1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

কন্যার নাম ফেসবুক!

ফেসবুক নামে কতকিছুই না আছে৷ ফেসবুক ডটকম, ফেসবুক ফুডশপ, ফেসবুক চটপটি এমনকি ফেসবুক বিরতিহীন (বাস সেবা)৷ কিন্তু নাম? না, আগে কখনো শুনিনি এমনটা৷ শুনিনি বলে যে, এমনটা হবে না তাতো আর হতে পারে না!

default

মিশরীয়দের সমর্থন ফেসবুক পাতা (ফাইল ফটো)

এই দেখুন না, সম্প্রতি মিশরীয় এক কন্যার নাম রাখা হয়েছে ফেসবুক৷ পুরো নাম ফেসবুক জামাল ইব্রাহিম৷ এই খবর এখন নানা দেশের সংবাদ শিরোনামে৷ কেন? এত নাম থাকতে ফেসবুক কেন? ফেসবুকের বাবা মিশরের এক সংবাদপত্রকে জানিয়েছেন, জানুয়ারির ২৫ তারিখে শুরু হওয়া সেদেশের সরকারবিরোধী গণআন্দোলনে বড় ভূমিকা রাখে ফেসবুক৷ সেই আন্দোলনে সফল হয়েছে, মুবারক গদি ছেড়েছেন৷ ইন্টারনেটে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুককে তাই সম্মান জানাতে চান মিশরীয় এই বাবা৷

এজন্য কন্যা জন্মের পর তাকে ঘিরে দাঁড়ান পরিবারের সদস্যরা৷ এরপর সবার সম্মতিতে কন্যার নাম রাখা হয় ফেসবুক৷ ইতিমধ্যে নবজন্মা ফেসবুক অনেক উপহার পেয়েছেন মিশরের তরুণদের কাছ থেকে, বিশেষ করে যারা মুবারক বিরোধী আন্দোলনে শরিক হয়েছিলেন৷ অনেকে ফেসবুক নাম শুনে উচ্ছ্বাস করেছেন, জানিয়েছেন এটাই সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুককে সম্মান জানানোর সবচেয়ে ভালো উপায়৷

Wael Ghonim Screenshot youtube Flash-Galerie

ওয়ায়েল গনিম

বলাবাহুল্য, মিশরের গণআন্দোলনে বড় ভূমিকা রাখে সামাজিক যোগাযোগ সংস্থা ফেসবুক৷ অনেকেই মনে করেন, এই আন্দোলনের সূতাকাগার ছিল একটি ফেসবুক পাতা, যেটা তৈরি করেছিলেন ওয়ায়েল গনিম৷ এছাড়া সেদেশে সরকার বিরোধী গণআন্দোলন চলাকালে, টুইটারেও বিশেষ ব্যবস্থায় আন্দোলনের খবর প্রচার করা হয়৷

উল্লেখ্য, মিশরে গত কয়েকমাসে ফেসবুক ব্যবহারকারীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে পঞ্চাশ লাখের মতো৷ মধ্যপ্রাচ্যের অন্য যেকোন দেশের তুলনায় মিশরে সামাজিক যোগাযোগ ব্যবহারকারীর সংখ্যা বেশি৷

প্রতিবেদন: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়