1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

কংগ্রেস-তৃণমূল জোটের জটিলতা কাটলো না

পশ্চিমবঙ্গের আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেস-তৃণমূল জোটের জট আটকে রয়েছে, যেহেতু আসন রফা নিয়ে দর কষাকষি শেষ হয়নি৷ গতকালও কংগ্রেস ও তৃণমূল কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্বের মধ্যে আলোচনা হয়, কিন্তু চূড়ান্ত সমঝোতা হয়নি৷

default

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (ফাইল ছবি)

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা ভোটে কংগ্রেস ও তৃণমূল কংগ্রেসের মধ্যে আসন-রফা নিয়ে গত ৩/৪ দিন ধরে রাজ্য ও সর্বভারতীয় স্তরে দফায় দফায় আলোচনা হয়৷ কিন্তু চুড়ান্ত সমাধান সূত্র বেরিয়ে আসেনি৷ তবে মতবিরোধ অনেকটাই কমেছে৷ সফল জোট গড়তে গেলে আসন বণ্টনের ক্ষেত্রে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে যেমন কিছু বেশি আসন কংগ্রেসকে ছাড়তে হবে, তেমনি কংগ্রেসকে তাদের আসন সংখ্যার প্রাথমিক দাবি থেকে নেমে আসতে হবে৷ সর্বশেষ পরিস্থিতি অনুযায়ী, বিরোধটা এখন দাঁড়িয়েছে আসনের গুণমান নিয়ে৷ অর্থাৎ যেসব আসনে যে দলের জয় প্রায় নিশ্চিত, সেইসব আসন কোন দল হাতছাড়া করতে নারাজ৷ গতকাল কংগ্রেসের প্রণব মুখোপাধ্যায় এবং তৃণমূলের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মধ্যে আলোচনায় তৃণমূল ৫৮টি আসন থেকে বাড়িয়ে গতকাল কংগ্রেসকে ৬৮টি আসন দিতে রাজি হয়৷ কংগ্রেস ৯৮টি আসনের দাবি থেকে ৭০এ নেমে আসে৷ আলোচনা শেষে প্রণব মুখোপাধ্যায় জানান, আলোচনা আরো হবে৷ কবে হবে জানাননি৷

২০০৬-এর বিধানসভা ভোটে যেসব আসনে কংগ্রেস জিতেছিল এবারেও সেইসব আসনে প্রার্থী দিতে চায় কংগ্রেস৷ যেমন কলকাতা বন্দর ও মেটিয়াবুরুজ আসন৷ নির্বাচনী পর্যবেক্ষকদের মতে আসন রফা নিয়ে দড়ি টানাটানি চলতে পারে, তবে দেখতে হবে দড়িটা যেন ছিঁড়ে না যায়৷ ছিঁড়ে যাতে না যায়, সেবিষয়ে উভয় দলের দৃষ্টিভঙ্গি মোটামুটি ইতিবাচক৷ তবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন আজকালের মধ্যে ফয়সালা না হলে তৃণমূল প্রার্থীদের প্রথম তালিকা বৃহস্পতিবার প্রকাশ করা হতে পারে৷

তৃণমূল সংসদীয় দলের নেতা সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় আসন সমঝোতার ফর্মুলা সম্পর্কে ডয়চে ভেলেকে বলেন, ফর্মুলা নয়, দলের মধ্যে আলোচনা করে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তিনি মনে করেন, যেসব আসনে তৃণমূলের জয়ের সম্ভাবনা আছে, সেসব আসন তৃণমূল ছাড়তে পারেনা৷ তবে আসন নিয়ে এমন কোন তিক্ততা সৃষ্টি হয়নি, যা নেতিবাচক সিগন্যাল মনে হতে পারে৷ কংগ্রেসের ডাকাবুকো সাংসদ অধীর চৌধুরী ডয়চে ভেলেকে জানালেন, কংগ্রেস একটা ফর্মুলায় আসতে চাইছে৷ যেমন কংগ্রেস শুরুতে চেয়েছিল এক-তৃতীয়াংশ আসন এবং তার মধ্যে থাকবে কোয়ালিটি মানে ইতিবাচক আসন৷ যেমন উত্তরবঙ্গ কংগ্রেসের ভোটের জমি উর্বর৷ তৃণমূল যদি উত্তরবঙ্গের ভাগ চায় কংগ্রেসও চাইবে দক্ষিণবঙ্গে৷ মোটকথা রফা হবে মিলেমিশে ৷

পশ্চিমবঙ্গে ৬-দফা ভোটের প্রথম দফায় ৫৪টি আসনে ভোট ১৮ই এপ্রিল৷

প্রতিবেদন: অনিল চট্টোপাধ্যায়, নতুনদিল্লি

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়