1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

ওসাকা এশীয় চলচ্চিত্র উৎসবে বাংলা ছবি ‘তখন তেইশ’

ফেসবুক প্রতিষ্ঠার গল্প নিয়ে তৈরি ছবি ‘দ্য সোশ্যাল নেটওয়ার্ক’ গোল্ডেন গ্লোব জয়ের পর এবার সামাজিক যোগাযোগের নেটওয়ার্ক নিয়ে তৈরি বাংলা ছবি যাচ্ছে ওসাকা এশীয় চলচ্চিত্র উৎসবে৷ ছবির নাম ‘তখন তেইশ’৷

Computer, monitor, Logo, Internet, Networks, Xing, Facebook, MySpace, ওসাকা, এশীয়, চলচ্চিত্র, উৎসব, বাংলা, ছবি, ‘তখন তেইশ’

৫ থেকে ১৩ মার্চ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ওসাকা চলচ্চিত্র উৎসব৷ এবারের উৎসবে ব্যাপক সাফল্যের স্বপ্ন নিয়ে হাজির হচ্ছে ভারতীয় তরুণ পরিচালক অতনু ঘোষের ছবি ‘তখন তেইশ'৷ নগর সভ্যতায় বেড়ে ওঠা ইন্টারনেট পাগল তরুণ প্রজন্মের মনোজগতের বিশ্লেষণ করা হয়েছে এই বাংলা ছবিতে৷ ছবির পটভূমি সম্পর্কে পরিচালক ঘোষ জানান, ‘‘ছবিটির অন্যতম প্রধান চরিত্র শ্রীপর্ণা ইন্টারনেটের মাধ্যমে বিভিন্ন বয়সের অনেক মানুষকে বন্ধু বানায়৷ এরপর এসব বন্ধুদের ভালো, খারাপ, মজাদার এবং অদ্ভুত - এই চার শ্রেণীতে ভাগ করে সে৷''

কাহিনীর অধিকাংশ জায়গা জুড়ে রয়েছে তমোদীপের ২৩ বছর বয়সের নানা ঘটনা৷ সেসময় তার জগতের প্রায় সবটুকু জুড়ে ছিল ফেসবুক বন্ধু শ্রীপর্ণা আর মোহিনীর মতো নারী চরিত্রগুলো৷ কল্পনা, আবেগ এবং রোমান্টিসিজম ঘিরে গড়ে উঠেছে ‘তখন তেইশ' ছবিটির অবয়ব৷ অতীত, বর্তমান আর ভবিষ্যৎ - সময়ের এই তিনটি ধাপে সীমানাবিহীন বিচরণ দেখা গেছে ঘোষের এই ছবিতে৷ তবে মূল ঘটনার ধারা বেশ সোজা সাপ্টা, বললেন ঘোষ৷

যাহোক, অতনু ঘোষের প্রথম ফিল্ম ‘অংশুমানের ছবি'৷ বেস্ট ডেবু ফিল্ম হিসেবে ‘অরবিন্দম পুরস্কারম' পেয়েছিল তাঁর প্রথম সৃষ্টি৷ ঘোষ তৃতীয় ছবিতে নিয়ে আসছেন একটি প্রেম কাহিনী৷ হলিউডের ছবি ‘দ্য সোশ্যাল নেটওয়ার্ক' ছবিটির সাথে তাঁর ‘তখন তেইশ' এর বিষয়গত কিছুটা সাদৃশ্য কাকতালীয় বলে উল্লেখ করেন তিনি৷ তাছাড়া ইন্টারনেট ভিত্তিক সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে তরুণ প্রজন্মের বিচরণ এবং ‘সম্পর্ক' নিয়ে তাদের নতুন দৃষ্টিভঙ্গি উঠে এসেছে ঘোষের এই দ্বিতীয় ছবিতে৷

প্রতিবেদন: হোসাইন আব্দুল হাই

সম্পাদনা: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী