1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

পাঠক ভাবনা

‘‘এমপিদের মতো বানিয়ে নিলেই পারতো''

উপজেলা নির্বাচনের দ্বিতীয় পর্বে বিভিন্ন স্থানে ভোটকেন্দ্র দখলের ‘মহোৎসব' চলেছে বলে বিএনপির করা অভিযোগের ব্যাপারে মতামত জানিয়েছেন ডয়চে ভেলের পাঠকরা৷

ডয়চে ভেলের বাংলার ফেসবুক পাতায় পাঠকদের মত জানতে চেয়ে একটি পোস্ট দেয়া হয়৷ সেখানে বিএনপির অভিযোগের পক্ষে-বিপক্ষে বেশ কিছু মন্তব্য এসেছে৷

অনেক পাঠক তাঁর এলাকার ভোটের পরিবেশ নিয়েও মন্তব্য করেছেন৷ যেমন সাদ্দাম হোসেন হৃদয় লিখেছেন, ‘‘কেরানীগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের হাসনাবাদ ভোটকেন্দ্রে সহিংসতা হইছে৷ আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রাথীরা ভোটকেন্দ্র দখলে নিয়েছে৷'' ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী থেকে হাবিবুন নবী শাওন লিখেছেন, সেখানে নাকি ভোট ডাকাতি ও ভোটকেন্দ্রে যেতে বাধা দেয়া হয়েছে৷ মো: কামরুল হাসান লিখেছেন, ‘‘চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলায় ‘প্রত্যাশী আর এ উচ্চ বিদ্যালয়'-এ আওয়ামী লীগ প্রার্থীর পক্ষে জোর করে জালভোট দেওয়াকে কেন্দ্র করে বিএনপি প্রথমে ভাঙচুর চালায়৷ তারপর আওয়ামী প্রার্থীর এবং আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর উপস্থিতিতে আওয়ামী লীগ নির্বিঘ্নে ভোট দিয়ে যাচ্ছে৷ স্থানীয় আওয়ামী সমর্থক চেয়ারম্যান নিজ তদারকিতে চলছে জাল ভোট৷ আহহা কি সোনার ছেলেরা?''

মিথুন তালুকদার তার এলাকার নাম উল্লেখ না করে বলেন, ‘‘আমাদের এলাকায় ৩৪টা কেন্দ্রের মধ্যে ২৯টাতে ভোট হইয়া গেছে৷ ২৯টা কেন্দ্রেই সাধারণ লোকের ভোট দেয়া লাগেনি৷ সরকার দলীয় প্রার্থীর লোকজন গিয়ে কেন্দ্রের আশেপাশে অবস্থান করে ইচ্ছেমতো ভোট দেয়া শেষ হইলে তারপর তারা প্রিজাইডিং অফিসারকে বলে গেছে আর যেন ভোট না নেয়া হয়৷ কারণ ভোট শেষ৷ চারটার পর গণনা করতে বলেছে৷''

তবে অনেক পাঠক তাঁর এলাকায় সুষ্ঠুভাবে ভোট হওয়ার খবরও দিয়েছেন৷ যেমন জাহেদ নিজামী লিখেছেন, ‘‘আমার এলাকা অনেক অনেক ভালো৷'' আশিকুর রহমান আশিক জানিয়েছেন, তাঁর এলাকার অবস্থাও ভালো৷ সোহেল ইফতিও মনে করেন, ভোট সুষ্ঠ হয়েছে৷

এদিকে, হারার ভয়ে বিএনপি এমন অভিযোগ করছে বলে মনে করেন আশিকুর রহমান আশিক৷ ‘‘এর আগেও দেখেছি তারা অভিযোগ করেছে যে জায়গায় সেই জায়গাতেই আবার বিএনপি জিতেছে৷ জেতার পরে কিন্তু আর অভিযোগ করেনি৷ তো আমরা বিএনপির চরিএ জেনে গেছি৷ এগুলো সব মিথ্যা কথা, হারার ভয়ে এগুলো বলছে৷''

শিপন মজুমদার অবশ্য নির্বাচন আয়োজন নিয়েই কথা বলেছেন৷ তিনি লিখেছেন, ‘‘এই হাসির ভোটের কি দরকার ছিল৷ এমপিদের মতো বানিয়ে নিলেই পারতো৷''

সংকলন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন