1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

মিডিয়া সেন্টার

কুকুরদের জন্য মন কাঁদে যাঁর

ছেলেটির নাম অমল মাহাতো৷ নৈশ কলেজে থার্ড ইয়ারের ছাত্র৷ দিনেরবেলা কিছুটা সময় বাজারে, কাকার দোকানে কাজ করেন৷ আর বাকি সময়টা দেখভাল করেন রাস্তার কুকুরদের৷ তবে শুধু নিজেই না, অন্য বন্ধুদেরও দলে টেনেছেন তিনি৷

ভিডিও দেখুন 04:14

নিয়মিত ওদের খাওয়ানোই শুধু নয়, কোনো কুকুর অসুস্থ হয়ে পড়লে বা কেউ দুর্ঘটনার শিকার হলে ছুটে যান অমল৷ কারণটা অমলের কাছে খুবই সাদামাটা৷ তাঁর নিজের কথায়, ‘‘‌ওরা অবলা জীব৷ আমরা যদি ওদের না দেখি, তাহলে কে দেখবে!‌’‌’ 

এই কাজ করতে করতেই শহরে পশুপ্রেমীদের সঙ্গে আলাপ হয়ে গেছে অমলের৷ যখন নিজে পারেন না বা সাধ্যে কুলোয় না, তখন বার্তা পাঠান সেই বন্ধুদের৷ তাঁরা দৌড়ে আসেন৷ এরকমই এক পশুপ্রেমীর থেকে কুকুরদের প্রাথমিক চিকিৎসার পাঠ নিয়েছেন অমল৷ এখন তাদের ওষুধ খাওয়ানো, ইঞ্জেকশন দেওয়া, ছোটখাটো চোট-আঘাতের যত্ন করার কাজ অমল নিজেই করতে পারেন৷ তবে এর থেকেও একটা মস্ত বড় উপলব্ধি হয়েছে অমল মাহাতোর৷ মানুষ যদিও বা কুকুরের কথা না বুঝতে পারে, কুকুর কিন্তু মানুষের কথা ঠিকই বোঝে৷

এছাড়া পড়ুন