1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

এবার স্বয়ংক্রিয় মেশিন থেকে শিল্পকর্ম

জার্মানির অনেক জায়গাতেই এখন অটোম্যাটিক বা স্বয়ংক্রিয় মেশিন থেকে সিগারেটের বদলে বের হয়ে আসে ছোট ছোট শিল্পকর্ম ৷ বেশ কিছু সিগারেটের মেশিনকে এইভাবে উপহারের মেশিনে রূপান্তরিত করা হয়েছে৷

default

সিগারেটের স্বয়ংক্রিয় মেশিন থেকে শিল্পকর্ম বের হচ্ছে

এইরকমই একটি স্বয়ংক্রিয় মেশিন দেখা যাবে স্বাস্থ্যনিবাস বলে পরিচিত পর্যটকদের প্রিয় শহর বাড ম্যুন্সটারআইফেলে৷ বন্ধু-বান্ধবের কাছে যাওয়ার সময় কিংবা কোন জন্মদিনের উৎসবে উপহার কিনতে ভুলে গেলে, এই মেশিনগুলির সাহায্য নেন অনেকেই৷ সাদা বরফঢাকা রাস্তার পাশে ৬০'এর দশকের স্বয়ংক্রিয় সিগারেটের মেশিনটি রূপ বদলে সগৌরবে দাঁড়িয়ে আছে, গায়ে টকটকে লাল কালিতে লেখা ‘কেস থেকে শিল্প কর্ম'৷ ছয়টি ইউরো মুদ্রা মেশিনে ঢোকালে একটি ড্রয়ার টানা যাবে, যাতে দেখা যাবে ছোট্ট সাদা এক প্যাকেট৷ মোড়কটি খুললেই বেড়িয়ে পড়বে সামনের কারুকার্যকরা রেস্তোরাঁভবন প্রিন্টেনহাউসের অনুকরণে তৈরি একটি মিনি বাড়ি৷ এই শিল্পকর্মটির স্রষ্টা ইউলিয়া ব্র্যুক এবং তাঁর বন্ধু ও সহকর্মী হেক্টর গোবিকে বসে থাকতে দেখা যায় সেই কাফে রেস্তোরাঁটিতে৷ চার বছর আগে এই দুই শিল্পী ড্যুসেলডর্ফ থেকে আইফেল অঞ্চলে এসে বসবাস শুরু করছেন৷ গ্রামীণ শান্ত স্নিগ্ধ নিটোল পরিবেশ তাঁদের ভাল লেগে যায়৷ কিন্তু একটি জিনিসের অভাব বোধ করেন তাঁরা৷ এই প্রসঙ্গে ইউলিয়া বলেন, ‘‘এখানে তেমন কোনো অভিনব সুভেনির পাওয়া যেত না৷ এখন এই মেশিনটি থেকে নতুন নতুন ধরনের জিনিস বের হয়ে আসে৷''

শিল্পী ইউলিয়া আইফেলে এসে তৎপর হয়ে ওঠেন সৃজনশীল কিছু তৈরি করার জন্য৷ বড় বড় জিনিসের অনুকরণে ছোট ছোট মিনি শিল্পকর্ম গড়ে তুলতে থাকেন তিনি৷ হাতের আঁচড়ে রঙিন করে তোলেন সেগুলি৷

Flash-Galerie Automaten

এখান সেখান থেকে কুড়িয়ে পাওয়া জিনিস দিয়ে কারুকার্যখচিত করে তোলেন সেগুলি৷ হাঁটতে হাঁটতে পথে পেয়ে যাওয়া পাথর, ফলমূল, ঘাস ইত্যাদি শিল্পের কাজে লাগান তিনি৷ বিশেষ করে এই অঞ্চলের বাড়িঘর, উদ্ভিদ ও প্রাণী জগৎ থেকে শিল্পকর্মের অনুপ্রেরণা খুঁজে পান ইউলিয়া৷ সাদা ছোট ছোট কাগজের বাক্সে ভরে স্বয়ংক্রিয় মেশিনে রেখে দেন জিনিসগুলি৷ ইউলিয়া জানান, ‘‘এর ফলে আমাকে কোনো দোকানের ওপর নির্ভরশীল হতে হয়না এবং এমন সব এলাকায় পৌঁছে যেতে পারি, যেখানে কোনো দোকানপাট নেই৷ হঠাৎ কোনো উপহারের প্রয়োজন পড়লে এই স্বয়ংক্রিয় মেশিন থেকে তা পেয়ে যেতে পারে মানুষ৷''

