1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ভাইরাল ভিডিও

কৃষ্ণাঙ্গ যাত্রীকে এভাবে ট্রেন থেকে নামানো হলো!

মিউনিখের এস-বান বা কমিউটার ট্রেন থেকে এক টিকিটবিহীন কৃষ্ণাঙ্গ যাত্রীকে জোর করে নামিয়ে দেওয়ার দৃশ্য ধারণ করেন সাংবাদিকা নাটালিয়া মিলেটিচ৷ ভিডিওটি ভাইরাল হতে বেশি সময় লাগেনি৷

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, দু'জন রেলকর্মী কিভাবে একজন কৃষ্ণাঙ্গ পুরুষকে টেনে-হিঁচড়ে ট্রেন থেকে নামাচ্ছেন৷ দৃশ্যত সংশ্লিষ্ট যাত্রীর কোনো টিকিট ছিল না৷ কৃষ্ণাঙ্গ সেই যাত্রী সর্বশক্তি প্রয়োগ করে, ট্রেনের রড আঁকড়ে ধরে কামরার ভিতরে থাকার চেষ্টা করছেন; রেলকর্মীদের একজন রড থেকে তাঁর আঙুল খুলে দিচ্ছেন৷ শেষমেশ দুই রেলকর্মী মিলে কৃষ্ণাঙ্গ যাত্রীটিকে প্ল্যাটফর্মে নামিয়ে, তাঁকে মাটির উপর চেপে ধরেছেন

সাংবাদিকা নাটালিয়া মিলেটিচ গোড়া থেকে টিকিট চেকারদের জোর-জবরদস্তির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে আসছিলেন৷ তিনি ইংরেজিতে একাধিকবার বলেছেন, ‘‘আপনারা যা করছেন, তা ঠিক নয়৷ আপনাদের লজ্জা হওয়া উচিৎ৷ আপনারা যা করছেন, তা জাতিবাদ৷ উনি শুধু কৃষ্ণাঙ্গ বলেই আপনারা এমন করছেন৷’’

সম্ভবত তৃতীয় কোনো রেলকর্মী নাটালিয়াকে তাঁর মোবাইল দিয়ে ভিডিও তোলা বন্ধ করতে বলছেন৷ নাটালিয়া জবাব দিচ্ছেন, তিনি সাংবাদিক এবং তাঁর যে কী অধিকার আছে বা নেই, তা তিনি ভালো করে জানেন৷ এবার জার্মানেই কথা বলছেন নাটালিয়া৷

ক্যোলনার স্টাট-আনৎসাইগার পত্রিকা তাদের ওয়েবসাইটে এই ভিডিও প্রকাশ করার সময় উল্লেখ করেছে যে, ‘ডয়চে বান’ বা জার্মান রেলওয়ের হোমপেজে লেখা আছে, ‘‘জার্মান রেলওয়ের কর্মীদের পুলিশি কার্যকলাপের অধিকার নেই; রেলকর্মীদের শুধু তা করার অধিকার আছে, যা সাধারণ নাগরিকরাও করতে পারেন – অর্থাৎ পুলিশ আসা পর্যন্ত অপরাধীকে শুধু তাঁরা ধরে রাখতে পারেন৷’’

মিউনিখ এস-বানের ঘটনা এর আওতায় পড়বে কিনা, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে পারে৷

এসি/এসিবি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক