1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

কান'এ রাত-কি-রানি বলিউড

বিশ্বের বৃহত্তম চলচ্চিত্র উৎসবের প্রতিযোগিতা বিভাগে ভারতীয় ছবি চিরকালই বিরল৷ তাই শনিবার মধ্যরাত্রে দেখানো হল শেখর কাপুরের মন্তাজ ছবি, ‘বলিউড: দ্য ওয়ার্ল্ডস গ্রেটেস্ট লাভ স্টোরি'৷

default

বলিউডের রঙিন জগতের স্বাদ পাচ্ছেন কান’এর দর্শকরা

আইডিয়াটা এসেছিল উৎসব পরিচালক তিয়েরি ফ্রেমো'র মাথায়৷ এক বছর আগে তিনি চিত্রপরিচালক শেখর কাপুর'কে আইডিয়াটা দেন৷ কাপুর তখন কান'এ জুরির সদস্য৷ যোগাযোগটা হল এই: ফ্রেমো লন্ডনে ‘‘বম্বে ড্রিমস'' নামধারী মিউজিক্যালটি দেখতে গিয়েছিলেন৷ দর্শকরা শো চলার সময় অডিটোরিয়ামেই নাচছে দেখে ফ্রেমো মুগ্ধ৷ হবি তো হ', কাপুর আবার ঐ মিউজিক্যালের যুগ্ম-প্রযোজক৷

শেখর কাপুর পাক্কা এক বছর সময় নিয়ে তাঁর ৮১ মিনিটের ছবিটি কেটেছেন, ছিঁড়েছেন, জুড়েছেন৷ বলিউডের নাচনা-গানার জগৎ তো আছেই, সিক্তবসনা নায়িকার দু'মিনিটের বাধ্যতামূলক সিকোয়েন্সটিও বাদ যায়নি৷ শেখর স্বয়ং কি দেখাতে চেয়েছিলেন, সেটা তিনি একটি সাম্প্রতিক সাক্ষাৎকারে ব্যক্ত করেছেন: ১০০ কোটির বেশি মানুষ যে কেন বলিউড মার্কা ছবির প্রেমে পড়ে আছে, কান'এর দর্শকমণ্ডলীকে তিনি সেটাই দেখাতে চেয়েছিলেন৷

Flash-Galerie Internationale Filmfestspiele von Cannes 2010 Robin Hood Premiere

কান’এর গ্ল্যামার জগতে অপরিচিত নন শেখর কাপুর

দর্শকমণ্ডলী ঠিক কী ধারণা, এবং মেজাজ নিয়ে মাঝরাতে বলিউডের (সঙ্গে) প্রেমকাহিনী দেখতে এসেছিল, সেটা কল্পনা করা শক্ত৷ ফ্রেমো তাঁর উদ্বোধনী ভাষণে দর্শকদের বলেন: ‘‘ইচ্ছে করলে, ফিল্ম চলার সময়েই নাচতে পারেন৷'' যদ্দূর বোঝা গেছে, টাই কিংবা গাউন পরিহিত দর্শকরা অতোটা উদ্বেল হয়ে পড়েননি৷ যদিও এক দঙ্গল বলিউড ফিল্মস্টাররাও হাজির ছিলেন, এবং তাদের মধ্যে কয়েকজন মাঝরাতে, পূর্ণচন্দ্রের আলোয় রেড কার্পেটের ওপর দিয়ে নাচতে নাচতেই হলে ঢুকেছেন৷

তা না হলে বলিউড!

প্রতিবেদন: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

নির্বাচিত প্রতিবেদন