1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

কলম্বিয়ায় বুলফাইটিং শিক্ষানবিশদের ধর্মঘট

কলম্বিয়ার রাজধানী বোগোটা শহরের বামপন্থি মেয়র গুস্তাভো পেত্রো বছর দু’য়েক আগে বুলফাইটিং নিষিদ্ধ করে দেন৷ গত দু’সপ্তাহ ধরে আটজন শিক্ষানবিশ বুলফাইটার সেই নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার দাবিতে অনশন ধর্মঘট করছেন৷

বুলফাইটিং কি, তা কাউকে বলে দেওয়ার প্রয়োজন পড়ে না৷ তবে বুলফাইটিং স্পোর্ট কিনা, তা নিয়ে বহুকাল যাবৎ বিতর্ক চলছে৷ স্রেফ আমোদ কিংবা মনোরঞ্জন কিংবা ক্রীড়াবিদ-সুলভ দক্ষতা-ক্ষিপ্রতা-শৈলী প্রদর্শনের জন্য কতোগুলো নিরীহ জীবের প্রাণ নেওয়া উচিত কিনা, তা'ই বা কে বলে দেবে? সব সত্ত্বেও বুলফাইটিং আধুনিক সভ্যতায় তার স্থান রাখতে পেরেছে - তবে কোনোক্রমে৷

স্পেনে বুলফাইটিং আজও জনপ্রিয়, তবে তা টেলিভিশনে দেখানো হয় না৷ স্পেনের ক্যাটালোনিয়া প্রদেশে বুলফাইটিং নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয়েছে৷ প্রতিবেশী দেশ পর্তুগালে বুলফাইটিং চলে, তবে রক্ত না ঝরিয়ে৷ দক্ষিণ অ্যামেরিকায় মেক্সিকো, ভেনেজুয়েলা, পেরু, কলম্বিয়ায় মরসুমে বুলফাইটিং হয়৷ ইকুয়েডরে ২০১১ সালের মে মাস যাবৎ শুধু রক্তবিহীন বুলফাইটিং অনুমোদিত৷

কলম্বিয়ার রাজধানী বোগোটার কেন্দ্রে যেখানে আগে বুলফাইটিং হতো, সেই ক্ল্যাসিক ডিজাইনের অ্যারেনা'টির নাম লা সান্তামারিয়া প্লাজা৷ দু'সপ্তাহ ধরে আটজন শিক্ষানবিশ বুলফাইটার ঐ অ্যারেনার সামনে শুধু লিকুইড ডায়েট খেয়ে অনশন ধর্মঘট চালাচ্ছেন৷ তাদের প্রতিবাদের লক্ষ্য হলেন বোগোটার মেয়র গুস্তাভো পেত্রো, যিনি ২০১১ সালের শেষে মেয়র পদে নির্বাচিত হবার পর পরই ঘোষণা করেছিলেন যে, লা সান্তামারিয়ায় আর বুলফাইটিং অনুষ্ঠিত হবে না - শুধুমাত্র অহিংস মনোরঞ্জনের ব্যবস্থা থাকবে৷ বলতে কি, অ্যারেনা'টি বহুদিন ধরেই গানের জলসা ও নাটক ইত্যাদি মঞ্চস্থ করার জন্য ব্যবহার করা হচ্ছে৷

অনশনে থাকা শিক্ষানবিশ বুলফাইটারদের বক্তব্য হলো, মেয়র পেত্রো'র দরুণ তারা সমাজে অপাংক্তেয় হয়ে পড়েছে, লোকজন তাদের - অর্থাৎ বুলফাইটারদের - একঘরে করেছে৷ এছাড়া এই শিক্ষানবিশরা প্রতি বুলফাইট অনুযায়ী ৩৩০ ডলারের কিছু বেশি পায়৷ বুলফাইট বন্ধ হওয়ার ফলে তাদের রোজগার কমেছে৷ ওদিকে যে কোম্পানিটি বোগোটায় বুলফাইটিং'এর আয়োজন করে থাকে, তাদের চুক্তি বাতিল করেছেন মেয়র পেত্রো৷ ফলে তারা কলম্বিয়ার সাংবিধানিক আদালতে মামলা করেছে এবং সেই মামলার রায় বের হতে আর বেশি দেরি নেই৷

সমস্যাটা শুধু মানবিক কিংবা ‘পশু অধিকার' সংক্রান্ত নয়, খানিকটা আর্থ-সামাজিকও বটে৷ লা সান্তামারিয়া ছাড়া বোগোটায় বুলফাইটিং অনুষ্ঠান করার মতো আর কোনো জায়গা নেই, কাজেই বুলফাইটিং'এর ভক্তদের অন্যান্য শহরে গিয়ে বুলফাইট দেখার সখ মেটাতে হচ্ছে৷ এই ভক্তদের অধিকাংশ আবার বোগোটা সমাজের উপরমহলের লোক, যাদের কাছে রবিবার দুপুরের ‘করিডা'-গুলো ছিল একটা বড় সামাজিক উপলক্ষ্য, পত্র-পত্রিকায় যার খবর ছাপা হতো৷ ১৮৯০ সাল যাবৎ বোগোটার করিডা'য় স্পেন থেকে আগত নামকরা বুলফাইটাররা তাদের কেরামতি দেখাচ্ছেন - কলম্বিয়ার অন্যান্য শহরও ট্যুর করে থাকেন তারা৷ কলম্বিয়ায় সব মিলিয়ে বছরে ১০০টি বুলফাইট অনুষ্ঠিত হয়৷

এসি/জেডএইচ (এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন