1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

কায়সারের মৃত্যুদণ্ডে নিরব ফেসবুক, টুইটার

বাংলাদেশে যুদ্ধাপরাধের দায়ে কারো বিচারের রায় ঘোষণা হলে সাধারণত ফেসবুক, টুইটারে ব্যাপক আলোচনা শুরু হয়৷ সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সার এক্ষেত্রে ব্যতিক্রম৷ তাঁর বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ডের রায় ঘোষণা হলেও তেমন প্রতিক্রিয়া নেই৷

একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে সাবেক প্রতিমন্ত্রী সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল৷ এই রায়ের প্রতিক্রিয়া জানতে একটি পোস্ট দেয়া হয় ডয়চে ভেলের ফেসবুক পাতায়৷ তাতে জবাব এসেছে সামান্যই৷ নুরুল ইসলাম লিখেছেন, ‘‘সাবেক এরশাদ সরকারের কৃষি প্রতিমন্ত্রী সৈয়দ মুহাম্মদ কায়সারকে মানবতাবিরোধী অপরাধে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে৷ জাতীয় পার্টি রাজাকারের দল বলে প্রমাণিত হয়েছে৷ এখন জাতীয় পার্টি নিষিদ্ধে সুশীল সমাজ তথাকথিত বুদ্ধিজীবীরা কোথায়? জাতীয় পার্টি বর্তমান সরকার আছে তাই না৷''

ডয়চে ভেলের আরেক পাঠক ইন্দ্রজিৎ রায় লিখেছেন, ‘‘একজন মানবতাবিরোধী অপরাধীর বিচার হয়েছে৷ এবার অচিরেই রায় কার্যকরের মধ্যদিয়ে কলঙ্কমুক্তির পথে বাঙালি জাতি আরও একধাপ এগিয়ে যাবে বলে প্রত্যাশা করি...৷''

তবে আয়ার মাহমুদ নামের আরেক পাঠক খানিকটা ভিন্নমত প্রকাশ করেছেন৷ তিনি লিখেছেন, ‘‘দলীয় বিবেচনায় নিয়োগপ্রাপ্তদের দিয়ে সার্বিক বিচারকার্য পরিচালিত হচ্ছে৷ তাই আস্থা রাখতে পারছি না!!'' আমরান গাজী লিখেছেন, ‘‘বর্তমান সরকারের আমলে কোনো সুষ্ঠ বিচার আশা করা যায় না৷''

প্রসঙ্গত, ঢাকায় অবস্থিত আন্তর্জাতিক যুদ্ধাপরাধ আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের দেয়া ১৪তম রায় এটি৷ ডয়চে ভেলের টুইটার পাতায়ও এই বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানতে চাওয়া হয়৷ কয়েকজন পাঠক সেখানে তাদের মতামত জানিয়েছেন৷

এর আগে সোমবার ফেসবুকে গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার লিখেছেন, ‘‘মহান মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে ‘কায়সার বাহিনী' গঠন করে গণহত্যায় নেতৃত্ব দেয়া তৎকালীন মুসলিম লীগ নেতা যুদ্ধাপরাধী সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারের মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলার রায় আগামীকাল মঙ্গলবার৷ এই কুখ্যাত খুনীর প্রাপ্য সর্বোচ্চ শাস্তি প্রত্যাশা করছে গণজাগরণ মঞ্চ৷''

সংকলন: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়