1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

কষ্টের জামা গায়েই বিদায় নিলেন উইন

মিয়ানমারে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে অং সান সুচির ঘনিষ্ঠ সহযোদ্ধা ছিলেন তিনি৷ কারাগারে ছিলেন দু’দশক৷ দেশে প্রকৃত গণতন্ত্র আসেনি বলে মুক্তির পরও নিজেকে মুক্ত ভাবেননি৷ কারাবন্দিদের নীল জামা পরেই চিরবিদায় নিলেন উইন টিন!

মিয়ানমারে সামরিক শাসন বিরোধী দীর্ঘ আন্দোলনের পুরোধা ব্যক্তিত্ব উইন টিন আর নেই৷ সোমবার ইয়াঙ্গনের এক হাসপাতালে যবনিকা নামে তাঁর ৮৪ বছরের আপোসহীন জীবনের৷ ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্র্যাসি (এনএলডি)-র এই অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা রাজনীতিতে আসার আগে ছিলেন বার্তা সংস্থা এএফপির সাংবাদিক৷ মিয়ানমার ব্রিটিশ উপনিবেশ থেকে মুক্ত হবার পর সাংবাদিকতার সূত্রেই দেশের রাজনীতিবিদদের সংস্পর্শে আসেন৷ ১৯৬২ সালে জেনারেল নে উইনের সামরিক শাসন শুরুর সময় উইন টিন ছিলেন নেদারল্যান্ডসে৷ কিন্তু গণতন্ত্রকে মুক্ত করার আন্দোলনে অংশ নিতে প্রবাস জীবনের ইতি টেনে ফিরে আসেন দেশে৷ জীবনাবসানের আগ পর্যন্ত দীর্ঘ কারাজীবনের অমানুষিক নির্যাতনও আন্দোলনের পথ থেকে সরাতে পারেনি তাঁকে৷

Myanmar Tageszeitung The Voice

উইন ছিলেন বার্তা সংস্থা এএফপির সাংবাদিক

‘গণতন্ত্রের মানসকন্যা' অং সান সুচির সঙ্গে থেকে ১৯৮৮ সালে ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্র্যাসি প্রতিষ্ঠা করেন উইন টিন৷ পরের বছরই গ্রেপ্তার করা হয় তাঁকে৷ শুরু হয় অকথ্য শারীরিক এবং মানসিক নির্যাতন৷ গত বছর এক সাক্ষাৎকারে মিয়ানমারের এই রাজনীতিবিদ জানান, কারাজীবনে কখনো কখনো টানা পাঁচ দিনও নির্যাতন সইতে হয়েছে তাঁকে৷ তারপরও সেই পাঁচ দিনে এক মুহূর্তের জন্যও চোখের পাতা এক করতে পারেননি৷ ২০১০ সালে সুচিকে মুক্তি দেয়ার মাধ্যমে মিয়ানমারে গণতন্ত্র ফিরিয়ে দেয়ার প্রক্রিয়া শুরু করে সামরিক জান্তা৷ সংসদ নির্বাচন, সুচির বিরোধী দলনেত্রীর ভূমিকায় মুক্ত রাজনীতিতে ফেরা – থেন সেইন সরকারের সময়ে এ সব পরিবর্তনকে ইতিবাচক দৃষ্টিতেই দেখছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা৷ কিন্তু উইন টিন কখনো নিজেকে কারামুক্ত ভাবতে পারেননি৷ তাঁর কখনো মনে হয়নি, গণতন্ত্রকামীদের মিয়ানমারে এখনো স্বাভাবিকভাবে মূলধারার রাজনীতি শুরু করার সময় এসেছে৷

২০১১ সালে ইয়াঙ্গনের ‘ইনসেইন' কারাগার থেকে মুক্তি পান উইন টিন৷ মু্ক্তির ঘোষণা শুনে বিশ্বাসই হয়নি৷ তাই কারাবন্দিদের নীল জামা পরেই বেরিয়ে এসেছিলেন তিনি৷ সেই পোশাক আর ছাড়েননি৷ মিয়ানমারের কারাগারে যতদিন একজন রাজনৈতিক বন্দিও থাকবে ততদিন নীল জামা ছাড়বেন না – এই ছিল তাঁর প্রতিজ্ঞা৷ বেদনার রং নাকি নীল৷ জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত রাজনৈতিক বন্দিদের প্রতি সহমর্মিতা জানাতে সেই নীল জামাই পরেছেন উইন টিন৷ সোমবার প্রিয় নেতার চিরবিদায়ের শোক সংবাদ জানানোর সময় তাঁর সহকারি ইয়ার জার বললেন, ‘‘তাঁকে হারিয়ে আমরা শোকাহত, মনে হচ্ছে পৃথিবীটাই বুঝি শেষ হয়ে গেল৷''

এসিবি/ডিজি (এএফপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়