1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

কমনওয়েলথ গেমসে ভারতীয় খাবারের খোশবু

রাজধানী শহর নতুন দিল্লিতে এই অক্টোবরে অনুষ্ঠিতব্য কমনওয়েলথ গেমসকে ঘিরে একেবারে সাজ সাজ রব পড়ে গেছে৷ বাজার-সদাই থেকে শুরু করে ষোড়শ ব্যাঞ্জন সবকিছু নিয়েই নতুন দিল্লিতে একেবারে ধুন্ধুমার কান্ড চলছে৷ রীতিমত দক্ষযজ্ঞ আরকি!

Jawaharlal, Nehru, stadium, Commonwealth, Games, New Delhi, India, কমনওয়েলথ, গেমস, ভারত,

কমনওয়েলথ গেমসের অন্যতম ভেন্যু জওহর-লাল-নেহরু স্টেডিয়াম

কমনওয়েলথ গেমস উপলক্ষে শপিং সেন্টারগুলোর মূল্য হ্রাসের পসরা সাজিয়ে বসা, নানান কিসিমের প্যাকেজ ট্যুরের ঘোষণা তো ছিলোই, সম্প্রতি আরেকটি নতুন বিষয় যুক্ত হয়েছে এর সাথে৷ সেটি হচ্ছে - ভারতে এসে বিভিন্ন দেশের খেলোয়াড়রা যাতে লোভনীয় কাঠি কাবাব রোল, হরেক রকম পিঠে, পুলি, মায় স্যান্ডউইচ থেকে শুরু করে যাবতীয় জিভে জল আনা খাবার চাখতে পারেন - সেই আয়োজনেই ব্রতী হয়েছেন এই উৎসবের দায়িত্বপ্রাপ্ত সব খাবার সরবরাহকারীরা৷

যে কয়টি প্রতিষ্ঠান এবারের এই কমনওয়েলথ গেমস'এর খাবার সরবরাহের দায়িত্ব পেয়েছে, তাদের অন্যতম একটি প্রতিষ্ঠানের নাম - ‘গ্রাভিস হসপিটালিটি'৷ গ্রাভিসের প্রধান নির্বাহী রমণ মেহরা জানিয়েছেন, বিভিন্ন দেশের ক্রীড়াবিদরা ভারতে আসবেন অথচ ভারতীয় খাবার চাখবেন না! এর কোন মানেই হয় না৷ সে কারণেই আমরা বিভিন্ন দেশের এইসব খেলোয়াড়দের খাদ্যাভাস বিবেচনা করে এতে ভারতীয় স্বাদ আনার চেষ্টা করছি৷

মেহরা জানিয়েছেন, ভারতীয় স্বাদের সুবিশাল এক খাবারের ফর্দ বানিয়েছেন তারা৷ পুরো সপ্তাহ জুড়েই এই সুবিশাল খাদ্যতালিকা ঘুরে ঘুরে চাখতে পারবেন অভ্যাগত আমন্ত্রিতরা৷ অর্থাৎ, সবসময়ই বিভিন্ন দেশের এইসব অভ্যাগত ক্রীড়াবিদ এবং আমন্ত্রিতরা নতুন নতুন ভারতীয় স্বাদের জিভে জল আনা খাবার চাখার সুযোগ পাবেন৷

এই বিশাল খাদ্য সম্ভারের যে লাউঞ্জ, তা নাকি মোট ৮টি অংশে ভাগ করা হয়েছে৷ প্রায় ৬ কোটি ভারতীয় টাকায় যার দুটির দায়িত্ব পেয়েছে ‘গ্রাভিস হসপিটালিটি'৷ ১ কোটি ৭০ লক্ষ টাকা দিয়ে অপর আরেকটি প্রতিষ্ঠান ‘ইন্ডিয়ান রেলওয়ে ক্যাটারিং অ্যান্ড ট্যুরিজম কর্পোরেশন' বা আইআরসিটিসি পেয়েছে একটি অংশের দায়িত্ব এবং ৬ কোটি ২৯ লক্ষ টাকা দিয়ে বাকি ৫টি অংশ নিয়েছে ‘সেভেন সীজ' নামের একটি প্রতিষ্ঠান৷

বিভিন্ন দেশের মানুষ-জনের খাবারের স্বাদ এবং খাদ্যাভাস আলাদা হওয়ার কারণে রীতিমত ভারতীয় রন্ধন বিশেষজ্ঞদেরই দ্বারস্থ হয়েছেন এইসব খাদ্যের যোগানদাররা৷ আর এ কারণে নিজেদের বেশ আত্মবিশ্বাসীও মনে করছেন তাঁরা৷ কেননা এই রন্ধন বিশেষজ্ঞরা হচ্ছেন ৫ তারা হোটেলের সব নামি দামি শেফ, যাঁরা বিভিন্ন দেশের রকমারি রান্নায় অভিজ্ঞ এবং সুপটু৷ ‘‘এই কমনওয়েলথ গেমস উপলক্ষে সব রান্নারই দেখভাল করছেন ৫ তারা হোটেলের ডাকসাইটে সব শেফরা''৷ ‘সেভেন সীজ'এর এক কর্তাব্যক্তি সুমিত কাপুর এমনটিই জানিয়েছেন৷

তো আয়োজনের এই সাজ সাজ রব শুনে বোঝাই যাচ্ছে অক্টোবরে অনুষ্ঠিতব্য এই কমনওয়েলথ গেমসে ম ম করবে জিভে জল আনা সব ভারতীয় খাবারের খোশবু৷ খাদ্যরসিকরা তো বটেই, চাইলে আপনিও কিন্তু হাজির হতে পারেন সেখানে৷ চেখে দেখতে পারেন সেই লোভনীয় কাঠি কাবাব রোল থেকে শুরু শতেক উপাদেয় জিভে জল আনা রকমারি সব ভারতীয় খাবার৷

প্রতিবেদন: হুমায়ূন রেজা

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন