1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

কান এর সেরা ছবি ম্যালিকের ‘দ্য ট্রি অব লাইফ’

কান চলচ্চিত্র উৎসবে এবার সেরা ছবি মার্কিন পরিচালক টেরেন্স ম্যালিকের পরিচালিত ‘দ্য ট্রি অব লাইফ৷’ ২০০৪ সালে মাইকেল মুরের ‘ফারেনহাইট নাইন ইলেভেন’ এর পর আবারও কান এ সেরা ছবির পুরস্কার গেল যুক্তরাষ্ট্রের কাছে৷

default

দ্য ট্রি অব লাইফ ছবির একটি দৃশ্য

এবার সেরা ছবির মনোনয়নের তালিকায় ছিল ২০টি ছবি৷ তার মধ্যে শেষ পর্যন্ত নয় সদস্যের জুরি বোর্ড বেছে নিলেন ম্যালিকের ‘দ্য ট্রি অব লাইফ' কে৷ ছবিটিতে অভিনয় করেছেন হলিউডের অস্কার বিজয়ী অভিনেতা শন পেন এবং ব্র্যাড পিট৷ বাবা এবং ছেলের ভূমিকায় এই দুজনের অভিনয় বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছে এবার৷ সেরা অভিনেতার পুরস্কার পেয়েছেন ফরাসী অভিনেতা জঁ ডুজারডা৷ ‘দ্য আর্টিস্ট' ছবিতে অভিনয় করে এবার জুরি বোর্ডের চোখে সেরা অভিনেতা তিনি৷ সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার গেছে হলিউড তারকা কার্স্টেন ডান্স্ট এর কাছে৷ ‘স্পাইডারম্যান' ছবির নায়িকা কার্স্টেন ডান্স্টকে নিশ্চয়ই আপনাদের মনে আছে৷ আলোচিত ড্যানিশ পরিচালক লার্স ফন ট্রিয়ার এর পরিচালিত ‘মেলাংকোলিয়া' ছবিতে অভিনয় করেন তিনি৷

Flash-Galerie Internationale Filmfestspiele von Cannes Preisverleihung 2011

সেরা অভিনেতা ও অভিনেত্রীর সঙ্গে জুরি প্যানেলের প্রধান রবার্ট ডি নিরো

পুরস্কার পেয়ে অবশ্য পরিচালককে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়েছেন ডান্সট, যদিও ট্রিয়ার সেখানে উপস্থিত ছিলেন না৷ কারণ কান চলচ্চিত্র উৎসবের ইতিহাসে প্রথমবারের মত নিষিদ্ধ হয়েছেন ট্রিয়ার৷ তার অপরাধ, দিন কয়েক আগে এক মন্তব্যে হিটলারকে সহানুভূতি জানানোর পাশাপাশি ইসরায়েলের ওপর বিষোদগার করেছেন ডেনমার্কের এই পরিচালক৷ সেই থেকে গোটা সিনেমা জগত মহাখাপ্পা লার্স ফন ট্রিয়ারের ওপর৷

এদিকে ‘দ্য ট্রি অব লাইফ' সেরা ছবির পুরস্কার পেলেও সেরা পরিচালকের পুরস্কার গেছে অবশ্য ট্রিয়ারের স্বদেশী পরিচালক নিকোলাস উইন্ডিং এর কাছে৷ ‘ড্রাইভ' ছবির অসাধারণ পরিচালনার পুরস্কার পেয়েছেন ডেনমার্কের পরিচালক উইন্ডিং৷

Terrence Malick

বরাবরই পর্দার আড়ালে থেকে গিয়েছেন প্রতিভাবান পরিচালক টেরেন্স ম্যালিক

তবে সেরা পরিচালকের পুরস্কার না পেলেও টেরেন্স ম্যালিকের কথা আবারও বলতে হয়৷ বরাবরই পর্দার আড়ালে থাকা অত্যন্ত প্রতিভাবান এই পরিচালক এবারও সেরা ছবির পুরস্কারের পর সাংবাদিকদের সামনে আসেননি৷ ১৯৭৩ সালে ছবি পরিচালনা শুরুর পর এখন পর্যন্ত মাত্র পাঁচটি ছবি পরিচালনা করেছেন মার্কিন পরিচালক ম্যালিক৷ ১৯৭৯ সালে নিজের দ্বিতীয় ছবি ‘ডেজ অব হ্যাভেন' দিয়েই কান চলচ্চিত্র উৎসবের সেরা পরিচালক নির্বাচিত হন তিনি৷ প্রায় দুই দশক পর তৃতীয় ছবিটি তৈরি করেন ম্যালিক৷ আর সেই ‘দ্য থিন রেড লাইন' ছবিটি একে একে সাতটি অস্কারের জন্য মনোনীত হয়৷ চতুর্থ ছবি ‘দ্য নিউ ওয়ার্ল্ড' মুক্তি পায় ২০০৫ সালে৷ আর এই বছর তার পঞ্চম ছবি ‘দ্য ট্রি অব লাইফ' জিতে নিল কান উৎসব৷

প্রতিবেদন: রিয়াজুল ইসলাম

সম্পাদনা: জাহিদুল হক

নির্বাচিত প্রতিবেদন