1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

এবার বিয়ে করতে যাচ্ছেন মনীষা

শিল্পা শেঠীর পর বলিউডের আরেক খ্যাতনামা অভিনেত্রী মনীষা কৈরালা বিয়ের পিঁড়িতে বসতে যাচ্ছেন৷ পাত্র নেপালের ব্যবসায়ী৷ নাম - সম্রাট দাহাল৷ সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র থেকে পিএইচডি করে ফিরেছেন তিনি৷

default

অভিনেত্রী মনীষা কৈরালা

২০০১ সালে মনীষা নেপালের তৎকালীন অস্ট্রেলিয়ান অ্যাম্বাসেডর ক্রিসপিন কনরয়-এর সাথে বাগদান ভেঙে দেন এই বলে যে, তিনি বিয়ে করতে প্রস্তুত নন৷ আর তারপর গত বছর, প্রণয়ে জড়িয়ে পড়েন অ্যামেরিকান লেখক ও বক্তা ক্রিস্টোফার ডোরিস-এর সঙ্গে৷ অবশ্য বিয়ের ঘন্টা শেষ পর্যন্ত আর বাজেনি৷ বর্তমানে এই নেপালী সুন্দরী যেন শিকড়ের টানেই ফিরে এসেছেন নেপালে আর বর হিসেবে বেছে নিয়েছেন একজন নেপালীকেই৷

ইন্দো-এশিয়ান নিউজ সার্ভিস জানিয়েছে, নেপালের রাজনৈতিক পরিবার থেকে সিনে জগতে আসা প্রথম অভিনেত্রী মনীষা কৈরালা৷ ৪০ বছর বয়সি মনীষা, দাহাল-এর সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হতে যাচ্ছেন দু'মাস পর৷ আগামী ১৯ জুন এই মালা বদলের দিন ঠিক হয়েছে বলে খবর৷

স্বাভাবিকভাবেই, বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন বলিউডের খ্যাতনামা তারকারা৷ বিয়ের অনুষ্ঠান চলবে তিন দিন ধরে৷ তাই এই অনুষ্ঠানকে ঘিরে চলছে ব্যাপক জল্পনা কল্পনা৷ ঘনিষ্ঠ সূত্রে জানা গেছে, এই বিয়ের অনুষ্ঠান হবে কাঠমান্ডুতেই৷

এদিকে, মনীষা প্রায় দুই দশক পর ‘ধর্ম' ছবিটির মধ্য দিয়ে আবার নেপালী চলচ্চিত্রে ফিরে আসছেন বলে জানা গেছে৷ এ ছবির পরিচালক দীপেন্দ্র খানাল৷ তবে, বর্তমানে তিনি কেরালাতে একটি তেলেগু ছবির শ্যুটিং-এও ব্যস্ত রয়েছেন৷ সামনের শুক্রবার তিনি কাঠমান্ডুতে এসে পৌঁছবেন৷

নেপালে মনীষা এযাবৎ মাত্র একটি ছবিতে অভিনয় করেছেন৷ তবে, নেপালী বংশোদ্ভূত মনীষা বলিউডে অত্যন্ত জনপ্রিয় একজন অভিনেত্রী৷ বলিউডে তাঁর উল্লেখযোগ্য ছবিগুলোর মধ্যে রয়েছে - সঞ্জয় লীলা বানসালির ‘খামোশি', বিধুবিনোদ চোপড়ার ‘১৯৪২ - আ লাভ স্টোরি', ‘দিলসে', ‘বম্বে' ইত্যাদি৷

গতমাসে মনীষা কৈরালা তাঁর দাদা গিরিজা প্রসাদ কৈরালার শেষকৃত্যে যোগ দিতে নেপালে যান৷ গিরিজা প্রসাদ কৈরালা ছিলেন নেপালের প্রথম নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী৷ সংবাদ সম্মেলনে মনীষাকে তাঁর বিয়ের ব্যাপারে জিজ্ঞেসা করা হলে, তিনি প্রশ্ন এড়িয়ে যান৷ উল্লেখ্য, নেপালী চলচ্চিত্র পরিচালক দীপেন্দ্র খানালই প্রথম মনীষার বিয়ের কথা জানান৷

প্রতিবেদক : আসফারা হক

সম্পাদনা : আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

সংশ্লিষ্ট বিষয়