1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

মধ্যপ্রাচ্য

কাতারের প্রতি সহানুভূতি দেখালে জেল-জরিমানা

আরব আমিরাতের নাগরিকদের উপর এই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে বলে জানিয়েছে আমিরাতের সংবাদপত্র গালফ নিউজ এবং প্যান-আরব চ্যানেল আল-অ্যারাবিয়া৷ সোমবার কাতারের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে আরব আমিরাতসহ কয়েকটি আরব রাষ্ট্র৷

আরব আমিরাতের অ্যাটর্নি জেনারেল হামাদ সাইফ আল-শামসিকে উদ্ধৃত করে গালফ নিউজ জানিয়েছে, ‘‘কাতারের প্রতি যে বা যারা সমবেদনা বা কোনো রকম পক্ষপাত দেখাবে, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে৷ সামাজিক মাধ্যমে হোক কিংবা লিখিত বা ভিডিও বা অন্য যেভাবেই হোক, আরব আমিরাতের সিদ্ধান্তের বাইরে গেলে জেল-জরিমানা করা হবে৷''

নিয়মভঙ্গকারীকে সর্বোচ্চ ১৫ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হতে পারে৷ আর জরিমানার পরিমাণ হতে পারে কমপক্ষে পাঁচ লক্ষ দিরহাম৷

সোমবার সৌদি আরব ও আরব আমিরাতসহ কয়েকটি দেশ কাতারের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্নের পর টুইটারে অনেককেই এই সিদ্ধান্তের পক্ষে-বিপক্ষে কথা বলতে দেখা গেছে৷ আরব বিশ্ব, বিশেষ করে সৌদি আরবে সামাজিক মাধ্যমগুলোর মধ্যে টুইটার বেশ জনপ্রিয়৷

প্রথমে প্রশংসা, পরে ঐক্যের কথা

কাতারের বিরুদ্ধে আরব রাষ্ট্রগুলো পদক্ষেপ নেয়ায় প্রথমে তাদের প্রশংসা করে মঙ্গলবার টুইট করেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প৷

অবশ্য পরে সৌদি আরবের বাদশার সঙ্গে টেলিফোনে আলাপ করেন ট্রাম্প৷ সেই সময় তিনি আরব রাষ্ট্রগুলোর মধ্যে ঐক্য প্রতিষ্ঠার ওপর জোর দিয়েছেন বলে হোয়াইট হাউসের এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে৷

রাশিয়ার হ্যাকাররা যুক্ত?

কাতারের রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত সংবাদ সংস্থায় প্রকাশিত একটি খবরকে কেন্দ্র করে গত মে মাসে উপসাগরীয় অঞ্চলের অন্য দেশগুলোর মধ্যে উত্তেজনা শুরু হয়৷ ঐ সংবাদে উপসাগরীয় নেতাদের সমালোচনার পাশাপাশি আঞ্চলিক শত্রু ইরানের সাথে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার আহ্বান জানানো হয়৷ বলা হয়, কাতারের সাথে ইসরায়েলের সম্পর্ক ভালো৷

মার্কিন টিভি চ্যানেল সিএনএন-এ কাতারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ বিন আব্দুল রহমান আল থানিকে উদ্ধৃত করে একটি সংবাদ প্রচারিত হয়েছে৷ সিএনএন বলছে, মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থাগুলো বিশ্বাস করে, রাশিয়ার হ্যাকাররা কাতারের সরকারি সংবাদ সংস্থায় ঐ খবর প্রকাশের জন্য দায়ী৷ তবে সাইবার নিরাপত্তা বিষয়ক ক্রেমলিনের উপদেষ্টা আন্দ্রেই ক্রুটশকিকের বরাত দিয়ে রুশ বার্তা সংস্থা ইন্টারফ্যাক্স জানিয়েছে, ঐ খবর প্রকাশের সঙ্গে রুশ হ্যাকারদের জড়িত থাকার কোনো প্রমাণ নেই৷

কুয়েতের আমিরের সৌদি আরব সফর

উত্তেজনা প্রশমনের লক্ষ্যে মঙ্গলবার সৌদি আরব সফর করেন কুয়েতের আমির শেখ সাবাহ আল-আহমেদ আল-জাবের আল-সাবাহ৷ সেখানে তিনি সৌদি আরবের বাদশাহর সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেন৷ এর আগে উত্তেজনা প্রশমনে মধ্যস্থতার আগ্রহ দেখিয়ে কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল-থানির সঙ্গে টেলিফোনে আলোচনা করেছিলেন তিনি৷ তবে সৌদি বাদশার সঙ্গে কুয়েতের আমিরের আলোচনার বিস্তারিত জানা যায়নি৷

জেডএইচ/এসিবি (ডিপিএ, রয়টার্স, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়