এসপিডি দলে অসন্তোষ, জার্মানিতে সরকার গঠনের সম্ভাবনায় কালো ছায়া | বিশ্ব | DW | 15.01.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি

এসপিডি দলে অসন্তোষ, জার্মানিতে সরকার গঠনের সম্ভাবনায় কালো ছায়া

জার্মানিতে মহাজোট সরকার গঠন সংক্রান্ত আনুষ্ঠানিক আলোচনার আগেই সম্ভাব্য ছোট শরিক এসপিডি দলের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে৷ ফলে সরকার গঠনের সম্ভাবনা আবার কিছুটা প্রশ্নের মুখে পড়লো৷

জার্মানিতে অবশেষে সরকার গঠন করার পথে কিছুটা আশার আলো দেখা গেলেও আবার কিছুটা অনিশ্চয়তা সৃষ্টি হয়েছে৷ এসপিডি দল জোট গঠন নিয়ে আলোচনা শুরু করতে ইউনিয়ন শিবিরের সঙ্গে বোঝাপড়ায় এলেও দলের মধ্যে সেই বোঝাপড়া নিয়ে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে৷ কিছু অংশ নতুন করে বোঝাপড়ার দাবিও জানাচ্ছে৷ আগামী সপ্তাহান্তে দলীয় সম্মেলনে সেই অসন্তোষ বড় আকার ধারণ করলে এসপিডি নেতা মার্টিন শুলৎস অত্যন্ত অস্বস্তিকর অবস্থায় পড়বেন৷ দলের সদস্যরা মহাজোটে যোগদানের বিপক্ষে রায় দিলে তাঁর রাজনৈতিক জীবন কার্যত শেষ হয়ে যাবে বলেও কিছু মহল মনে করছে৷ শুধু শুলৎস নন, দলের গোটা নেতৃত্বের ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত হয়ে পড়তে পারে৷ দলের বিক্ষুব্ধ অংশের প্রতি তাঁদের বার্তা হলো, জোট গঠন করার লক্ষ্যে প্রাথমিক বোঝাপড়া হয়েছে মাত্র৷ দলের সবুজ সংকেত পেলে সরকার গড়তে আসল আলোচনা শুরু হবে৷ সেখানে যথেষ্ট দর কষাকষির অবকাশ রয়েছে৷

চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেলের ইউনিয়ন শিবির এসপিডি দলের মধ্যে এমন অসন্তোষ নিয়ে অত্যন্ত বিরক্তি প্রকাশ করেছে৷ সিডিইউ ও সিএসইউ দলের একাধিক নেতা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, দুই পক্ষের নেতারা মিলে যে আনুষ্ঠানিক বোঝাপড়ায় এসেছেন, সেটাই চূড়ান্ত৷ এসপিডি দলকে তার ভিত্তিতেই জোট গঠন সংক্রান্ত আলোচনায় যোগ দিতে হবে৷ নতুন করে দর কষাকষির কোনো অবকাশ নেই৷ তাঁরা এসপিডি দলের বিক্ষুব্ধ নেতাদের আরও মনে করিয়ে দিয়েছেন যে, সরকার গড়ার সম্ভাবনা উজ্জ্বল করতে ইউনিয়ন শিবিরকেও অনেক ছাড় দিতে হয়েছে৷ এসপিডি দলকে সতর্ক করে দিয়ে সিডিইউ নেত্রী উরুসুলা ফন ডেয়ার লাইয়েন বলেছেন, স্থিতিশীল সরকার গড়তে নির্ভরযোগ্য সহযোগীর প্রয়োজন৷

গত নির্বাচনে ঐতিহাসিক বিপর্যয়ের পর জার্মানির এসপিডি দলের নেতা মার্টিন শুলৎস আরও একবার মহাজোট সরকারে যোগ দেবার সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়েছিলেন৷ কিন্তু দেশের স্থিতিশীলতার স্বার্থে তিনি শেষ পর্যন্ত আবার ইউনিয়ন শিবিরের সঙ্গে আলোচনা করতে রাজি হন৷ তবে বিশেষ করে তরুণ নেতারা এখনো মহাজোটের বিরোধিতা করে চলেছেন৷ ফলে আগামী রবিবার বন শহরে এসপিডি সম্মেলনে এ বিষয়ে তুমুল তর্ক-বিতর্ক হবে বলে অনুমান করা হচ্ছে৷

এসবি/এসিবি (ডিপিএ, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়