1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

আফগানিস্তান

কাবুলে জার্মান দূতাবাসের কাছে বিস্ফোরণ

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে কূটনৈতিক এলাকায় মারাত্মক গাড়ি বোমা হামলা ঘটেছে৷ হতাহতদের সঠিক সংখ্যা এখনো জানা যায়নি৷

জার্মানি ও ভারত ছাড়াও অ্যামেরিকা ও ব্রিটেনের দূতাবাসও কাছাকাছি অবস্থিত৷ ন্যাটো মিশনও একই এলাকায়৷ প্রায় ১০ ফিট উঁচু বিস্ফোরণ-প্রতিরোধী প্রাচীর দিয়ে ঘেরা সেই ভবনগুলি৷ সেখানে প্রেসিডেন্টের প্রাসাদসহ আফগান সরকারের কয়েকটি মন্ত্রণালয় ভবনও রয়েছে৷ পুলিশ ও জাতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর তত্ত্বাবধানে নিরাপত্তার কড়াকড়ির ফলে শহরের সবচেয়ে ‘নিরাপদ' এলাকা হিসেবে পরিচিত ওয়াজির আকবর খান ডিসট্রিক্ট৷ ফ্রান্সের ইউরোপীয় বিষয়ের ভারপ্রাপ্ত মন্ত্রী মারিয়েল দ্য সারনে বলেছেন, বিস্ফোরণে ফরাসি ও জার্মান দূতাবাসের ক্ষতি হয়েছে৷ 

জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী সিগমার গাব্রিয়েল জানিয়েছেন, এই হামলায় জার্মান দূতাবাসের আফগান প্রহরী নিহত এবং বেশ কয়েকজন কর্মী আহত হয়েছেন৷ তবে আহতরা এখন নিরাপদে রয়েছেন৷ গাব্রিয়েল এই হামলার কড়া নিন্দা করেন৷ অবশ্য জার্মান দূতাবাস এই হামলার লক্ষ্য ছিল বলে তিনি মনে করেন না৷ শহরের পুলিশ কর্তৃপক্ষও তা মনে করে না৷ 

এমনই এক গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় বুধবার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে আটটা নাগাদ সম্ভবত এক আত্মাঘাতী ট্রাক বোমা হামলা ঘটেছে৷ সে সময়ে অসংখ্য মানুষ কাজে যোগ দিতে যাচ্ছিলেন৷ ফলে হতাহতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে৷ আফগান সরকারের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, কমপক্ষে ৬০ জন আহত হয়েছে৷ সংবাদ সংস্থা রয়টার্স-এর খবর অনুযায়ী, কমপক্ষে ৮০ জন নিহত ও অসংখ্য মানুষ আহত হয়েছে৷ রাস্তার উপর বেশ কিছু মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখা গেছে৷

এলাকার আকাশে কালো ধোঁয়া উঠে যেতে দেখা গেছে৷ হামলার কোনো নির্দিষ্ট লক্ষ্য ছিল কিনা, তা-ও স্পষ্ট নয়৷ কাছাকাছি সব রাস্তাঘাট বন্ধ করে করে দেওয়া হয়েছে৷ ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ জানিয়েছেন, ভারতীয় দূতাবাসের কর্মীদের কোনো ক্ষতি হয়নি৷

কোনো গোষ্ঠী এখনো পর্যন্ত হামলার দায় স্বীকার করেনি৷ তবে তালেবান বিদ্রোহীরা তাদের বাৎসরিক ‘বসন্ত অভিযান'চালাচ্ছে৷ ফলে তারাই এই হামলা চালিয়ে থাকতে পারে বলে কিছু মহল মনে করছে৷ অন্যদিকে আফগানিস্তানে মাথাচাড়া দিয়ে ওঠা তথাকথিত ইসলামিক স্টেট সম্প্রতি বেশ কয়েকট বোমা হামলার দায় স্বীকার করেছে৷

এসবি/এসিবি (রয়টার্স, ডিপিএ, এএফপি, এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়