1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

এবার পাশের হার ইতিবাচক, বেড়েছে শিক্ষার মানও

গত বছর পাসের হার কিছুটা কমে যায় বাংলাদেশে৷ কিন্তু এবার, এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল ইতিবাচক ধারায় ফিরেছে৷ গত বছরের তুলনায় গড় পাসের হার ও জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীর সংখ্যা দুটোই বেড়েছে৷

ছেলেদের তুলনায় মেয়েদের ফল অনেক ভালো৷ রেজাল্ট ঘোষণার পর এক সাংবাদিক সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, এইচএসসি পরীক্ষার আগের তিন মাসে অন্তত ৩২ হাজার কোটি টাকার কোচিং বাণিজ্য হয়৷ ফলে পরীক্ষায় কিছুটা ভালো ফল পেলেও উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হতে গিয়ে শিক্ষার্থীরা আটকে যাচ্ছেন৷ তাই কোচিং বাণিজ্য বন্ধ করতে পারলে শিক্ষার মানও উন্নত হবে বলে আশা শিক্ষামন্ত্রীর৷

এবার এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় ৭৮ দশমিক ৩৩ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে৷ এছাড়া জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭০ হাজার ৬০২ জন৷ দেশের আট হাজার ১০৪টি প্রতিষ্ঠানের ১১ লাখ ৪১ হাজার ৩৭৪ জন শিক্ষার্থী এ বছর এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় অংশ নেয়৷ গত ৩রা এপ্রিল থেকে ১৬ই জুন দেশের দুই হাজার ৩৫২টি কেন্দ্রে এই পরীক্ষা হয়েছিল৷ আটটি সাধারণ বোর্ডের অধীনে এবার এইচএসসিতে ৭৫ দশমিক ৭৪ শতাংশ, মাদ্রাসা বোর্ডে ৯৪ দশমিক ০৮ শতাংশ এবং কারিগরি বোর্ডে ৮৫ দশমিক ০২ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে৷

গত বছর নির্বাচন সামনে রেখে রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতায় বার বার পরীক্ষা পেছানোয় এবং নতুন তিনটি বিষয়ের পরীক্ষা সৃজনশীল প্রশ্নে হওয়ায় এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় ফল বিপর্যয় হয়৷ পাস করে মাত্র ৭৪ দশমিক ৩০ শতাংশ শিক্ষার্থী৷ আর জিপিএ-৫ পায় ৫৮ হাজার ১৯৭ জন৷ এই হিসাবে এবার এইচএসসিতে পাসের হার বেড়েছে ৪ দশমিক ০৩ শতাংশ৷ তার সঙ্গে জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা বেড়েছে ১২ হাজার ৪০৫ জন৷

শিক্ষানীতি প্রণয়ন কমিটির সদস্য শিক্ষাবিদ ড. আখতারুজ্জামান ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘পাশের হার বৃদ্ধি ইতিবাচক৷ কলেজগুলোতে ভালো পড়ালেখা হলে পাশের হার আরো বাড়বে৷ কিন্তু প্রশ্ন হলো এইসব শিক্ষাথীর্র একটা অংশ উচ্চশিক্ষায় গিয়ে ঝড়ে যাচ্ছে৷ শিক্ষার্থীদের ঝড়ে পড়া রোধ করতে হবে৷ পাশাপাশি শিক্ষার মান বাড়াতেও কাজ করে যেতে হবে৷ উচ্চশিক্ষার সুযোগ আরো বাড়ানোর পরামর্শও দেন এই শিক্ষাবিদ৷

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, সবার কাছে পৌঁছে দিতে পারলে শিক্ষার মানও বাড়ানো সম্ভব৷ এবারের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফলে আনন্দ প্রকাশ করে তিনি বলেছেন, বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে৷ শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এবং দশ শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানরা বুধবার সকালে গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর হাতে ফলাফলের অনুলিপি হস্তান্তর করে৷

শেখ হাসিনা বলেন, ‘‘শিক্ষা সকলের কাছে পৌঁছে দিতে পারলেই শিক্ষার মান বাড়বে৷'' শিক্ষাকে দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার মূল চাবিকাঠি হিসাবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘‘মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী কিছু লোকের কথায় দুঃখ পান৷ কিছু লোক আছে যাঁদের কাজই সমোলোচনা করা৷'' তাই পাছে লোকে কিছু বলে – এটা মনে করলে সঠিক কাজ করা যাবে না, বলেন প্রধানমন্ত্রী৷

বাংলা ছাড়া অন্য কোনো ভাষাতে ‘পরশ্রীকাতরতা' শব্দটি নেই৷ এমন মন্তব্য করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘‘কে কি বললো – এটা নিয়ে দুঃচিন্তা করার কোনো কারণ নেই৷''

Bangladesch Schüler Schulkasse in Dhaka Prüfung

এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পাসের হারের দিক দিয়ে মেয়েরা এগিয়ে

শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, পাসের হার আগামীতে আরো বাড়বে৷ ‘‘আমরা প্রতিটি জেলায় বেসরকারি, না হয় সরকারি – একটি করে বিশ্ববিদ্যালয় করে দেব৷'' পাশাপাশি বিশেষায়িত বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার ওপরও গুরুত্ব দেন প্রধানমন্ত্রী৷ গণভবনে বসেই প্রধানমন্ত্রী অনলাইনে পরীক্ষার ফলাফল উন্মুক্ত করেন এবং ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দিনাজপুরের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলেন৷

ফল বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় এবার পাসের হারের দিক দিয়ে মেয়েরা এগিয়ে৷ তবে জিপিএ-৫ পাওয়ার দিক থেকে এখনও এগিয়ে ছেলেরা৷ এবার মেয়েদের মধ্যে ৭৮ দশমিক ৮৬ শতাংশ পাস করেছে৷ আর ছেলেদের পাসের হার ৭৭ দশমিক ৮৬ শতাংশ৷ তাছাড়া পরীক্ষায় এবার ৪ লাখ ৫২ হাজার ১৩০ জন মেয়ে অংশ নিয়েছিল, তার মধ্যে পাস করেছে ৩ লাখ ৪৬ হাজার ৭০৮ জন৷ অপরদিকে ৪ লাখ ৬২ হাজার ৪৭৩ জন ছেলে পরীক্ষার্থীর মধ্যে পাশ করেছে মাত্র ৩ লাখ ৪৫ হাজার ৯৮২ জন৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়