1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

কার্বন ডাই অক্সাইড খুলছে সম্ভাবনার দুয়ার

আমাদের এই পৃথিবীকে বাঁচিয়ে রাখতে হলে বায়ুমণ্ডলে কার্বন ডাই অক্সাইডের নিঃসরণ বন্ধ করতে হবে - গোটা বিশ্বের পরিবেশবিদরা এখন এই স্লোগান তুলেছেন৷ এই কার্বন ডাই অক্সাইড দিয়েই কিন্তু অনেক কিছু তৈরি হচ্ছে৷

ARCHIV - Der bergrechtlich bestellte Diplom-Ingenieur Fabian Möller dreht am Obertage-Sicherheits-Absperrventil des Eruptionskreuzes der CO2 Speicherbohrung in Ketzin (Archivfoto vom 30.06.2008). Die Bundesregierung hat das umstrittene Gesetz zur unterirdischen Speicherung von Kohlendioxid (CO2) beschlossen. Das Kabinett billigte am Mittwoch (13.04.2011) einen Entwurf von Wirtschaftsminister Brüderle (FDP) und Umweltminister Röttgen (CDU) zur Erforschung des sogenannten CCS-Verfahrens. Foto: Nestor Bachmann dpa/lbn (zu dpa 0480 vom 13.04.2011) +++(c) dpa - Bildfunk+++

বিজ্ঞানীরা সম্প্রতি এই কার্বন ডাই অক্সাইডের আরও কিছু গুণাগুণ আবিষ্কার করেছেন যা ভবিষ্যতে নতুন সম্ভাবনার দুয়ার খুলে দিতে পারে৷

একটা সময় ছিল যখন পৃথিবীর বায়ুমণ্ডল ছিল পরিচ্ছন্ন৷ বাতাসের অণুর মধ্যে শতকরা ০.০২৮ শতাংশ ছিল কার্বন ডাই অক্সাইডের অণু৷ কিন্তু শিল্পায়নের ফলে সেই বাতাসে কার্বন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ বাড়ছে৷ কয়লা, তেল এবং গ্যাস জ্বালানি হিসেবে ব্যবহারের কারণে বাতাসের অণুর মধ্যে এখন কার্বন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ০.০৩৮ শতাংশে৷ বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, বাতাসে এই কার্বন নিঃসরণের মাত্রা দিন দিন আরও বেড়ে চলেছে৷ এই অবস্থাতে ফসিল ফুয়েল হিসেবে নয়, বরং কার্বনের বিকল্প ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তাই দিন দিন বেড়ে চলেছে৷

বর্তমান বিশ্বের রাসায়নিক শিল্প যেভাবে বেড়ে চলেছে তার অন্যতম উৎস হচ্ছে তেল৷ এছাড়া তুলনামূলক হালকা হওয়ার কারণে প্লাস্টিকের তৈরি জিনিসপত্রের পরিমাণও দিন দিন বাড়ছে৷ এই ক্ষেত্রে কার্বন ডাই অক্সাইড হতে পারে একটি নতুন সম্ভাবনা৷ কার্বন ডাই অক্সাইড অবশ্য শিল্পের ক্ষেত্রে অনেক দিন ধরেই ব্যবহৃত হয়ে আসছে৷ এক্ষেত্রে নাইট্রোজেন সমৃদ্ধ ইউরিয়া সার কিংবা অ্যাসপিরিনের কথা চলে আসতে পারে৷ তবে কার্বন ডাই অক্সাইডকে আরও বহুমাত্রায় ব্যবহারের নতুন একটি সম্ভাবনা তুলে ধরেছেন জার্মানির মিউনিখের টেকনিক্যাল ইউনিভার্সিটির প্রফেসর বেরনার্ড রিগার৷

