1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

কাতারের মতো মেলবোর্নকে ঘিরেও গরমের আতঙ্ক

তীব্র গরমে ২০২০ সালের ফুটবল বিশ্বকাপ কাতারে আয়োজন করা ঠিক হবে কিনা – এ বিতর্ক এখনো চলছে৷ এর মধ্যে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনেও দুশ্চিন্তা তীব্র গরম নিয়ে৷ তবে আয়োজকরা বলছেন, এখনো কেউ মারা যায়নি, তাই চিন্তার কিছু নেই৷

Novak Djokovic

নোভাক জোকোভিচ

মেলবোর্নে সোমবার থেকে শুরু হয়েছে বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্লাম টুর্নামেন্ট অস্ট্রেলিয়ান ওপেন৷ শুরুর দিন থেকেই কোর্টে সূর্যের তাপে পুড়ছেন খেলোয়াড়রা৷ নোভাক জোকোভিচ এবং সেরেনা উইলিয়ামস আসর শুরু করছেন জয় দিয়ে৷ তবে জয়-পরাজয়ের চেয়ে বড় হয়ে উঠেছে সুস্থ থাকার প্রশ্ন৷ আবহাওয়া পূর্বাভাষ বলছে, আগামী চারদিন মেলবোর্নের তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস বা তার চেয়ে বেশি থাকবে৷ এমন গরমে পানিস্বল্পতা কিংবা ‘হিট স্ট্রোক'-এ অনেকের অসুস্থ হয়ে পড়ার আশঙ্কা একেবারে উড়িয়ে দেয়া যায় না৷ কিন্তু অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের আয়োজকরা বলছেন, তাঁদের দেয়া পরামর্শ অনুযায়ী চললে খেলোয়াড়রা সুস্থ শরীর নিয়েই আসর শেষ করতে পারবেন৷

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের চিফ মেডিক্যাল অফিসার টিম উড খেলোয়াড়দের আশ্বস্ত করতে গিয়ে বলেছেন, ‘‘ফুটবল বা সারাক্ষণ দৌড়াতে হয় এমন অন্য খেলাগুলোর মধ্যে টেনিসে গরমে অসুস্থ হয়ে পড়ার ঝুঁকি কম৷''

BdT Wetter Australien Australian Open Hitze 46 Grad

গরম যেন কমছেই না....

টেনিসে তীব্র গরমের কারণে এখনো কোনো খেলোয়াড় মারা যাননি – এ কথা মনে করিয়ে দিয়ে তিনি বরং সুস্থ থাকার জন্য খেলোয়াড়দের অতিরিক্ত পান না করার পরামর্শ দিয়েছেন৷ তিনি বলেন, ‘‘অতিরিক্ত মদ্যপানের জন্য অতীতে আমরা অনেক খেলোয়াড়কে মৃত্যুর কাছাকাছি চলে যেতে দেখেছি৷ সুতরাং কম পান করে পানিস্বল্পতায় ভোগা নয়, বরং টেনিসে বড় বিপদ হলো বেশি পান করা৷''

টিম উড মনে করেন, মেলবোর্নে যে তাপমাত্রা খুব ওঠানামা করে এ বিষয়টি আসরের সব খেলোয়াড়েরই জানা আছে৷ সে কারণে একটু বুঝেশুনে চললে এবং আয়োজক কমিটি প্রত্যেক খেলোয়াড়কে গরমের ধকল সামলাতে যেসব পরামর্শ দিয়েছে সেগুলো মেনে চললে ভাবনার কিছু নেই৷

আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, মৌসুমের এ সময়টাতে মেলবোর্নের তাপমাত্রা ১৬ থেকে ৪২ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে ওঠানামা করতে পারে৷ তবে আগামী তিন দিনের মধ্যে তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রির নীচে নামার সম্ভাবনা নেই৷

এসিবি/ডিজি (এএফপি, এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন