1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

কিউবার মুক্তিপ্রাপ্ত রাজবন্দিদের আশ্রয় দেবে স্পেন

কিউবা বিরুদ্ধবাদী বন্দিদের মুক্তি দিতে শুরু করেছে৷ স্পেন এসব মুক্তিপ্রাপ্ত বন্দিকে আশ্রয় দিতে রাজি হওয়ায় কিউবা এই প্রক্রিয়া শুরু করল৷ এদিকে, দীর্ঘদিন পর জনসম্মুখে দেখা গেছে দেশটির বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ফিদেল ক্যাস্ট্রোকে৷

Cuba, Castro, Fidel, Raul, Spain, কিউবা, স্পেন

কিউবার স্বাধীনতার স্তম্ভ

কিউবার রাজনৈতিক বন্দিদের মুক্ত করার ক্ষেত্রে গির্জা পালন করেছে মধ্যস্থতার ভূমিকা৷ সরকারের সাথে গির্জার সমঝোতা আলোচনার পরই এমন সিদ্ধান্ত৷ এছাড়া হাভানার আর্কবিশপ জেইমে ওরটেগার সাথে স্পেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রী আঙ্গেল মোরাটিনোজের সমঝোতা বৈঠকের প্রেক্ষিতে আরো সহজ হয় মুক্তিপ্রাপ্ত বন্দিদের আশ্রয় দেওয়ার বিষয়টি৷ মোরাটিনোজ বলেন, কিউবার মুক্তিপ্রাপ্ত সকল রাজবন্দিকে আশ্রয় দেবে তাঁর দেশ৷ এসব রাজনৈতিক বন্দির দাবিতে ইতিমধ্যে আমরণ অনশন চলছিল হাভানায়৷ ৮৫ দিন অনশন করে প্রাণ হারান ওরলান্ডো সাপাটা নামের এক কর্মী৷ এছাড়া ১৩৫ দিন ধরে অনশন করতে গিয়ে প্রায় মারা যাওয়ার অবস্থা হয় সরকার বিরোধী কর্মী গিলের্মো ফারিনাসের৷ ফারিনাস পেশায় মনোবিজ্ঞানী এবং অনলাইন সাংবাদিক৷ ফলে বিব্রতকর পরিস্থিতির মুখে ত্বরান্বিত হয় বন্দিমুক্তির বিষয়টি৷

চলতি সপ্তাহেই রাউল ক্যাস্ট্রোর সরকার ঘোষণা করে, ৫২ জন রাজবন্দিকে মুক্তি দেওয়া হবে৷ ফলে ২০০৮ সালে রাউল ক্যাস্ট্রো ক্ষমতায় আসার পর এটিই সবচেয়ে বেশি সংখ্যক বন্দি মুক্তির ঘটনা৷ শনিবার প্রথম মুক্তি দেওয়া হয় তিনজনকে৷ প্রথম পর্যায়ে যে ১৭ জনকে স্পেনে পাঠানো হবে সেই গ্রুপেই থাকছে এই তিনজন৷ তাদেরকে আগামী সপ্তাহের শুরুতেই স্পেন পাঠানো হবে বলে খবর৷ অবশ্য, যারা স্পেন যেতে কিংবা সেখানে স্থায়ীভাবে থাকতে রাজি নয়, তারা স্পেনে চিকিৎসার পর বিশেষ অনুমতি সাপেক্ষে দেশে ফিরতে পারবে৷ রাউল ক্যাস্ট্রো এতে সম্মতি দিয়েছেন বলে জানান মোরাটিনোজ৷

জানা গেছে, ২০০৩ সালে মোট ৭৫ জন বিরুদ্ধবাদীকে আটক করা হয়৷ ছয় থেকে ২৮ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছিল এসব রাজবন্দিকে৷ তবে এদের মধ্যে বর্তমান প্রক্রিয়ায় ৫২ জনের মুক্তির ব্যাপারে রাজি হয় সরকার৷ বিশ্লেষকরা বলছেন, অর্থনৈতিক ধস থেকে মুক্তি পেতে আন্তর্জাতিক গোষ্ঠীর সুনজর পেতে চায় কিউবা৷ তাই যে কোন বিব্রতকর পরিস্থিতি এড়াতেই রাজনৈতিক বন্দিদের মুক্তি দিচ্ছে ক্যাস্ট্রো সরকার৷

এদিকে, ২০০৬ সালে ক্ষমতা থেকে সরে আসার পর প্রথমবারের মতো জনসম্মুখে দেখা গেছে বিদায়ী নেতা ফিদেল ক্যাস্ট্রোকে৷ জাতীয় বৈজ্ঞানিক গবেষণা কেন্দ্রে যাওয়ার সময় ক্যাস্ট্রোর পাঁচটি ছবি তোলেন তাঁর ছেলে অ্যালেক্স৷ আর এসব ছবি প্রকাশ করা হয়েছে কিউবাডিবেট নামের ওয়েবসাইটে৷ ৮৩ বছর বয়সি ক্যাস্ট্রো গবেষণা কেন্দ্রটির ৪৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে উপস্থিত ছিলেন৷ উল্লেখ্য, ১৯৫৯ সালে কিউবার সফল বিপ্লবের নায়ক ফিদেল ক্যাস্ট্রো স্বাস্থ্যগত কারণে চার বছর আগে ক্ষমতা থেকে সরে দাঁড়ান৷

প্রতিবেদন: হোসাইন আব্দুল হাই

সম্পাদনা: সাগর সরওয়ার