1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

কাশ্মীরে জার্মান কনসার্ট নিয়ে বিতর্ক

আগামী মাসে ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে কনসার্ট করার কথা তারকা অর্কেস্ট্রা পরিচালক জুবিন মেহেতার৷ তবে এই কনসার্ট ভারত সরকারের দমননীতিকে সমর্থন করে – এই অজুহাতে কনসার্টটি বাতিলের দাবি জানিয়েছে কাশ্মীরের বিচ্ছিন্নতাবাদীরা৷

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের পর্যটন মন্ত্রণালয় এবং দিল্লির জার্মান দূতাবাসের যৌথ উদ্যোগে কনসার্টটি করার কথা ভারতীয় বংশোদ্ভূত মেহতার

কিন্তু বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠনের সদস্য সাঈদ আলী গিলানি এরই মধ্যে জার্মানিকে কনসার্টটি বাতিলের আহ্বান জানিয়েছেন৷ তাঁর মতে, সংঘাতপূর্ণ এ অঞ্চলে এই কনসার্ট অনুষ্ঠিত হলে তা ভারতের দমননীতিকেই সমর্থন করা হবে৷

আর এক শীর্ষ বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতা মিরওয়াইজ উমর ফারুক গিলানিকে সমর্থন জানিয়ে কনসার্ট বাতিল করে এর জন্য যে অর্থ ব্যয় হবে তা কাশ্মীর-জার্মান ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতালে দান করার পরামর্শ দিয়েছেন৷

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘‘কাশ্মীরের পরিস্থিতি জার্মানির বোঝা উচিত, তাদের বোঝা উচিত যে, হত্যা এবং গানবাজনা একসাথে চলতে পারে না৷''

কাশ্মীরের মানবাধিকার সংগঠন এবং স্থানীয় নেতারা একটি চিঠিতে জার্মানিকে এই কনসার্ট বাতিলের আহ্বান জানিয়ে লিখেছেন, ভারত সরকারের এই আয়োজনে তাদের সমর্থন নেই৷ তবে, এখনও পর্যন্ত কাশ্মীরের রাজ্য সরকার এবং জার্মান দূতাবাস এই আহ্বানে সাড়া দেয়নি৷

আগামী ৭ই সেপ্টেম্বর ৭৭ বছর বয়সী মেহতার বাভারিয়ার অর্কেস্ট্রা নিয়ে হাজির হওয়ার কথা, যেখানে ১৫শ দর্শক-শ্রোতার উপস্থিতিতে বেটোফেন, হাইডেন এবং চাইকভস্কির সংগীত বাজানো হবে৷ গ্রীষ্মকালীন রাজধানী শ্রীনগরের অনিন্দ্য সুন্দর ডাল লেকের ধারে শালিমার মোগল গার্ডেনে কনসার্টটি হওয়ার কথা৷

তবে, কনসার্ট হওয়ার পক্ষেও মত আছে অনেক কাশ্মীরির৷ এএফপিকে চিত্রকলা সমালোচক ললিত গুপ্তা জানালেন, মেহতার সংগীতানুষ্ঠান সরাসরি দেখার সৌভাগ্য জীবনে বার বার আসে না৷

গত সপ্তাহে জার্মান রাষ্ট্রদূত মিশায়েল স্টাইনার জানিয়েছিলেন, কনসার্টটি কাশ্মীরের জনগণের জন্য আয়োজন করা হয়েছে৷ আশার বার্তা নিয়ে সব সীমানা, রাজনৈতিক ভেদাভেদ ভুলে সুরের ইন্দ্রজাল কাশ্মীরের সবার মনে আশার আলো জাগাবে এই বিশ্বাস তাঁর৷

১৯৪৭ সালে ব্রিটিশ সাম্রাজ্য থেকে স্বাধীনতা লাভ করার পর ভারত ও পাকিস্তান বিভক্ত হয়৷ এরপর ১৯৮৯ সাল থেকে অখণ্ড কাশ্মীরের দাবিতে ভারতীয় সেনাবাহিনীর সাথে লড়াই করে আসছে বিদ্রোহী গোষ্ঠীগুলো৷ এ পর্যন্ত এ লড়াইয়ে লাখো মানুষ প্রাণ হারিয়েছে৷

সাম্প্রতিক সময়ে আবারো সীমান্তে সেনা হত্যার কারণে নতুন করে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে৷

গত বছর দিল্লিতে আমন্ত্রিত হয়ে এসে মেহতা ঘোষণা করেছিলেন, সব আমন্ত্রণ ও আয়োজন বাদ দিতে হলেও তিনি কাশ্মীরে অনুষ্ঠান করতে চান৷ ভারতের আইএএনএস সংবাদ সংস্থাকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, ৭০ এর দশকে তিনি তার স্ত্রী ও সন্তানদের নিয়ে কাশ্মীর ভ্রমণে গিয়েছিলেন এবং কাশ্মীরকে ভালোবেসেছিলেন৷ আর এ কারণেই সেখানে কনসার্ট করার এত আগ্রহ তাঁর৷

এপিবি/এসবি (এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়