর গল্প বলুন আমাদের, লিখুন নীচের মন্তব্যের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন