1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

এবার আর দত্তক নয়, নিজেই সন্তানের জন্ম দিতে চান সুস্মিতা

প্রথম ভারতীয় হিসেবে ‘মিস ইউনিভার্স’ শিরোপা জিতে, সৌন্দর্য আর বুদ্ধিমত্তায় দেশের সকলকে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন বঙ্গ-ললনা সুস্মিতা সেন৷ অথচ তখনও বোঝা যায় নি সুস্মিতা আসলেই কতোটা ভিন্ন, কতোটা দৃঢ়চিত্ত৷

default

বলিউড অভিনেত্রী সুস্মিতা সেন

সুস্মিতা সেন ‘মিস ইউনিভার্স' হয়েছিলেন - তা প্রায় ১৫ বছর আগে৷ আর তারপর শুরু হয়েছিল তাঁর মডেল থেকে অভিনেত্রী হয়ে ওঠার কাহিনী৷ সেখানেই শেষ নয়৷ ভারতীয় এই সুন্দরী বরাবরই তাঁর ব্যক্তিত্ব আর অ-প্রথাগত জীবনাচরণে গণমাধ্যমের প্রশংসা কুড়িয়েছেন৷

পুরুষসঙ্গীর পরোয়া না করে, ‘বালাশা' নামের একটি বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা বা এনজিও থেকে দত্তক নিয়েছিলেন বড় মেয়ে ‘রেনি'কে৷ তখন সুস্মিতার বয়স মাত্র ২৪৷ মনে রাখতে হবে, এটা এমন এক সময়ের ঘটনা, যখন ভারতে দম্পতি ছাড়া কাউকে দত্তক নিতে দেওয়া হতো না, বিশেষত অবিবাহিত অভিনেত্রীদেরকে৷ অথচ সুস্মিতা জানান, ‘‘বালাশা আমাকে সে রকম কোনো ঝামেলায় না ফেলে বরং আমার জীবনটাকে সহজে পাল্টে দিয়েছে৷ সেখানে এখনও আরও অনেক শিশু আছে যাদের একটা ঘর প্রয়োজন, ভীষণভাবে প্রয়োজন একটা বাড়িতে থাকা৷ আমার মনে হয় যে, আমি আরও বহুবার দত্তক নিই৷ আমার মনে হয়, সাধ্যের সর্বোচ্চ করা উচিৎ আমার৷''

হ্যাঁ, নিজের সাধ্য মতোই করতে চেষ্টা করেছেন সুস্মিতা৷ এ বছরের জানুয়ারি মাসে আরো একটি শিশু দত্তক নিয়েছেন তিনি৷ আদুরে সেই ছোট মেয়ের নাম ‘আলিশা'৷ কিন্তু এখানেই সুস্মিতার মা হওয়ার স্বপ্ন ফুরিয়ে যায় নি৷ এবার নিজেই সন্তানধারণ করতে আগ্রহী তিনি৷ সুস্মিতার কথায়, ‘‘এ মুহূর্তে মা হওয়ার তাগিদটা আমি যেন ভেতর থেকে অনুভব করছি৷ তাছাড়া, আমার বয়েসও বেড়ে যাচ্ছে৷ তাই এটাই হয়তো সঠিক সময়৷''

এর মানে তিনি কি শীঘ্রই বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন ? সুস্মিতার সাফ জবাব, ‘‘না, বিয়ে করছি - এমন কথা তো আমি বলি নি৷'' তাঁর কথায়, ‘‘পছন্দের পুরুষ কে না চায় ? তবে আমি বহুদিন সে সম্পর্কে চিন্তা-ভাবনা করা বাদ দিয়েছি৷ অবশ্য আজ তেমন কাউকে চাই না - সে কথা কি আর হলফ করি বলতে পারি ?'' - জানান সুস্মিতা সেন৷

প্রতিবেদন: দেবারতি গুহ

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়