রাইন ও মোজেল নদীর তীরবর্তী অঞ্চলগুলিতে দেখা যাবে ১৬ টি স্বয়ংক্রিয় মেশিন, যাতে রয়েছে নানা আকর্ষণীয় মিনি শিল্পকর্ম৷ শিল্পী ইউলিয়ার বন্ধু হেক্টর গোবি কারিগরি ও ব্যবস্থাপনার দিকটি দেখাশোনা করছেন৷ ইন্টারনেটের মাধ্যমে সিগারেটের স্বয়ংক্রিয় মেশিন কিনে সেগুলিকে ঠিকঠাক করে রঙের প্রলেপ লাগিয়ে ঝকঝকে করে তোলেন তিনি৷ তারপর নির্দিষ্ট জায়গায় মেশিনগুলি বসিয়ে দেন, লক্ষ্য রাখেন সব ঠিকমতো চলছে কিনা৷ প্রয়োজন হলে নতুন শিল্প সামগ্রী দিয়ে মেশিনগুলি ভরে তোলেন৷ এই কাজটির সাফল্য সম্পর্কে কোনো সন্দেহ ছিলনা হেক্টরের৷ তিনি বলেন, ‘‘তা না হলে আমি বলতাম হাত সরিয়ে নাও এসব থেকে৷ এতে কোনো লাভ নেই৷ কিন্তু জিনিসগুলি ভাল হচ্ছে৷ ক্রেতারাও খুব খুশি৷ তারা বলেন, দাম বেশ কম৷''

Zigarettenautomat demnächst nur noch mit Karte

এত পরিশ্রম সত্ত্বেও জিনিসগুলির দাম মাত্র ছয় ইউরো৷ এটা সত্যি খুব বেশি নয়৷ মানুষের সাধ্যের মধ্যেই এই দাম৷ শীতকালে বিক্রি কিছুটা কম হলে গ্রীষ্মকালে সেটা পুষিয়ে নেয়ার চেষ্টা করা হয়৷ শিল্পকর্মগুলি বাজারে বিক্রির জন্য নিয়ে যান দুই শিল্পী৷ ইতোমধ্যে এই কাজ থেকে জীবনধারণ করতে পারছেন তারা৷ তবে মাঝে মাঝে একটু আধটু দুশ্চিন্তাও মাথা চাড়া দিয়ে ওঠে৷ ইউলিয়া বলেন, ‘‘প্রায় প্রতিদিনই আমার মনে হয়, আমি কি পাগল? আমি কী করছি, এতগুলি জিনিস আমি তৈরি করেছি, হাজারের বেশি তো হবেই৷''

ইউলিয়া ও হেক্টর তাঁদের অনেক ক্রেতাকেই ব্যক্তিগতভাবে চেনেন৷ অনেকের কাছে স্বতঃস্ফূর্তভাবে ফিডব্যাকও পাওয়া যায়৷ রেস্তোরাঁ প্রিন্টেন হাউসের মালিক গ্যুন্টার পর্ট তাদেরই একজন৷ তাঁর কথায়, ‘‘এই মিনি শিল্পগুলি এত সুন্দর যে সবার জন্য তা প্রদর্শন করতে আগ্রহী আমি৷ অবশ্য বরফঢাকা শীতকালে নয়৷ বসন্ত বা গ্রীষ্মকালে৷ বাস চলাচল শুরু করলে যখন দৃশ্যটা সম্পূর্ণ অন্যরকম হবে৷''

আসছে বসন্তে পর্যটকদের প্রিয় স্থানগুলিতে কয়েকটি স্বয়ংক্রিয় মেশিন স্থাপন করার পরিকল্পনা করছেন এই দুই শিল্পী৷ তাঁদের আশা, শুধু উপহারের জন্য নয়, নিজের শো'কেসের শোভাবর্ধনের জন্যও এই শিল্পকর্মগুলি কিনবে মানুষ৷

প্রতিবেদন: রায়হানা বেগম

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়