জার্মান এই গবেষক এজন্য একটি নতুন ধরনের প্লাস্টিকের কথা বলছেন৷ এর নাম নাম পলিপ্রোপিলেন কার্বোনেট বা সংক্ষেপে পিপিসি৷ কার্বন ডাই অক্সাইড এবং প্রপিলেন অক্সাইডের মিলিত প্রতিক্রিয়ার ফল হিসেবে এই পিপিসি তৈরি হয়ে থাকে৷ প্রফেসর বেরনার্ড রিগার দেখিয়েছেন যে, কার্বন ডাই অক্সাইড ব্যবহার করে কীভাবে এই পিপিসিকে আরও বহুমাত্রিক এবং উন্নত পদ্ধতিতে কাজে লাগানো সম্ভব৷ যদিও এই পিপিসির সঙ্গে গবেষকরা বেশ কয়েক দশক আগে থেকেই পরিচিত হয়েছে, তবে এই রাসায়নিক প্রতিক্রিয়াকে নিয়ন্ত্রণ করার পদ্ধতিটি এতদিন ধরে অজানা ছিল৷ এবং সেই ক্ষেত্রেই সফল হয়েছেন জার্মান গবেষক রিগার৷ তিনি মনে করছেন, একদিন তেলের উৎস শেষ হয়ে যাবে৷ তাই সেই দিন আসার আগেই শিল্পোৎপাদনের জন্য নতুন একট বিকল্প উৎস খুঁজে বের করতে হবে৷ আর কার্বন ডাই অক্সাইড হতে পারে সেই নতুন উৎস৷

Gazprom Logo, E.ON Logo und BASF SE Logo. Eingestellt März 2010

গবেষকরা তাদের পরীক্ষায় ক্যাটালিসিস ব্যবহার করেছেন যেটা গাড়ির ক্যাটালিস্টের মত৷ ক্যাটালিস্ট যেভাবে গাড়ির গ্যাসকে তুলনামূলক কম ক্ষতিকর হিসেবে নিঃসরণে সহায়তা করে তেমনি ক্যাটালিসিসও কার্বন ডাই অক্সাইডের অনুগুলোর প্রতিক্রিয়াকে নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে তাদের ভিন্ন কোন পদার্থে পরিণত করতে সহায়তা করে৷

বিজ্ঞানীরা বলছেন, এই সূত্র অনুসরণ করে কার্বন ডাই অক্সাইডকে সিডি-র মত উন্নত পণ্যে পরিণত করা সম্ভব এবং তারা দেখেছেন যে ভিন্ন ধরণের ক্যাটালিসিস ব্যবহার করে কার্বন ডাই অক্সাইডের অনুগুলোর প্রতিক্রিয়াতেও ভিন্নতা আনা সম্ভব৷ প্রফেসর রিগার মনে করছেন যে এই ভাবে একাধিক ধরণের পলিপ্রোপিলেন কার্বোনেট প্লাস্টিক তৈরি করা সম্ভব৷ গবেষণাগারে যে পিপিসি তৈরি হচ্ছে তার শতকরা ৫০ ভাগই কার্বন ডাই অক্সাইড, তাই এই প্লাস্টিকে কোন ধরণের ভেজাল নেই৷

এই ব্যাপারে প্রফেসর রিগার বলেন, ‘‘আমি মনে করি কার্বন ডাই অক্সাইডকে মূল্যবান কাজে ব্যবহারের একটি ফলাফল রয়েছে৷ সেটা ওষুধ কিংবা পলিমারও হতে পারে৷ পলিমার তৈরিতে কার্বন ডাই অক্সাইড ব্যবহৃত হলে সেটাকে পণ্যেও রূপান্তর করা সম্ভব৷ এবং এক্ষেত্রে আমরা শুধু নতুন পলিমার তৈরিই করছি না, ক্যাটালিসিসকেও ব্যবহার করছি সম্পূর্ণ নতুনভাবে৷''

এক বছর আগে প্রফেসর রিগার জার্মানির বহুজাতিক রাসায়নিক কোম্পানি বিএএসএফ'এর সঙ্গে কাজ শুরু করেন৷ তারা এই প্লাস্টিককে বাজারে আনার জন্য ইতিমধ্যেই কাজ শুরু করেছে৷ ওষুধ কিংবা সিডি যেটাতেই হোক না কেন, কার্বন ডাই অক্সাইডকে ব্যবহার করে নতুন ধরণের প্লাস্টিক তৈরি অনেক কিছুই বদলে দিতে পারে বলে অনেকের ধারণা৷

প্রতিবেদন: রিয়াজুল ইসলাম

সম্পাদনা: আবদুল্লাহ আল-ফারূক

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়