1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ওয়াল স্ট্রীট গ্রিসের আর্থিক সঙ্কট বাড়িয়েছে

নিউ ইয়র্ক টাইমস পত্রিকার বিবরণ অনুযায়ী ওয়াল স্ট্রীটের চাতুর্য্য গ্রিসকে তার ঋণের পরিমাণ ঢাকতে সাহায্য করেছে৷ মার্কিন বাড়ি বন্ধকী বাজারের কায়দায় গ্রিসকে টাকা ধার দিয়েছে বিভিন্ন ব্যাঙ্ক৷

default

নিউ ইয়র্কে গোল্ডম্যান স্যাক্সের অফিসবাড়ি

নিউ ইয়র্ক টাইমস পত্রিকার বিবরণ অনুযায়ী ওয়াল স্ট্রীটের চাতুর্য্য গ্রিসকে তার ঋণের পরিমাণ ঢাকতে সাহায্য করেছে৷ মার্কিন বাড়ি বন্ধকী বাজারের কায়দায় গ্রিসকে টাকা ধার দিয়েছে বিভিন্ন ব্যাঙ্ক, খাতাপত্রে যা অন্যভাবে দেখানো হয়েছে

ইউরো মুদ্রা এলাকায় যোগদানের একটি মূল শর্ত হল, বাজেট ঘাটতি একটা বিশেষ সীমার মধ্যে রাখতে হবে৷ এবং এই শর্তটি নিয়ে গ্রিস কি ইটালির মতো দেশগুলির সমস্যা আজকের নয়৷ বছর দশেক ধরেই মার্কিন ব্যাঙ্কগুলি উদাহরণস্বরূপ গ্রিসকে তার বাস্তব ঘাটতি ঢাকতে সাহায্য করে আসছে৷ ২০০১ সালে গ্রিস ইউরো এলাকায় যোগদান করে৷ তার ঠিক পরেই মার্কিন গোল্ডম্যান স্যাক্স সংস্থা গ্রিক সরকারের জন্য বেশ কয়েক বিলিয়ন ডলার ঋণের ব্যবস্থা করে - অবশ্যই ৩০০ মিলিয়ন ডলারের মোটা কমিশনে৷ অথচ গোটা লেনদেনটিকে মুদ্রা বাণিজ্য হিসেবে দেখানো হয়, ঋণ হিসেবে না দেখিয়ে৷ ফলে গ্রিক সরকার বাজেট ঘাটতি ইউরো সীমার মধ্যে রেখেই দরাজ হাতে খরচ চালিয়ে যেতে পারেন৷ ২০০১ সালে যে আইনত পুরোপুরি বৈধ আর্থিক জাদুকরীর ফলে গ্রিস হাঁফ ছড়ার সুযোগ পায়, তার নাম রাখা হয়েছিল ‘এওলস', গ্রিক পুরাণে বাতাসের দেবতা৷ বস্তুত গ্রিক সরকার গ্রিসের বিমানবন্দরগুলিতে বিমানের ওঠানামার ফি'র স্বত্ব বহু বছর অবধি বেচে দিয়ে নগদ টাকা হাতে পান৷ ২০০০ সালে ‘আরিয়াডনে' নামধারী একটি অনুরূপ ‘ডেরিভেটিভ'-এ গ্রিক সরকার জাতীয় লটারি থেকে সংগৃহীত করের স্বত্ব বেচে দেন৷

ইউরোপের ঋণ সঙ্কট ওয়াল স্ট্রীটের সৃষ্ট নয়

মজার কথা, এবার যখন গ্রিসের আর্থিক সঙ্কটের কথা ফাঁস হতে চলেছে, তখনও ব্যাঙ্কগুলি গ্রিসকে পূর্বাপর ‘শেষের সে দিন ভয়ঙ্কর' পিছিয়ে দেবার পন্থা দেখিয়েছে৷ যেমন মাত্র গত নভেম্বরে নাকি গোল্ডম্যান স্যাক্স থেকে একদল ব্যাঙ্কার এথেন্সে আসেন একটি অত্যাধুনিক প্রস্তাব নিয়ে৷ ব্যাঙ্কারদের পুরোভাগে ছিলেন গোল্ডম্যান স্যাক্সের চেয়ারম্যান গ্যারি কোন৷ গ্রিস এবার তাদের প্রস্তাবে সাড়া দেয়নি৷ - কিন্তু সাধারণভাবে সমস্যাটা এই যে, গোল্ডম্যান স্যাক্স, জে পি মর্গান চেজ ইত্যাদি ব্যাঙ্কগুলি গ্রিস এবং ইটালির মতো দেশে রাজনীতিকদের মাত্রাতিরিক্ত ঋণের সুযোগ এনে দিয়েছে৷ সারা ইউরোপ জুড়ে বিভিন্ন লেনদেনে সরকাররা ভবিষ্যৎ পেমেন্টের পরিবর্তে বর্তমানে নগদ টাকা হাতে পেয়েছেন৷

এটাও বলা দরকার যে, ইউরোপের ঋণ সঙ্কট ওয়াল স্ট্রীটের সৃষ্ট নয়, যদিও ওয়াল স্ট্রীট এই তথাকথিত ‘সার্বভৌম' ঋণ থেকে লাভবান হয়েছে৷ নয়তো, ওয়াল স্ট্রীটের এক বিশেষজ্ঞের ভাষায়, ‘সরকাররা যদি জুয়াচুরি করতে চান, তবে তাঁরা জুয়াচুরি করতে পারেন৷' তবুও, ইউরো এলাকায় মার্কিন কায়দায় সাবপ্রাইম সঙ্কটের সম্ভাবনা থেকেই যাচ্ছে - তফাৎ শুধু এই, একক বাড়ী বন্ধকীদের পরিবর্তে এবার সব খোয়াতে পারে এক একটি আস্ত দেশ৷ এবং সেই সঙ্গে ইউরোর স্থায়িত্ব নিয়েও টান পড়তে পারে৷

প্রতিবেদক: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সম্পাদনা: জাহিদুল হক

সংশ্লিষ্ট বিষয়