1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

কায়রোর আলোচনায় কোন আশা মিললো না

মিশরের রাজধানী কায়রোতে মধ্যপ্রাচ্য শান্তি আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়েছে রোববার৷ তবে তেমন কোন অগ্রগতি দেখা যায়নি৷ যুক্তরাষ্ট্র এবং ইসরায়েল সরাসরি আলোচনার প্রস্তাব দিলেও ফিলিস্তিনের পক্ষ থেকে সে ব্যপারে সাড়া মেলেনি৷

Egyptian President Hosni Mubarak, Israeli Prime Minister Benjamin Netanyahu

মিশরের প্রেসিডেন্ট ও ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে করমর্দন

মিশরের রাজধানী কায়রোতে মধ্যপ্রাচ্য শান্তি আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়েছে রোববার৷ তবে তেমন কোন অগ্রগতি দেখা যায়নি৷ যুক্তরাষ্ট্র এবং ইসরায়েল সরাসরি আলোচনার প্রস্তাব দিলেও ফিলিস্তিনের পক্ষ থেকে সে ব্যপারে সাড়া মেলেনি৷

মধ্যপ্রাচ্য শান্তি প্রক্রিয়ায় মধ্যস্থতা করে আসছে মিশর৷ তাই মিশরের রাজধানী কায়রোতে গিয়ে হাজির হলেন ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের নেতৃবৃন্দ৷ সেখানে ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ক বিশেষ দূত জর্জ মিচেল৷ কিন্তু কারো সঙ্গে কারো মুখোমুখি দেখা সাক্ষাৎ হলো না৷ প্রত্যেক নেতাই আলাদা আলাদাভাবে মিশরের প্রেসিডেন্ট হোসনি মুবারকের সঙ্গে বৈঠক করেন৷ বার্তা সংস্থাগুলো জানিয়েছে, মার্কিন দূত জর্জ মিচেল প্রথমে প্রেসিডেন্ট মুবারকের সঙ্গে বৈঠক করেন৷ প্রায় ঘন্টাখানেক পর তিনি বের হন, তবে সাংবাদিকদের সঙ্গে কোন কথা না বলেই চলে যান৷ এর কিছুক্ষণ পরই ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের গাড়ি বহর এসে পৌঁছে সেখানে৷ তিনিও হোসনি মুবারকের সঙ্গে আধ ঘন্টা ধরে বৈঠক করেন৷ তাঁর চলে যাওয়ার পরপর সবশেষে এসে পৌঁছোন ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু৷

Palestinian President Mahmoud Abbas

ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস

বৈঠক সম্পর্কে কোন নেতাই মুখ খোলেননি৷ কেবল মিশরের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা মেনা জানিয়েছে, প্রেসিডেন্ট মোবারক তিন নেতার সঙ্গেই শান্তি প্রক্রিয়া এগিয়ে নেওয়া এবং একটি দ্বিরাষ্ট্র ভিত্তিক সমাধানে পৌঁছার ওপর জোর দিয়েছেন৷ একই সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন যে ফিলিস্তিনিদের আস্থা অর্জনের জন্য ইসরায়েলকে একটি কার্যকর জোরালো পদক্ষেপ নিতে হবে৷ এর পাশাপাশি সরাসরি আলোচনার জন্যও চেষ্টা চালিয়ে যাওয়ার কথা বলেছেন প্রেসিডেন্ট হোসনি মুবারক৷

উল্লেখ্য, মধ্যপ্রাচ্য শান্তি প্রক্রিয়ায় সরাসরি আলোচনার জন্য যুক্তরাষ্ট্র এবং ইসরায়েল চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে৷ তবে ফিলিস্তিনের এই ব্যাপারে আপত্তি রয়েছে৷ ইসরায়েল তার দখল করা জায়গাগুলোতে বসতি নির্মাণ পুরোপুরি বন্ধ না করা পর্যন্ত সরাসরি আলোচনায় বসতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস৷ এদিকে আরব লীগের প্রধান আমর মুসাও জানিয়েছেন ইসরায়েলের কাছ থেকে লিখিত গ্যারান্টি না পাওয়া পর্যন্ত সরাসরি আলোচনায় বসবে না ফিলিস্তিন৷ মার্কিন বিশেষ দূত জর্জ মিচেলের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের একই কথা জানান আমর মুসা৷ উল্লেখ্য, এর আগে মধ্যপ্রাচ্য শান্তি প্রক্রিয়ায় আরব লীগ মধ্যস্থতা করলেও ইসরায়েলের বসতি সম্প্রসারণের কারনে তারা পিছিয়ে যায়৷

এদিকে মধ্যপ্রাচ্য শান্তি আলোচনার ব্যাপারে তেমন আশাব্যঞ্জক কিছু না পাওয়া গেলেও মিশরের পররাষ্ট্র মন্ত্রী আহমেদ আবুল ঘাইত বলেছেন যে তাঁরা সবগুলো পক্ষের মধ্যে দূরত্ব কমিয়ে আনার ব্যাপারে এখনও আশা ছাড়েননি৷ তিনি আরও জানিয়েছেন যে ইসরায়েলের দাবি তারা ফিলিস্তিনিদের জন্য ভালো প্রস্তাবই দেবে৷

প্রতিবেদন: রিয়াজুল ইসলাম

সম্পাদনা: আরাফাতুল ইসলাম