1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

এশিয়ান কাপ শুরু, প্রথম খেলায় হারল কাতার

১৫তম এশিয়ান কাপ-এর আসর শুরু হলো শুক্রবার৷ কাতারের রাজধানী দোহার খলিফা স্টেডিয়ামে সংক্ষিপ্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে এশিয়ার ফুটবল আসর৷ উদ্বোধনী খেলায় উজবেকিস্তানের কাছে স্বাগতিকদের হার৷

কাতার, গোল, উজবেকিস্তান, জাতীয়, দল, খেলোয়াড়, ডিয়েপারভ, উল্লাস, Uzbekistan, national, soccer, player, Djeparov, goal, Qatar, AFC, Asian, Cup, group A, match, Khalifa, Stadium, Doha, Qatar, Asian, Cup,

কাতারের বিরুদ্ধে গোল করার পর উজবেকিস্তানের জাতীয় দলের খেলোয়াড় ডিয়েপারভ-এর উল্লাস

এবারের আসরে অংশ গ্রহণকারী ১৬ জাতির প্রতিনিধিরা নিজ দেশের পতাকা নিয়ে নাচের তালে তালে হাজির হন জনাকীর্ণ স্টেডিয়ামের সবুজ চত্বরে৷ ৪০ হাজার আসনের স্টেডিয়ামের গ্যালারি ছিল কানায় কানায় পূর্ণ৷ ছিল উপভোগ্য আলোকসজ্জার বাহার৷ এছাড়া নন্দনীয় আতশবাজি দেখেছে গোটা নগরবাসী৷ এশিয়ান কাপের আগের আসরগুলোতে স্বাগতিক দেশের জাতীয় সংগীত পরিবেশন করতেন কোন একক শিল্পী কিংবা গোষ্ঠী৷ তবে এবার সেটাতে পরিবর্তন আনা হয়৷ স্বাগতিক দেশ কাতারের জাতীয় সংগীত গেয়েছে গোটা স্টেডিয়ামে উপস্থিত ক্রীড়ামোদী জনতা৷

যাহোক, এশিয়ান কাপ শুরু হলো স্বাগতিকদের হতাশা দিয়ে৷ উদ্বোধনী খেলায় উজবেকিস্তানের কাছে ২-০ গোলে হেরেছে কাতার৷ ফলে গ্রুপ এ'র সীমানা পেরিয়ে সামনে এগুনো হয়তো সম্ভব হবে না স্বাগতিকদের পক্ষে৷ এই গ্রুপেই রয়েছে চীন এবং কুয়েত৷ প্রথম খেলায় হেরে একরাশ কষ্ট ঝরে পড়ল কোচ ব্রুনো মেটসুর কণ্ঠ থেকে৷ বললেন, ‘‘আমাদের দলের জন্য এটা খুব খারাপ শুরু৷ আমরা আরো ভালোভাবে খেলতে চেয়েছিলাম এবং ভক্তদের জন্য আমরা জয় পেতে চেয়েছিলাম৷ এটা গুরুত্বপূর্ণ নয় যে, এই খেলা আমার কাছে কী অর্থ বহন করে৷ বরং কাতারের মানুষ এটিকে কেমনভাবে দেখেন সেটাই বেশি গুরুত্বপূর্ণ৷ তাই তাদের জন্যই আমরা জিততে চেয়েছিলাম৷''

অনেকটা মেটসুর সুরেই কথা বলেছেন বিজয়ী দলের কোচ ভাডিম আব্রামভ৷ তিনি বলেন, ‘‘যদিও এই জয়ের মধ্য দিয়ে মাত্র তিন পয়েন্ট পেলাম আমরা, যা তেমন কিছুই নয়৷ তবুও এই জয়ে আমি খুশি৷ কিন্তু একইসাথে কাতারের জনগণের জন্য আমারও খারাপ লাগছে৷ কারণ তাদের জন্য এটা বেশ উল্লাসের কারণ হতে পারতো, কিন্তু শেষ পর্যন্ত তারা হেরে গেল৷ অবশ্য তাদের জন্য দ্বিতীয় রাউন্ডে যাওয়ার সুযোগ এখনও রয়েছে৷'' তবে প্রতিযোগিতার দৌড়ে থাকতে হলে স্বাগতিকদের গ্রুপে থাকা চীন ও কুয়েত দুই দলের বিরুদ্ধেই জিততে হবে৷

‘২০২২ সালের আসর জানুয়ারি মাসে হতে পারে'

এদিকে, ২০২২ সালের বিশ্বকাপ ফুটবল আসর জানুয়ারি মাসে হতে পারে বলে মন্তব্য করলেন স্বয়ং ফিফা প্রধান সেপ ব্লাটার৷ দোহায় এশিয়ান কাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন ব্লাটার৷ সেখানে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘‘বিষয়টি নিয়ে ভাবার জন্য এখনও সময় রয়েছে৷ কারণ আরো ১১ বছর পর অনুষ্ঠিত হবে সেই আসর৷ তবুও একটি সফল বিশ্বকাপ আসরের জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত সময়টিই বেছে নিতে হবে, যা জানুয়ারি কিংবা বছরের শেষ সময়টা হতে পারে৷''

উল্লেখ্য, এতোদিন পর্যন্ত বিশ্বকাপ ফুটবলের আসর জুন এবং জুলাই মাসে অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে৷ কিন্তু মরুর দেশ কাতারে সেসময় তাপমাত্রা ৫০ ডিগ্রি পর্যন্ত উঠতে পারে৷ তাই ২০২২ সালের আসরের সময়টা পাল্টানো যায় কি না এ'নিয়ে বেশ মন্তব্য শোনা যাচ্ছে ফুটবল বোদ্ধাদের কাছ থেকে৷ এই প্রেক্ষিতেই বিষয়টা নিয়ে ইঙ্গিত দিলেন ফিফা প্রধান৷

প্রতিবেদন: হোসাইন আব্দুল হাই

সম্পাদনা: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

নির্বাচিত প্রতিবেদন